ত্রাণ চুরি বন্ধে পুলিশকে কঠোর নির্দেশনা আইিজিপির

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পুলিশ সদস্যদের জনগণের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বাহিনীটির মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। এই অবস্থায় ত্রাণ চুরি ও বাইরের আড্ডা বন্ধের নির্দেশও দেন তিনি। আজ রবিবার বিকেলে এক ভিডিও কনফারেন্সে পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বক্তব্যে তিনি এ নির্দেশনা দেন।

জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ত্রাণ বিতরণের ক্ষেত্রে কোনো অনিয়ম বরদাশত করা হবে না। জানিয়ে সরকারি ত্রাণ চুরি বা অনিয়মকারীদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনতে হবে। আর ত্রাণ বিতরণের সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।’

আইজিপি বলেন, ‘করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে যেসব স্থানে লকডাউন করা হয়েছে, তা সঠিকভাবে মেনে চলতে হবে। জনগণকে ঘরে থাকতে হবে। বাইরে আড্ডা দেওয়া বন্ধ করতে হবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে চুরি, ছিনতাই ইত্যাদি অপরাধ বেড়ে যেতে পারে। পারিবারিক সহিংসতাও বাড়তে পারে। কোনোভাবেই যেন এ ধরনের অপরাধ বাড়তে না পারে সেদিকে নজর রাখতে হবে।’

এ সময় নবনিযুক্ত আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদকে আন্তরিক অভিনন্দন জানান আইজিপি। তিনি বলেন, ‘তার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ পুলিশ অনেক দূর এগিয়ে যাবে। তিনি মেধা, দক্ষতা, প্রজ্ঞা ও উদ্যমী শক্তি দিয়ে বাংলাদেশ পুলিশকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে পারবেন।’

বুশার্ডকে চিনেন টেনিস দুনিয়ার সবাই, এবার এই সুন্দরী ডেটিংয়ে যাচ্ছেন করোনার বিরুদ্ধে লড়তে

স্পোর্টস ডেস্ক : একবার সোশ্যাল সাইটে বাজিতে হেরেও ডেটিংয়ে গিয়েছিলেন। সেই ইউজিনি বুশার্ড আবারও ডেটিংয়ে যাচ্ছেন, এবার মজার জন্য নয়। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহযোগিতার হাত বাড়ানোর জন্যই তার এই ডেটিং যাত্রা। ডেটিংয়ে বুশার্ড যা অর্থ পাবেন, সেটা চলে যাবে একটি হাসপাতালের ফান্ডে।

২৬ বছর বয়সী অনিন্দ্য সুন্দরী বুশার্ড করোনার এই সময়ে কোয়ারেন্টিনে থেকে বিরক্ত হয়ে গিয়েছিলেন। একাকীত্ব ঘুচানোর জন্য টুইটারে একজন ছেলেবন্ধু চেয়ে পোস্ট করেন। পাশাপাশি করোনাদুর্গতদের সহায়তায় ওই হাসপাতালে টয়লেট টিস্যুর ব্যবস্থা করার ব্যাপারটিও মাথায় আসে তার। এরপর ইনস্টাগ্রামে আমেরিকান মডেল এবং সাংবাদিক অ্যালি লাফোর্সের সঙ্গে এক লাইভ শোতে আসেন বুশার্ড। এই লাফোর্সই বুশার্ডের ডেটিং সঙ্গীকে খুঁজে দেন। সেই ভাগ্যবান যুবকের নাম বব। – ডেইলি মেইল

ববের ‘সিলেকশন’ হওয়ার ঘটনাটিও বেশ মজার। অ্যালি লাফোর্সের সঙ্গে বুশার্ডের সেই লাইভ চ্যাটিংয়ের কমেন্ট ফিডে বব অনবরত মতামত দিয়ে যাচ্ছিলেন। বুশার্ডের সঙ্গে ডেটিংয়ের জন্য ৪০০ পাউন্ড স্বেচ্ছায় দিতে চেয়েছিলেন। পরে লাফোর্সের হস্তক্ষেপে সেটি বেড়ে দাঁড়ায় ২৪১০ পাউন্ড! এখানেই শেষ নয়, ডেটিংয়ের সময় বুশার্ড যদি ব্রিটিশ উচ্চারণে কথা বলেন তার সঙ্গে তাহলে বব অতিরিক্ত আর ৮০০ পাউন্ড দেবেন। এর আগে ইউএস সুপার বোল টুর্নামেন্ট নিয়ে সোশ্যাল সাইটে বাজিতে হেরে গিয়ে জন নামের এক যুবকের সঙ্গে ডেটিংয়ে যান তিনি। -জি নিউজ

কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের ছয় চিকিৎসক বরখাস্ত- স্বাস্থ্য সচিবকে বিএমএর চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক : কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের ছয় চিকিৎসককে সাময়িক বরখাস্ত হয়রানির আদেশ উল্লেখ করে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে স্বাস্থ্য সচিবকে চিঠি দিয়েছেন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী।

রবিবার (১২ এপ্রিল) এ চিঠি দেয়া হয়।

চিঠিতে বলা হয়, অত্যন্ত উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করা গেছে যে, সম্প্রতি স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক আদেশে কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের ছয়জন চিকিৎসককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। উল্লিখিত কর্মকর্তাদের বরখাস্তের পূর্বে তাদের আত্মপক্ষ সমর্থনের কোনো সুযোগ দেওয়া হয়নি। সেখানে দুজন চিকিৎসক রোস্টারে ডিউটিতে ছিলেন। একজন চিকিৎসক স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে গিয়ে জানতে চেয়েছেন তিনি ১ থেকে ৭ এপ্রিল পর্যন্ত ডিউটি শেষ করে বর্তমানে পরবর্তী রোটেশনের অপেক্ষায় ছিলেন, তিনি কেন বরখাস্ত হলেন? আরেকজন চিকিৎসক মিডিয়ায় বলেছেন যে, তিনি ৩১ মার্চ পর্যন্ত ডিউটি করেছেন, পুনরায় ১৫ এপ্রিল রোস্টার অনুযায়ী কর্মস্থলে উপস্থিত হওয়ার কথা। তিনি বর্তমানে একটি হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে আছেন।

এছাড়া দুজন চিকিৎসককে ১৩ ফেব্রুয়ারি ও ১৫ ফেব্রুয়ারি কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে পদায়ন করা হয়েছে তারা ওখানে যোগদান করেছেন, তাদের এখন কেন বরখাস্ত করা হলো?

চিঠিতে আরও বলা হয়, সমন্বয়হীনতার ব্যর্থতা কি উদোর পিণ্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপানোর একটা কৌশল মাত্র। জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে সরিয়ে নিয়ে চিকিৎসকদের বিব্রত করে প্রশাসন কি অদক্ষতার পরিচয় দেয়নি? চিকিৎসক হলেই যে মানুষ মানসিকভাবে খুব শক্ত হবেন এমন তো নয়। বিদেশে দু-একজন চিকিৎসক মানসিক চাপ সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যাও করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন অনুযায়ী ঝুঁকিপূর্ণ কাজে যে কেউ নিজেকে নিবৃত রাখতে পারেন। তথাপি এসব চিকিৎসক বক্তব্য অনুযায়ী তারা কেউই কভিড-১৯ রোগী দেখতে অপারগতা প্রকাশ করেননি। কোনো কিছুই বিবেচনায় না নিয়ে সরকারি চাকরিবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালন না করে এ সব চিকিৎসককে বরখাস্ত আদেশ গােটা চিকিৎসক সমাজকেই হতাশ করেছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাংলাদেশের চিকিৎসকরা অত্যন্ত সাহসের সাথে যেখানে করোনা মোকাবিলা করছেন সেখানে এ ধরনের আদেশ হঠকারী ও অনভিপ্রেত।

এতে আরও বলা হয়, প্রয়ো জনে যে কাউকে অন্য কোথাও বদলি করা যেত, তাদের বাধ্যতামূলক ছুটি দেয়া যেত। কিন্তু অকস্মাৎ গণমাধ্যমের এই চাঞ্চল্যকর বিষয়টি বর্তমান মহামারি আক্রান্ত জনগোষ্ঠীর সেবায় স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছে খারাপ বার্তা পৌঁছে দিয়েছে। এতে করে কারা লাভবান হচ্ছে বিষয়টি পরিষ্কার নয়। এ ব্যাপারে জরুরি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিষয়টি আপনার কাছে উপস্থাপন করা হলো।

করোনা আতঙ্কের মাঝেই সুইজারল্যান্ডে প্রেমিকের বাড়িতে মোনালি

বিনােদন ডেস্ক : চারিদিকে করোনা আতঙ্ক। এই করোনা আতঙ্কের মাঝেই বলিউড গায়িকা মোনালি ঠাকুর আপাতত গা ভাসাচ্ছেন রোমান্সে। তার জার্মান বয়ফ্রেন্ড মাইক রিখটারের সঙ্গে আপাতত তার দিন কাটছে আল্পস ঘেরা সুইজারল্যান্ডে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা।

একটি সাক্ষাৎকারে মোনালি জানিয়েছেন, লকডাউন শুরু হওয়ার আগেই তিনি বুঝতে পেরেছিলেন পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে চলেছে। সুইজারল্যান্ড যাওয়ার আগে তাই বাড়িতে পরিবারের জন্য প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র কিনে রেখে যান।

মোনালির কথায়, এখানে পরিস্থিতি এতটাও খারাপ নয়। রেস্তোরাঁ, পাব খোলা নেই ঠিকই তবে ব্যাংক, হাসপাতাল, পোস্টাল সার্ভিস খোলা। সারাদিন সাইকেল চালাচ্ছি। পাহাড়ের কোলে সাইকেল চালানোর মজাই আলাদা। যখন বাড়িতে থাকছি তখন হোম স্টুডিওতেই গান রেকর্ড করে নিচ্ছি। সময় পেলে মাইকের জন্য রান্নাও করছি।
প্রেমিক মাইকের সে কথাও জানিয়েছেন মোনালি। গায়িকার জার্মান এই বয়ফ্রেন্ডের একটি ফার্মহাউজ রয়েছে সেখানে। মাইক এবং তার পরিবারের সঙ্গে আপাতত সেখানেই অবসর যাপন করছেন মোনালি। মাইককে বিয়ে করছেন কবে নাগাদ? মোনালি জানান, সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী বছরেই এক হবে চার হাত।

করোনা দুর্যোগে দুস্থ শিশুদের পাশে দাঁড়ালেন সালমা

বিনােদন ডেস্ক : চলমান করোনা দুর্যোগে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে ধারাবাহিক সহায়তা কার্যক্রম চালাচ্ছে কণ্ঠশিল্পী সালমা ও সাগর দম্পতির ‘সাফিয়া ফাউন্ডেশন’। দুস্থদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ও ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকার গৃহহীন অসহায় মানুষদের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরণ অব্যাহত রেখেছে তারা।

শনিবার থেকে অসচ্ছল পরিবারের বাচ্চাদের মধ্যে নিয়মিত দুধ বিতরণ শুরু করছে ‘সাফিয়া ফাউন্ডেশন’। প্রথম দিন ২০০ শিশুর মধ্যে ৫০০ গ্রাম করে দুধ বিতরণ করা হবে। এ সহায়তাও ধারাবাহিকভাবে চলবে বলে সালমা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। তিনি জানান, সাফিয়া ফাউন্ডেশনের ফেসবুক পেজে (https://www.facebook.com/safiafoundation.ed/) যারা নক করবেন, তাদের বাড়িতে দুধ পৌঁছে দেওয়া হবে। পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যোগে নির্দিষ্ট কিছু পরিবারের তালিকা করেও দুধ পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে, গত ৩১ মার্চ তাদের গড়া সেবামূলক প্রতিষ্ঠান ‘সাফিয়া ফাউন্ডেশন ফর এডুকেশনাল ডেভেলপমেন্ট’র পক্ষ থেকে ঢাকা ও আশ-পাশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মধ্যে খাদ্রসামগ্রী বিতরণ করা হয়। আর এই করোনা দুঃসময়ে অসহায় মানুষের পাশে বিত্তবানদের দাঁড়ানো উচিত বলে মনে করেন কণ্ঠশিল্পী মৌসুমী আক্তার সালমা।

হিন্দু নারীকে ধর্ষণের অভিযােগ মাদারীপুরে আ.লীগ নেতা বহিষ্কার

ডেস্ক রিপাের্ট : ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য সাকিলুর রহমান তালুকদার সোহাগকে দল থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

শনিবার রাতে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজল কৃষ্ণ দে স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য সাকিলুর রহমান তালুকদার সোহাগের বিরুদ্ধে এক হিন্দু নারীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উত্থাপিত হয়। সেই নারী বাদী হয়ে গত ১৮ মার্চ ঢাকার ভাটারা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। ওই মামলায় সাকিলুর রহমান তালুকদার সোহাগ গ্রেফতার হয়ে কারাগারে রয়েছেন। এতে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হওয়ায় তাকে দলীয় পদ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজল কৃষ্ণ দে বলেন, “সাকিলুর রহমান সোহাগ তালুকদারের এক হিন্দু তরুণীকে শুধু ধর্ষণই করেননি; তার বিরুদ্ধে দলের শৃংখলা ভঙ্গের আরো অভিযোগ রয়েছে। তাই তাকে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে; যাতে স্থায়ীভাবে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।”

এলাকাবাসীরা না আসায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির জানাজা পড়ালেন ইউএনও

ডেস্ক রিপাের্ট : এলাকাবাসী এগিয়ে না আসায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির দাফনের কাজ সম্পন্ন করেছে পুলিশ। এ সময় মৃত ব্যক্তির নামাজে জানাজা পড়ান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. বদরুদ্দোজা শুভ। পরে খাটিয়া বহন করে কবরস্থানে নিয়ে দাফন করেন পুলিশ সদস্যরা। শনিবার (১১ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ঝিনাইদহ সদর উপজেলার খাজুরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, খাজুরা গ্রামের ওই ব্যক্তি শ্বাসকষ্ট ও জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান। পরে শনিবার বিকেলে গ্রামের বাড়িতে মরদেহ আনার পর দাফন কাজে এগিয়ে আসেনি এলাকাবাসীসহ পরিবারের সদস্যরা। বিষয়টি জানতে পেরে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামানের নির্দেশে তার দাফন কাজে এগিয়ে যান ঝিনাইদহ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশারসহ অন্য পুলিশ সদস্যরা। সঙ্গে ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. বদরুদ্দোজা শুভ। জানাজা শেষে নিজেরাই মরদেহের খাটিয়া বহন করে কবরস্থানে নিয়ে দাফন কার্য সম্পন্ন করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. বদরুদ্দোজা শুভ জানান, করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করায় স্থানীয় লোকজন কেউ ছিল না। তাই মানবিকতার জায়গা থেকে জানাজার নামাজ পড়িয়েছি।

ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান জানান, সব মানুষের বিপদে আমরা পুলিশ সদস্যরা পাশে আছি। তারই একটি অংশ গতকালের দাফন কার্য। যত কঠিন পরিস্থিতি আসুক না কেন আমরা মানুষের পাশেই থাকবো।

অধিনায়কত্ব হারিয়ে নিজেকে খেলোয়াড় হিসাবে তৈরি করতে কষ্ট হচ্ছে, বললেন জেসন হোল্ডার

স্পোর্টস ডেস্ক : ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে (২০১৯) ভয়াবহ বাজে পারফরম্যান্স করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ব্যর্থতার দায় কাঁধে নিয়ে সীমিত ওভারের নেতৃত্ব হারাতে হয়েছে জেসন হোল্ডারকে। ফলে নতুন ভূমিকায় মানিয়ে নিতে কঠিন লড়াই করতে হচ্ছে তাকে।

হোল্ডার মনে করেন, অধিনায়কত্ব হারানোর পর কেবল খেলোয়াড় হিসেবে অভ্যস্ত হওয়াটা বেশ কঠিন। সম্প্রতি টকস্পোর্টসের ক্রিকেট কালেক্টিভ পডকাস্টে একথা বলেছেন তিনি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই পেসার বলেন, সত্যি কথা বলতে, কেবল একজন খেলোয়াড় হিসেবে মানিয়ে নেওয়াটা বেশ কঠিন হচ্ছে। কীভাবে শুধু একজন খেলোয়াড় হিসেবে অভ্যস্ত হতে হবে তা বোঝার চেষ্টা করাটা বেশ কঠিন।

বিশ্বকাপের আসরে দশ দলের মধ্যে নবম হয়েছিল ক্যারিবীয়রা। এই বিশ্ব আসরে কেবল দুটি ম্যাচে জয়ের স্বাদ পেয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বল হাতে গড়পড়তা পারফরম্যান্স করেছেন হোল্ডারও। আট ইনিংসে তিনি নিয়েছিলেন আট উইকেট। – ক্রিকফ্রেঞ্জি

গত বছরের সেপ্টেম্বরে উইন্ডিজের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক করা হয় কাইরন পোলার্ডকে। তাঁর অধীনে ৮ ওয়ানডেতে ৬ উইকেট নেন হোল্ডার। এমন পারফরম্যান্সের কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলেই তাঁর জায়গা নড়বড়ে হয়ে গেছে। অবশ্য নিজের উপর বিশ্বাস রাখছেন হোল্ডার।

তিনি বলেছেন, ‘পারফরম্যান্স অবশ্যই ওরকম মানের হচ্ছে না, যেমনটা সম্ভবত আমি পছন্দ করতাম। কিন্তু আমি হতাশ হচ্ছি না। নিজেকে চাপে ফেলছি না। খুব বেশি চিন্তাও করছি না। কারণ, নিজের সামর্থ্য সম্পর্কে আমি জানি। আমি জানি, আমি কী করতে পারি। আমি শুধু এটা জানি যে, একটা ভালো ইনিংস, একটা দুর্দান্ত বোলিং প্রদর্শনী খুব কাছেই রয়েছে।- ক্রিকইনফো

করোনার মধ্যেই দিল্লিতে ভূমিকম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। রবিবার স্থানীয় সময় বিকাল ৫টা ৪৫ মিনিটের দিকে ৩ দশমিক ৫ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে।

তবে তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির কোনো খবর পাওয়া যায়নি। করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউনে থাকা মানুষের মধ্যে ভূমিকম্পের পর আতংক ছড়িয়ে পড়ে। খবর এনডিটিভির।

ভারতীয় আবহাওয়া বিভাগ (আইএমডি) জানিয়েছে, ভূমিকম্পটির উৎসস্থল ছিল দিল্লি-উত্তরপ্রদেশ সীমানায়। প্রায় এক মিনিট ধরে কম্পন অনুভূত হয়।

নাগরিকদের সুরক্ষার বার্তা দিয়ে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল একটি টুইট করেছেন। সেখানে তিনি লেখেন, দিল্লিতে কম্পন অনুভুত হয়েছে। আশা করি সবাই সুরক্ষিত রয়েছেন। আপনাদের সবার সুরক্ষা কামনা করি।

কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের সাময়িক বরখাস্ত দুই চিকিৎসক বললেন- কখনও বলিনি করোনা আক্রান্ত রোগী দেখব না

ডেস্ক রিপাের্ট : কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল থেকে সাময়িক বরখাস্ত দুই চিকিৎসক বলেছেন, তাঁরা কখনও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে অস্বীকৃতি জানাননি।

এই দুই চিকিৎসক হলেন কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের আবাসিক চিকিৎসক মুহাম্মাদ ফজলুল হক এবং একই হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট (স্ত্রীরোগ ও প্রসূতিবিদ্যা) শারমিন হোসেন।

গতকাল শনিবার কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের ছয় চিকিৎসককে সাময়িক বরখাস্তের সুপারিশ করেন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক সেহাব উদ্দিন। ওই দিনই সন্ধ্যায় অধিদপ্তর তাঁদের সাময়িক বরখাস্তের ঘোষণা দেয়। করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে এই ছয় চিকিৎসক অনিচ্ছা দেখিয়েছেন বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অভিযোগ করেছেন।

শারমিন হোসেন আজ রোববার ফেসবুক লাইভে এসে বলেন, “তত্ত্বাবধায়ক স্যার আমাকে কোনো টেলিফোন না করে বা কোনো কিছু না জানিয়ে আমার বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে নাম পাঠিয়েছে যে আমি না কি কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসা দিতে ইচ্ছুক না। এমন কথা আমি মৌখিক বা লিখিতভাবে কখনও স্যারের কাছে অথবা কারও কাছে প্রকাশ করেছি বলে আমার জানা নেই। ’

ওই চিকিৎসক আরও বলেন, তিনি ১ এপ্রিল থেকে ৭ এপ্রিল পর্যন্ত কাজ করেন। রাতের পালার কাজ সেরে বাসায় ফেরেন সকালে। একদিন পর তিনি জানতে পারেন তাঁকে বরখাস্ত করা হয়েছে।
শারমিন হোসেন তাঁর হাজিরা খাতার অনুলিপি নিয়ে আজ রোববার সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) মো. বেলাল হোসেনের সঙ্গে দেখা করেন বলেও ওই পোস্টে বলেন।

এ ছাড়া গতকাল রাতে বেসরকারি একাত্তর টেলিভিশনের টকশোতে নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন মুহাম্মদ ফজলুল হক। তিনি নিয়মিত হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করছিলেন বলে জানান।
এই দুই চিকিৎসক বাদে আরও যে চারজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে তাঁদের একজন আগেই ইস্তফাপত্র দিয়েছেন। অন্য তিনজন হাসপাতালে আসছিলেন না।

জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) বেলাল হোসেন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আজ সকালে শারমিন হোসেন তাঁর সঙ্গে দেখা করেছেন। তিনি তাঁর বক্তব্য লিখিতভাবে স্বাস্থ্যসচিবকে জানাতে বলেছেন।

তবে, এই আদেশ প্রত্যাহারের কোনো পরিকল্পনার কথা তিনি জানাতে পারেননি। তিনি বলেছেন, কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের সুপারিশে চিকিৎসকেরা সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন। তদন্তের পর নির্দোষ প্রমাণিত হলে, তাঁরা নির্দোষ।