দৈনিক পত্রিকার সাংবাদিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক : এবার দৈনিক পত্রিকার এক সাংবাদিক নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত সাংবাদিক বাংলাদেশের খবরে কাজ করেন। এর আগে বেসরকারি টেলিভিশনের দুই সাংবাদিক করোনায় আক্রান্ত হন।

পত্রিকাটির উপদেষ্টা সম্পাদক সৈয়দ মেজবাহ উদ্দিন সহকর্মী আক্রান্ত হওয়ার খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতির কারণে আমাদের প্রিন্ট ভার্সন আপাতত বন্ধ রয়েছে। তবে অনলাইনে কাজ চালু রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে।

তিনি জানান, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৩৭ বছর বয়সী বাংলাদেশের খবরের সেই সাংবাদিক বাসায় থেকেই কাজ করতেন। তাই অফিসের অন্য কেউ আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা নেই। তবে আমরা খোঁজ নিচ্ছে গত দুই সপ্তাহের মধ্যে ওই সাংবাদিকের কাছাকাছি কেউ গিয়েছেন কিনা। কাউকে চিহ্নিত করতে পারলে তাকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হবে।

আক্রান্ত সাংবাদিকের এক স্বজন জানিয়েছেন, কয়েক দিন ধরে তার গলা ব্যথা ও জ্বর ছিল। গত শনিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গেলে চিকিৎসক তাকে কিছু ওষুধ দিয়ে পাঁচ দিন খেতে বলেন। অবস্থার উন্নতি না হলে করোনাভাইরাসের টেস্ট করতে বলেন।

বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে গিয়ে নমুনা দেন। শুক্রবার সকালে সিভিল সার্জন অফিস থেকে জানানো হয় যে তার নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ এসেছে।

তিনি জানান, মালিবাগের ভাড়ায় বাসায় স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে থাকেন ওই সাংবাদিক। চিকিৎসক তাকে বাসায় থাকতে বলেছেন এবং শ্বাসকষ্ট হলে হাসপাতালে ভর্তি হতে বলেছেন। বর্তমানে তার হালকা জ্বর ছাড়া আর কোনো শারীরিক সমস্যা হচ্ছে না।

এর আগে বেসরকারি ইন্ডিপেনডেন্ট ও যমুনা টেলিভিশনের দুই সাংবাদিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

চীনের বিরুদ্ধে বিশ্বজুড়ে সাইবার হামলার অভিযোগ কানাডার সফটওয়্যার সংস্থার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : গত এক দশক ধরে বিশ্বের বেশ কয়েকটি শক্তিশালী দেশের কম্পিউটার থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ‘হাতিয়ে নিয়েছে’ চীনা হ্যাকাররা। বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুলল কানাডার সফটওয়্যার সংস্থা ব্ল্যাকবেরি। চীন সরকারের মদতেই এসব হয়েছে বলে অভিযোগ তাদের।

চলতি সপ্তাহে ব্ল্যাকবেরির পক্ষ থেকে ৪০ পাতার একটি রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়। তাতে বলা হয়েছে, বিজ্ঞাপনের ছদ্মবেশে বিভিন্ন কম্পিউটারে আবির্ভূত হয় চীনা হ্যাকাররা। তাদের প্রযুক্তি এতটাই উন্নত যে, কম্পিউটারের ফায়ারওয়ালেও ধরা পড়ে না। আর সেই সুযোগেই কম্পিউটারে মজুত রাখা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাতিয়ে নেয় তারা।

২০১২ সালের মার্চ থেকে সরকারি মদতে চীনা হ্যাকাররা এই গুপ্তচরবৃত্তি চালিয়ে আসছে বলে দাবি করেছে ব্ল্যাকবেরি। তবে সাধারণ উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে আঘাত না হেনে, বিশ্বের বড় বড় সংস্থা, সরকারি ডেটাবেস সার্ভার এবং বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও ৫০০ সুপারকম্পিউটারে যে লিনাক্স অপারেটিং প্রযুক্তিতে কাজ হয়, বেছে বেছে সেগুলোতেই আঘাত হানা হয়।

অনলাইনে তথ্য হাতিয়ে নেওয়া এই ধরনের পাঁচটি অ্যাডভান্সড পারসিসটেন্ট থ্রেট (এপিটি) সংগঠনের হদিশ পেয়েছে ব্ল্যাকবেরি। উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমেও ম্যালওয়্যার ছড়িয়েছে তারা।

বলা হচ্ছে, শুরুতে বিভিন্ন ভিডিও গেম সংস্থার থেকে চুরি করা সার্টিফিকেট নিয়ে ম্যালওয়্যার ছড়ানো হত, বর্তমানে অ্যাডওয়্যার ভেন্ডরদের সার্টিফিকেট চুরি করে ম্যালওয়্যার ছড়ানো হচ্ছে। ম্যালওয়্যার ছড়ানো হচ্ছে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসেও।

বিশ্বকাপজয়ী ইংল্যান্ডের ফুটবলার হান্টার করোনায় আক্রান্ত

স্পোর্টস ডেস্ক : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ইংল্যান্ডের সাবেক ডিফেন্ডার নরম্যান হান্টার। তার সাবেক ক্লাব লিডস ইউনাইটেড এই খবর নিশ্চিত করেছে। ইল্যান্ড রোডে ১৫ বছরের ক্যারিয়ারে ৭৬ বছর বয়সী হান্টার ৭২৬টি ম্যাচ খেলেছেন।

দুটি লিগ শিরোপা জয়ের পাশাপাশি খেলেন ১৯৭৫ সালের ইউরোপিয়ান কাপের ফাইনালে, যেখানে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে হেরেছিল তার দল। জাতীয় দলের হয়ে ২৮টি ম্যাচে মাঠে নামা এই ফুটবলার ১৯৬৬ সালে বিশ্বকাপ জেতেন।- ডেইলি মিরর
লিডসের পক্ষ থেকে নরম্যানের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে, ‘লড়তে থাক নরম্যান। আমরা সবাই তোমার পাশে আছি।

ভৈরবে পুলিশ কর্মকর্তা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত

ডেস্ক রিপাের্ট : কিশোরগঞ্জের ভৈরব থানার এক পুলিশ কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাকে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার সকালে এ খবর পাওয়ার পর থানার কর্মকর্তাসহ ১৯ পুলিশ ও ৫ চিকিৎসককে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভৈরব থেকে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে ৫ ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকার আইইডিসিআরে পাঠানো হয়েছিল। তার মধ্যে ৪ জনের নেগেটিভ আসলেও ওই পুলিশ সদস্যের পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এই ঘটনায় ভৈরবের মানুষের মধ্য আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

ভৈরব থানা বা তার আশপাশের এলাকায় লকডাউন না করলেও লোকসমাগম কঠোরভাবে সীমিত করা হয়েছে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

এর আগে উপজেলা প্রশাসন উপজেলা এলাকায় সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত জরুরি দোকানপাট খোলা থাকার এ নির্দেশনা দেন। দুপুরের পর শহর ও গ্রাম এলাকা কার্যত লকডাউন রয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানা জানান, শুক্রবার সকালে রিপোর্ট পায় ভৈরবে এক পুলিশ কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ কারণে ১৯ পুলিশ ও ৫ চিকিৎসককে আজ হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানান, ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে ঢাকায় কুর্মিটোলা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। থানা ও আশেপাশের এলাকা লকডাউন করা হবে কি না বিষয়টি জেলা প্রশাসক ও এসপি সিদ্ধান্ত দেবেন।

তিনি বলেন, ভৈরব শহর এলাকায় কঠোরভাবে লোকসমাগম সীমিত করার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

২৫ এপ্রিল পর্যন্ত পোশাক কারখানাও বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনাভাইরাসে সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারের ঘোষিত সাধারণ ছুটির মেয়াদ আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বৃদ্ধি হওয়ায় দেশের সব তৈরি পোশাক কারাখানাও এই তারিখ পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

শুক্রবার সব কারখানার মালিকদের কাছে এ ব্যাপারে একটি চিঠি দিয়েছে তৈরি পোশাক খাতের সংগঠন বিজিএমএইএ এবং বিকেএমইএ।

বিষয়টি জানিয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সাধারণ ছুটির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএ’র সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলো আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তবে এ সময়ের মধ্যে বেতন দেয়ার জন্য কোনো প্রতিষ্ঠানের অফিস খোলা রাখার প্রয়োজন হলে সেক্ষেত্রে নিজ নিজ অ্যাসোসিয়েশন (বিজিএমইএ/বিকেএমইএ) এবং শিল্প পুলিশকে অবহিত করতে হবে বলে গার্মেন্টস মালিকদের কাছে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে।

রিজভী বললেন- সরকারের অবহেলায় স্বাস্থ্য খাতে চরম সংকট বিরাজ করছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের অবহেলায় স্বাস্থ্য খাতে চরম সংকট বিরাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

শুক্রবার বেলা ১১টায় রাজধানীর হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক ও নার্সদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) প্রদানকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন (জেডআরএফ) ও ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) উদ্যোগে পিপিই সরঞ্জাম প্রদান করা হচ্ছে।

করোনাভাইরাস সংকট থেকে দেশের মানুষ যাতে দ্রুত বেরিয়ে আসতে পারে, সে জন্য নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সংগঠন দুটি।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আজ এ কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রিজভী।
এ সময় তিনি বলেন, সমস্ত দেশবাসী এখন বৈশ্বিক মহামারী করোনার ভয়ে ভীত এবং মারাত্মক সংকটের মধ্যে রয়েছে। পরীক্ষিতদের মধ্যে করোনা রোগী শনাক্তকরণের হার প্রতিদিনই আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে। ঢাকাসহ সারা দেশের ২০ জেলায় এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের থাবা লক্ষ্য করা গেছে। এই সংকট মোকাবেলায় আমাদের জাতীয় ঐক্য দরকার।

রিজভী বলেন, গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী– গত ২৪ ঘণ্টায় (বৃহস্পতিবার) দেশের ১০ জেলায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন কমপক্ষে ১৫ জন। এমন হিসাব প্রায় প্রতিদিনের। সত্যিকারার্থে জনস্বাস্থ্য নিয়ে এ সরকার কিছুই করেনি। সরকারের মন্ত্রীদের মুখে দেশে উন্নয়নের জোয়ারের খবরে এতদিন দেশ ভেসে গেছে! তা হলে স্বাস্থ্য খাতের এত বেহাল দশা কেন? হাসপাতালে নেই কোনো আধুনিক সরঞ্জামাদি।

‘পরীক্ষা করতে নেই সামগ্রী, রোগ ডায়ালাইসিসের কোনো ব্যবস্থা নেই, তেমন কোনো আইসিইউ নেই, ১৭ কোটি মানুষের জন্য ভেন্টিলেটর আছে মাত্র ১৭০০। হাসপাতালে চিকিৎসক নেই, নার্স নেই। হাসপাতালে ঘুরতে ঘুরতে চিকিৎসা না পেয়ে মারা গেছে ঢাবি শিক্ষার্থীসহ অসংখ্য মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে মানুষের বর্তমানে বেঁচে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে।’

বিএনপির এ নেতা আরও বলেন, যখন থেকে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছে, সরকার তখন থেকেই কোনো পদক্ষেপ নেয়নি বলেই মেডিকেল সেক্টরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধর কোনো ব্যবস্থা নিতে পারছে না। সরকারের অবহেলার কারণেই স্বাস্থ্য খাতে চরম সংকট বিরাজ করছে। এই সংকটের মধ্যেও অনেক চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মী নিবেদিতভাবে কাজ করছেন। তাদের ধন্যবাদ জানাই। যার যার অবস্থানে থেকে সবাইকে সচেতনভাবে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

রিজভী বলেন, আমাদের এই দরিদ্র দেশে এ মুহূর্তে দৈনিক আয়ের ওপর নির্ভরশীল কোটি কোটি মানুষ এখন কর্মহীন। চাল-ডাল জোগাড় করতে তারা যদি সামাজিক দূরত্বের দেয়াল ভেঙে বেরিয়ে আসেন, সংক্রমণ প্রতিরোধ তখন অসম্ভব হয়ে পড়বে। কারণ ক্ষুধার আক্রমণ করোনার চেয়েও ভয়ঙ্কর। তাই রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে ওই সব জনগোষ্ঠীর জন্য আপদকালীন সহযোগিতাই পারে করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে। এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যে বিএনপি বেশ কিছু প্রস্তাবনা জাতির সামনে পেশ করেছে।

অনুষ্ঠানের আয়োজকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনাদের ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও দেশনায়ক তারেক রহমান প্রবাসে। কিন্তু ইতিমধ্যেই তিনি আপনাদের এবং সর্বস্তরের দলীয় নেতাকর্মীদের এই মহামারী মোকাবেলায় ঝাঁপিয়ে পড়তে নির্দেশ দিয়েছেন। আজকে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন এবং ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) যৌথভাবে তার ডাকে সাড়া দিয়ে হটলাইনের মাধ্যমে চিকিৎসা পরামর্শ দিতে শুরু করেছেন। আপনাদের নির্বাহী পরিচালক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার এ মুহূর্তে অসুস্থ। এ অবস্থায়ও বাকি সহকর্মীরা মিলে বর্তমানে চলমান কর্মসূচিকে আপনারা বর্ধিত আকারে বেগবান করে যাচ্ছেন।

‘বিএনপি তথা মহামারী আক্রান্ত জাতির পক্ষ থেকে আপনাদের কৃতজ্ঞতা জানাই এবং আপনাদের সফলতা কামনা করি। সবাইকে এই মহামারী মোকাবেলায় ঐক্যবদ্ধভাবে সহযোগিতা করার জন্য উদাত্ত আহ্বান জানাই।’

এ সময় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কারামুক্তিতে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জানিয়ে তার আশু রোগমুক্তি কামনা করেন রিজভী।

ঈদুল ফিতরের আগে খুলছে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

ডেস্ক রিপাের্ট : বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস মোকাবেলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি আরও দীর্ঘায়িত হচ্ছে। সূত্র জানিয়েছে, রোজার ছুটির সঙ্গে বর্তমানের ছুটি মিলিয়ে ঈদের পর সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার চিন্তাভাবনা করছে সরকার।

অর্থাৎ করোনার প্রকোপে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আগামী ৩০ মে পর্যন্ত দীর্ঘায়িত হতে যাচ্ছে।

এ অবস্থায় শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় ক্ষতি পুষিয়ে নিতে নানা ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা অব্যাহত রাখতে টেলিভিশনে পাঠদানের ব্যবস্থা করেছে সরকার।

এ ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, আমাদের এখনকার অগ্রাধিকার হচ্ছে বিদ্যমান পরিস্থিতি থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা। এরপর পরিস্থিতির উন্নতি হলে ক্ষয়ক্ষতি পর্যালোচনা করে পরবর্তী কর্মসূচি নির্ধারণ করা হবে।

দেশে কোভিড-১৯ রোগের প্রকোপ বাড়তে থাকায় অফিস-আদালত ও চলাচল বন্ধ রেখে ঘরে থাকার মেয়াদ আরেক দফায় বাড়ানো হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মকর্তা শুক্রবার দুপুরে বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে সাধারণ ছুটি বাড়ানো হচ্ছে, প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে এ সংক্রান্ত ফাইল অনুমোদন হয়ে এলেই আদেশ জারি করবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এর আগে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার ১৭ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়। ১ এপ্রিল থেকে শুরু হতে যাওয়া এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষাও স্থগিত করা হয়।

অফিস-আদালত বন্ধ ঘোষণার পর সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটির মেয়াদ ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়। এদিকে সাধারণ ছুটি আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এ নিয়ে চতুর্থবারের মতো সাধারণ ছুটির মেয়াদ বাড়ল।

অবশ্য এখনো এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জানি করা হয়নি। মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটির মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।

কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলায় প্রথম দফায় ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি দেয়া হয়েছিল। এরপর ছুটি বাড়িয়ে তা ১১ এপ্রিল করা হয়।

ছুটি তৃতীয় দফা বাড়িয়ে করা হয় ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত। পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত চতুর্থ দফা ছুটি বাড়ানো হয়েছে।

দেশে কোভিড-১৯ রোগ শনাক্তের পরীক্ষা বাড়ছে, বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যাও। এই পরিস্থিতিতে সরকার ছুটি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গত ১৮ মার্চ করোনায় প্রথম মৃত্যুর পর নড়েচড়ে বসে সরকার।

বাতিল হয়েছে পহেলা বৈশাখের সরকারি আয়োজনও। এদিকে এক দিনে আরও ছয়জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে নভেল করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৭ জন।

আর শুক্রবার বেলা আড়াইটা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ১১৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে আরও ৯৪ জনের মধ্যে ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তাতে আক্রান্তের মোট সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪২৪ জন।

গত এক দিনে নতুন করে কারও সুস্থ হওয়ার খবর আসেনি। এখন পর্যন্ত মোট ৩৩ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির এই সবশেষ তথ্য তুলে ধরেন।

বাংলাদেশ ছাড়লেন ১২৩ জন জার্মান নাগরিক

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে বিশেষ ব্যবস্থায় এবার বাংলাদেশ ছেড়েছেন ১২৩ জন জার্মানি নাগরিক। হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে শুক্রবার দুপুরে একটি বিশেষ ফ্লাইটে দেশের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করেন তারা।

বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ সোহেল গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বাংলাদেশে অবস্থানরত ১২৩ জন জার্মান নাগরিক একটি ফ্লাইটে নিজেদের দেশের উদ্দেশ্যে শুক্রবার দুপুর ১টা ৪৫ মিনিটে রওনা হয়েছেন।

এর আগে গত সোমবার রাশিয়ার ১৭৮ জন নাগরিক বাংলাদেশ ছাড়েন। আর গত সপ্তাহে দেশে ফেরেন ৩২৫ জন জাপানি নাগরিক। তার আগে রাষ্ট্রীয় বিশেষ ফ্লাইটে দুই দফায় ৫৯১ জন মার্কিন নাগরিক ঢাকা ছেড়েছেন।

এছাড়া এক সপ্তাহ আগে মালয়েশিয়ার ২২৫ জন এবং ভুটানের ১৩৯ জন নাগরিক নিজ দেশের ফ্লাইট ব্যবস্থাপনায় ঢাকা ছাড়েন।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে গত ১৬ মার্চ থেকে যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের সব দেশ থেকে যাত্রীদের আসা বন্ধ করে দেয় বাংলাদেশ। এরপর ২১ মার্চ থেকে ভারত, সৌদি আরব, কাতার, বাহরাইন, কুয়েত, সংযুক্ত আরব আমিরাত, তুরস্ক, মালয়েশিয়া, ওমান ও সিঙ্গাপুরের সঙ্গে উড়োজাহাজ চলাচল বন্ধ করে বাংলাদেশ সরকার। এরপরই দেশগুলোর সঙ্গে রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটও বন্ধ করা হয়।

ইন্টার মিলানে যাচ্ছেন লিওনেল,রোনালদিনহোর জামিনের অর্থও দিয়েছেন তিনি – এই ভুয়া সংবাদে ভীষণ উত্তেজিত মেসি

স্পোর্টস ডেস্ক : বার্সেলোনা ছেড়ে ইন্টার মিলানে যাচ্ছেন লিওনেল মেসি। বেশ কিছুদিন ধরে বিশ্ব ফুটবল অঙ্গণে এ গুঞ্জন ভেসে বেড়াচ্ছে। চাউর হয়েছে, করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউনের মধ্যেই ইতালিয়ান ক্লাবটির কর্তাদের সঙ্গে এ ইস্যুতে কথা বলেছেন আর্জেন্টিনার ফরোয়ার্ড।

খবর রটেছে, সাবেক ক্লাব সতীর্থ তথা ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি ফুটবলার রোনালদিনহোর জামিনের জন্য অর্থ দিয়েছেন ছোট ম্যাজিসিয়ান। তবে সব জল্পনা ও দাবি সরাসরি উড়িয়ে দিয়েছেন খোদ আর্জেন্টাইন সুপারস্টার নিজেই।

এক টুইটবার্তা ঘিরে গুজবের সূত্রপাত। তাতে এক সংস্থা দাবি করে, বার্সার সঙ্গে মেসির দীর্ঘদিনের মধুর সম্পর্কের বিচ্ছেদ ঘটতে যাচ্ছে। কাতালানদের ছেড়ে সিরি আ লিগের ক্লাব ইন্টার মিলানে যোগ দিচ্ছেন তিনি।

একই টুইটবার্তায় দাবি করা হয়, বার্সার সাবেক সতীর্থ ও সেলেকাও তারকা রোনালদিনহোকে কারামুক্ত করতে বিপুল টাকা দিয়েছেন মেসি। প্রিয় স্প্যানিশ ক্লাবটিতে একসঙ্গে খেলাকালীন দুই ফুটবল মহারথীর মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে এবং তা ধীরে ধীরে নিবিড় হয়। সেই জায়গা থেকেই ২০০২ বিশ্বকাপজয়ী ব্রাজিলের অন্যতম সদস্য রনিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন ফুটবল জাদুকর।- মার্কা

দুই সংবাদে আলোচনার ঢেউ ওঠে ফুটবল দুনিয়ায়। আলোড়ন পড়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়াতেও। তবে দুটিই তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়েছেন মেসি। প্রথমত, বার্সা ছেড়ে ইন্টারে পাড়ি জমানোর যে রটনার উদয় হয়েছে, তা স্রেফ উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। সাফ জানিয়েছেন, বিষয়টি পুরোপুরি ভুয়া ও মিথ্যা।

এ খবর বিশ্বাস না করার জন্য ভক্ত-সমর্থকদের ধন্যবাদও দিয়েয়েছেন এলএমটেন। রোনালদিনহোকে সাহায্য করার বিষয়টিও প্রত্যাখ্যান করেছেন মেসি। উল্লেখ্য, গেল মাসের শুরুতে নকল পাসপোর্টসহ প্যারাগুয়েতে গ্রেফতার হন রোনালদিনহো। সদ্য তাকে জেল থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। তবে ঘরবন্দি (হাউস অ্যারেস্ট) রয়েছেন তিনি। প্রশাসনের অনুমতি ব্যতীত কোথাও বেরোতে পারবেন না সাম্বা তারকা ও তার ভাই রবার্তো আসিস। তথ্যসূত্র: গোল ডটকম

জার্মান লিগের ক্লাবগুলো করোনা মোকাবেলায় এগিয়ে এলো

স্পোর্টস ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় এবার ভিন্ন উপায়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলো জার্মান ফুটবল বুন্দেস লিগার ক্লাবগুলো। সেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচিসহ স্বাস্থকর্মীদের মাঝে পানীয় বিতরণ করেছেন ফুটবলাররা। এছাড়াও বয়স্ক ভক্তদের জন্য আলাদা উদ্যোগ ছিলো তাদের। করনোভাইরাস নিয়ে সচেতনতা তৈরিতে কাজ শুরু করেছে কলম্বিয়া ফুটবল ফেডারেশন।
করোনাভাইরাস মোকাবেলায় অর্থ সহায়তা দিয়ে শুরু থেকেই দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়েছে জার্মান বুন্দেস লিগার ক্লাবগুলো। এবার ভিন্ন উপায়ে তারা বাড়িয়ে দিলো সাহায্যের হাত। যেটা নিশ্চিত ভাবেই অনুকরণীয় হতে পারে অন্যদের কাছে। -ফ্রাঙ্কফুর্ট অলজিমিন

জার্মান লিগার টপ টায়ারের ক্লাব লেইপজিগের ফুটবলাররা শুরু করেছেন রক্তদান কর্মসূচি। এক্ষেত্রে শালকে গোলকিপার মার্কাস স্কুবার্টের ভূমিকাটা অন্যরকম। নিজ হাতে কেক তৈরি করে তিনি পৌঁছে দিচ্ছেন সমর্থকদের ঘরে ঘরে। আর অগসবুর্গের ফুটবলাররা হেলথ ওয়ার্কারদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন স্বাস্থ্যকর পানীয়। -বার্লিন নিউজ

করোনাভাইরাস ভয়াল ছোবল দিয়েছে ল্যাতিন আমেরিকার দেশ কলম্বিয়াতেও। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১৮’শ। মারা গেছেন ৫০ জন। পরিস্থিতি মোকাবিলায় নানা রকম উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। একাত্মটা ঘোষণা করে পাশে দাঁড়িয়েছে কলম্বিয়ান ফুটবল ফেডারেশন।
এক ভিডিও বার্তায় দেশবাসীকে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় দলের হেড কোচ কার্লোস কুইরোজ। এছাড়াও নাগরিকদের সচেতনতা বৃদ্ধি করতে নানা রকম পোস্ট শেয়ার করেছেন হামেস রদ্রিগেজ, রাদামেল ফ্যালকাও, ইয়েরি মিনা ও ডেভিড ওসপিনারা। – ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস