১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

adv

সূচকের সঙ্গে কমেছে লেনদেনও

ডেস্ক রিপাের্ট : সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে বৃহস্পতিবার পতনে শেষ হয়েছে পুঁজিবাজারের লেনদেন। এদিন উভয় পুঁজিবাজারের প্রধান প্রধান মূল্যসূচক কমেছে। একই সঙ্গে কমেছে টাকার পরিমাণে লেনদেনও। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই ও সিএসই) বাজার পর্যালোচনায় এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩১১টি কোম্পানির মধ্যে ১২৭টি বা ৪০.৮৪ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ১৪১টি বা ৪৫.৩৪ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৩টি বা ১৩.৮৩ শতাংশ কোম্পানির।

দিনশেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ০.৯৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫২৪৪ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ৪.১৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৮৫৬ পয়েন্টে। তবে শরিয়াহ সূচক ১.৩১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২০৮ পয়েন্টে।

আজ ডিএসইতে ৫৫৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিন থেকে ৭৬ কোটি টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৩১ কোটি টাকার।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে খুলনা পাওয়ারের। এ দিন কোম্পানির ৪০ কোটি ১৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইউনাইটেড পাওয়ারের ৩৪ কোটি ৬০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে এবং ২২ কোটি ৭৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে এসকে ট্রিমস।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- ইনটেক, সায়হাম কটন, ইফাদ অটোস, সিলভা ফার্মা, ওয়াটা কেমিক্যাল, শেফার্ড এবং বিবিএস কেবলস।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৫৫ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২২৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১০১টির, কমেছে ১০৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির দর। সিএসইতে আজ মোট ২২ কোটি ৬৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
আর্কাইভ
ডিসেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« নভেম্বর    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া