১৯শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং | ৬ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

উপজেলা নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে: সিইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক : নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে।স্থানীয় সরকার নির্বাচন এবারই প্রথম রাজনৈতিক মনোনয়নে হবার কথা।এর আগে কখনো হয়নি। এদেশে স্থানীয় সরকার নির্বাচন সারা জীবন যেরকম প্রতিযোগিতামূলক হয়েছে, এবছরও তেমনিভাবে প্রতিযোগিতামূলক হবে। বললেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

মঙ্গলবার আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে উপজেলা পরিষদের রিটার্নিং ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।
কর্মকর্তাদের উদ্দেশে সিইসি বলেন, নির্বাচনে আপনারা দেখেছেন ভোটার সারিবদ্ধভাবে উৎসবমুখর পরিবেশে, আনন্দঘন পরিবেশে, নির্বাচন কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার জন্য উপস্থিত থাকেন। এটা আমাদের দেশের একটা বৈশিষ্ট্য। সেই নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্ব আপনাদের হাতে। সেই দিক দিয়ে কিন্তু আপনাদের আদালাভাবে আনন্দ এবং গুরুত্ব বহন করার কথা।

তিনি বলেন, বিগত দিনে অনেক সময় নির্বাচন পরিচালনা করতে গিয়ে অনেকের জীবন হানি ঘটেছে, অনেকে হয়তো বা আহত হয়েছে এরকম কিন্তু ঘটনা ঘটেছে। রিটার্নিং কর্মকর্তাদের এগুলো সতর্কতার সঙ্গে দেখতে হবে। নির্বাচনকে ঘিরে যেনো প্রাণহানি না ঘটে।কোনো সাংঘর্ষিক ঘটনা আপনারা ব্যক্তিগত উদ্যোগে হলেও মীমাংসা করার চেষ্টা করবেন। কোনো প্রাণহানি যেন না ঘটে, হতাহত না হয়। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক। একটা জীবন অত্যন্ত মূল্যবান। একটা জীবন একটা নির্বাচন দিয়ে প্রতিস্থাপন করা যায় না। স্থানীয় সরকার নির্বাচন যেহেতু প্রতিযোগিতামূলক হয়।

নূরুল হুদা বলেন, আমি আপনাদের চোখে মুখের দিকে তাকিয়ে দেখতে পাই আপনাদের তারুণ্য আছে, উৎসাহ আছে, উদ্যম আছে, আপনাদের মাঝে কাজ করার স্পৃহা আছে। সেটাকে আমি অত্যন্ত মূল্যায়ন করি এবং গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করি। সে জায়গায় আপনারা ব্যর্থ হবেন আমি বিশ্বাস করি না।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, নির্বাচন কমিশনই কেবলমাত্র একত্রে সব ধরনের প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তাদের নির্বাচনের দায়িত্ব পালন করে থাকে। আর অন্য কোনো দপ্তর এভাবে সকলের একত্রে কাজ করার সুযোগ নেই। কিন্তু আমরা মনে করি যে সেই প্রচেষ্টা এবং প্রয়াস সার্থক হয়েছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার আরও বলেন, যারা কাজ করেন তাদের প্রতি আমি সবসময় আস্থাশীল। কাজ করতে গিয়ে হয়তো ভুলভ্রান্তি হতে পারে অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি না যে, দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠ থেকে ডিগ্রিধারী একটা লোক এদেশে যারা জীবন শুরু করেছে প্রথম শ্রেণির নাগরিক হিসেবে, যাদের মধ্যে অনেকেই বিচারকি দায়িত্ব পালন করেছেন। অনেকেই নির্বাচনের মতো স্পর্শকাতর নির্বাচন পরিচালনার সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত রয়েছেন। তাদের হাতে নির্বাচন কখনো প্রশ্নবিদ্ধ হতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, এদেশের মানুষ অন্যান্য মানুষের চেয়ে বেশি নির্বাচনমুখী। ভোটমুখী। সেই উৎসব তাদের মধ্যে আছে। সে কারণে তারা ভোট দেন। সুতরাং সেই মালিকের মালিকানা যাতে তাদের ভোটের মাধ্যমে প্রয়োগ করতে পারেন। সেই ব্যাপারে আপনারা অবশ্যই সচেতন থাকবেন। সে ব্যাপারে কার্যকর ভূমিকা পালন করবেন।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
এপ্রিল ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« মার্চ    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া