১৬ই জুন, ২০১৯ ইং | ২রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

র‌্যাংকিংয়ে হাজারের মধ্যেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নেই কেন? সেটা আজ জাতির কাছে বড় প্রশ্ন-ড.মঈন খান

ডেস্ক রিপাের্ট : সম্প্রতি লন্ডনভিত্তিক টাইমস হায়ার এডুকেশন পরিচালিত র‍্যাঙ্কিং তালিকায় এশিয়ার ৪১৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে প্রচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্থান করে নিতে না পারায় প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান। তিনি বলেন, ‘প্রাচ্যের অক্সফোর্ড হিসেবে যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে একসময় আমরা গর্ব করতাম, যে বিশ্ববিদ্যালয়কে বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থার দর্পণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়, তার নাম এশিয়ার ৪১৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকাতেও নেই। বৈশ্বিক র‌্যাংকিংয়ে হাজারের মধ্যেও নেই কেন? সেটা আজ জাতির কাছে বড় প্রশ্ন।’

রবিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ নেতা এসব কথা বলেন।

র‍্যাঙ্কিংয়ে বিভিন্ন দেশের অবস্থান তুলে ধরে আবদুল মঈন খান বলেন, র‍্যাঙ্কিংয়ে সার্বিকভাবে চীনের ৭২টি, ভারতের ৪৯টি, তাইওয়ানের ৩২টি, পাকিস্তানের ৯টি এবং হংকংয়ের ৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম আছে। তালিকায় নেপাল ও শ্রীলঙ্কার বিশ্ববিদ্যালয়ও আছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বাংলাদেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয় এই তালিকায় স্থান পায়নি।

জরিপ করার সময় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পাঠদান, গবেষণা, জ্ঞান আদান-প্রদান এবং আন্তর্জাতিক দৃষ্টিভঙ্গি- এই চারটি বিষয়কে প্রাধান্য দিয়েছে টাইমস হায়ার এডুকেশন। পাঠদানের বিষয়ে আবদুল মঈন খান বলেন, কোর্স কারিকুলাম বা সিলেবাসসমূহ অনেক ডিপার্টমেন্টেই উন্নত বিশ্বের নামীদামি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে হালনাগাদ করা হয় না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে উন্নত বিশ্বের দেশগুলো থেকে ছাপা হওয়া নামী প্রকাশকের পাঠ্যবইয়ের বদলে অখ্যাত ভারতীয় বা অনুন্নত বিভিন্ন দেশের প্রকাশকের পাঠ্যবইগুলো বেছে নেওয়া হয় ক্লাসরুমে পাঠদানের জন্য। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে রাজনৈতিক প্রভাব আজ চরম আকার ধারণ করেছে। শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে মেধাকে মূল্যায়ন না করে নিছক দলীয় রাজনৈতিক কর্মী অর্থাৎ ‘ছাত্রলীগের কর্মীকে’ নিয়োগ প্রদানের মাধ্যমে ভোটার তৈরির চেষ্টা করা হয়, যাতে শিক্ষক রাজনীতিতে প্রভাব বজায় রাখা সম্ভব হয়।

গবেষণার বিষয়ে বিএনপি নেতা মঈন খান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় হওয়ার কথা শিক্ষা ও গবেষণার স্থান। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা কার্যক্রম অপ্রতুল যা আমরা সবাই জানি। গবেষণা তহবিলের অপ্রতুলতার কথাও বহুল আলোচিত। কিন্তু প্রশ্ন হলো পর্যাপ্ত তহবিল দিয়ে দিলেই কি সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে বা রাতারাতি গবেষণা কার্যক্রম বিশ্বমানে পৌঁছাতে সাহায্য করবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে? আমার মনে হয় তা না। বেশ কিছু সমস্যা রয়ে গেছে যা দীর্ঘমেয়াদি দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে সমাধান করতে হবে।

এ ছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাত কলেজের অধিভুক্তকেও একটা সমস্য হিসেবে দেখছেন ড. মঈন খান। তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাত কলেজের পরীক্ষা নেওয়া এবং খাতা দেখার মতো কাজের জন্য বাড়তি সময় দেওয়ার কারণেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা মৌলিক গবেষণায় অংশগ্রহণের জন্য পর্যাপ্ত সময় বের করতে পারেন না।

জ্ঞানের আদান-প্রদানের বিষয়ে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এবং গবেষণা সংস্থাগুলোর মধ্যে এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের আওতায় জ্ঞান আদান-প্রদানের প্রয়োজনীয়তাকে তুলে ধরেন মঈন খান। তিনি বলেন, এতে করে উন্নত বিশ্বের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গবেষণাগারে লব্ধ জ্ঞান অনুন্নত বিশ্বের গবেষকেরা সহজে জানতে পারেন এবং তার ভিত্তিতে নিজেদের পরবর্তী গবেষণা কার্যক্রম গ্রহণ করতে পারেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম মান্ধাতা আমলেই রয়ে গেছে, মূলত কাগজপত্রের আবর্তে ঘুরপাক খাচ্ছে।

আন্তর্জাতিক দৃষ্টিভঙ্গির বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে মঈন খান বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে বিদ্যালয়ের পার্থক্য তুলে ধরেন। বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে বিদ্যালয়ের পার্থক্যটাই হলো এই যে, শিক্ষা প্রদান, জ্ঞান উৎপাদন ও বিতরণের ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণ করে আর বিদ্যালয় তা গ্রহণ না-ও করতে পারে। বিদ্যালয় শুধু শিক্ষা প্রদানের মধ্যেই নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখে, মৌলিক জ্ঞান উৎপাদন ও বিতরণে নজর দেয় না।

কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্ত চিন্তাকে বিশেষভাবে উৎসাহিত করা হয় এবং মৌলিক জ্ঞান উৎপাদন ও বিতরণের ক্ষেত্রে জাতীয় বা দেশীয় সীমানা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পেরিয়ে যায়। তিনি আরও বলেন, দুঃখজনকভাবে আজ বলতে হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক দৃষ্টিভঙ্গি বিনষ্ট হয়ে গেছে।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
জুন ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« মে    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া