সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পেরে আত্মহত্যা

full_1377381150_1430143728ডেস্ক রিপোর্টঃ নওগাঁয় সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পেরে দাদন ব্যবসায়ীদের চাপের মুখে নেপাল চন্দ্র বর্মন (৪৮) নামে এক ব্যক্তি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। মহাদেবপুর উপজেলার নওহাটা পুলিশ ফাঁড়ি এলাকার ভীমপুর উত্তরপাড়া গ্রামেএ ঘটনা ঘটে।

সোমবার সকালে খবর পেয়ে আম গাছের ডালের সঙ্গে দড়িতে ঝুলন্ত নেপাল বর্মনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

নওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই নূরে আলম ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রাম প্রসাদ ভদ্র জানান, ভীমপুর উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত নগেন্দ্রনাথ বর্মনের ছেলে নেপাল চন্দ্র বর্মন (৪৮) রোববার রাতে বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি আম গাছের ডালের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। 

তারা আরো জানান, নেপাল বর্মন সংসার চালাতে গিয়ে সরস্বতীপুর এলাকার দাদন ব্যবসায়ী ও এনজিও‘র কাছে ঋণগ্রস্থ হয়ে পড়েন। সম্প্রতি দাদন ব্যবসায়ীরা তার বাড়িতে পাওনা সুদের টাকা নিতে আসলেও তিনি টাকা দিতে পারছিলেন না। এমনকি পাওনাদার দাদন ব্যবসায়ীদের ভয়ে তিনি তার বাড়িতেও থাকতে পারছিলেন না। ধারণা করা হচ্ছে, দাদন ব্যবসায়ী ও এনজিও‘র ঋণের ও সুদের টাকা দিতে না পেরে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। 

এ ব্যাপারে মহাদেবপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 
 
 

মুক্তিযোদ্ধাকে কুপিয়ে হত্যা

Naogaon_636427821ডেস্ক নিউজঃ নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার উষ্টি গ্রামে নাজিম উদ্দীন (৬০) নামে এক মুক্তিযোদ্ধাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। বুধবার সকালে খবর পেয়ে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। নিহত মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন উষ্টি গ্রামের বাসিন্দা।

এদিকে, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

পত্নীতলা থানার পরিদর্শক (ওসি) আব্দুর রফিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রাতে নাজিম উদ্দিনকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে পাশের একটি ফাঁকা জায়গায় দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে গুরুতর জখম করে। এ সময় প্রতিবেশীরা ছুটে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলেই মারা যান নাজিম উদ্দিন। ওসি জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে।

এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।


 

নওগাঁয় পৌনে ৩ কেজি সোনাসহ আটক ১

image_65756নওগাঁ: শহরের সাহাপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে সোনার চালানসহ নাসির উদ্দীন (৪৮) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে সাহাপুর মাহমুদ হোসেন কোল্ড স্টোরেজের পাশে নওগাঁ-বগুড়া সড়কে অভিযান চালিয়ে সোনার বারগুলো উদ্ধার করা হয়।আটক নাসির উদ্দীন নওগাঁ সদর উপজেলার মুক্তারপাড়া গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে।নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কফিল উদ্দীন জানান, ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই অরবিন্দ সরকার ও এএসআই মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে নওগাঁ গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একটি টিম সাহাপুর এলাকায় নওগাঁ-বগুড়া সড়কে অভিযান চালান। এ সময় সান্তাহার থেকে ছেড়ে আসা নওগাঁগামী একটি যাত্রীবাহী সিএনজিতে তল্লাশি চালালে নাসির উদ্দিনের কাছে লুকিয়ে রাখা ২২টি বার ও ছোট দুটি আলাদা সোনার টুকরা পান তারা। এ সময় নাসির উদ্দীনকে আটক করা হয়। আটক সোনার ওজন প্রায় পৌনে তিন কেজি।তিনি আরও জানান, নাসির উদ্দীন সোনার বারগুলো পলিথিনের প্যাকেটে করে কোমরে ও পায়ে মোজার মধ্যে লুকিয়ে নিয়ে ঢাকা থেকে ট্রেনযোগে সান্তাহার ও সেখান থেকে সিএনজি করে নওগাঁ আসছিলেন। নওগাঁর স্বর্ণ ব্যবসায়ী রাজুর কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য সোনার বারগুলো ঢাকা থেকে নিয়ে আসছিলেন বলে আটকের পর পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে নাসির।



এ ঘটনায় নওগাঁ সদর মডেল থানায় একটি মামলা হয়েছে বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।