টাঙ্গাইলে যুবকের পুরুষাঙ্গ কর্তন

news_img (1)ডেস্ক রিপোর্টঃ  টাঙ্গাইল  জেলার মির্জাপুরে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করলে মাসুদ রানা (২৫) নামে এক যুবকের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে এক তরুণী। 

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের সোহাগপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মাসুদের বাড়ি জামালপুর জেলা সদরের নারায়ণপুর গ্রামে। তিনি মির্জাপুর উপজেলার ধেরুকায় অবস্থিত নাসির গ্লাস ফ্যাক্টরিতে স্টোর কিপার হিসেবে কর্মরত।

জানা যায়, কুপ্রস্তাব দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে ঐ যুবকের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে ঐ তরুণী। তরুণীর বাড়ি গাইবান্ধা জেলায়। তিনি দীর্ঘদীন ধরে উপজেলার সোহাগপাড়া এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন।

স্থানীয়রা জানান, মাসুদ দীর্ঘদীন ধরে ঐ তরুণীকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। একপর্যায়ে মঙ্গলবার রাতে ওই তরুণী কৌশলে মাসুদ রানাকে ধেরুয়া এলাকার নিরিবিলি হোটেলে আসতে বলেন। কথামত মাসুদ সেখানে আসেন। পরে মাসুদ ওই তরুণীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করলে তরুণী ক্ষিপ্ত হয়ে ব্লেড দিয়ে তার পুরুষাঙ্গ কেটে দেয়। পরে গুরুতর অবস্থায় মাসুদকে উদ্ধার করে কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক মোস্তাকিম বলেন, ব্লেড জাতীয় ধারালো কিছু দিয়ে পুরুষাঙ্গ কাটা হয়েছে। তবে অপারেশনের পর তার অবস্থা শঙ্কামুক্ত।

সরকারি সা’দত কলেজের সব কার্যক্রম স্থগিত

image_63057টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলে সরকারি সা’দত কলেজে ভাঙচুর করেছেন কতিপয় ছাত্ররা। এ সময় তারা কলেজের অভ্যন্তরীণ পরীক্ষার হলে ঢুকে পরীক্ষার্থীদের বের করে খাতা ও প্রশ্নপত্র ছিঁড়ে ফেলেছেন। এ প্রতিবাদে শিক্ষকরা কলেজের সব পরীক্ষা ও অনার্স প্রথম বর্ষের ভর্তি বন্ধসহ সব কার্যক্রম স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

মঙ্গলবার এ ঘটনা ঘটেছে।



সা’দত কলেজের অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মিয়া জানান, কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের ৪র্থ বর্ষের ছাত্র রেজাউল করিমকে গত বৃহস্পতিবার শহরের মেজর জেনারেল মাহমুদুল হাসান মার্কেটের সামনে থেকে হেরোইনসহ আটক করে পুলিশ। খবর পেয়ে তাকে ছাড়িয়ে না নেয়ায় নামধারী একদল ছাত্র অধ্যক্ষের বাসভবনে মামলা চালিয়ে ব্যপক ভাঙচুর করেন।



শনিবার দুপুরে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের অভ্যন্তরীণ পরীক্ষা চলাকালীন একদল বহিরাগত ছাত্র পরীক্ষার হলে ঢুকে পরীক্ষার্থীদের বের করে দেন। এসময় তারা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে একাডেমিক ভবনে ভাঙচুর চালান। পরে ডিগ্রি পাশ কোর্সের প্রথম বর্ষের ছাত্র সোহাগ বাবুসহ আরও কয়েকজন তাদের চাহিদামত সিট বরাদ্দ দাবি করেন। তাদের এ দাবি না মানা হলে কলেজের মহিলা হোস্টেলের সুপার ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এসএম সোলায়মান কবিরকে কলেজ থেকে বের করে দেয়াসহ তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেন তারা।



এর প্রতিবাদে শিক্ষকরা ক্যাম্পাসে তাৎক্ষণিক মৌন মিছিল বের করেন। গত সোমবার দুপুরেও এ ঘটনায় দোষীদের বিচার দাবি টাঙ্গাইল শহরের নিরালা মোড়ে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেন শিক্ষকরা।



সমাবেশে বক্তব্য দেন- সা’দত কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর রফিকুল ইসলাম মিয়া, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর আনসার আলী, বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি এসএম ওয়াহিদুজ্জামান প্রমুখ। পরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে তারা সাংবাদিক সম্মেলন করেন।



এদিকে, মঙ্গলবার আবার কলেজে হামলা চালিয়ে পরীক্ষার সব খাতা ও প্রশ্নপত্র ছিড়ে ফেলা হয়েছে। একই সময় উপাধ্যক্ষের কক্ষ, প্রধান অফিস সহকারীর কক্ষ, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ কক্ষসহ প্রায় সব বিভাগের সেমিনার কক্ষে ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয়েছে। বিশেষ করে ইতিহাস বিভাগের সব কিছু তারা ভেঙে ফেলা হয়েছে।



এর প্রতিবাদে শিক্ষকরা কলেজের সব পরীক্ষা ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।



ঘটনার পরপরই পুলিশ ও টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের নেতারা কলেজে উপস্থিত হয়ে আগামী বৃহস্পতিবার ঘটনা মীমাংসার জন্য বৈঠকে বসার প্রস্তাব দেয় শিক্ষকদের। শিক্ষকরা এতে রাজি হয়েছেন।



কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ কর্মসূচিই চলবে। যদি এর কোনো মীমাংসা না হয় তাহলে পরবর্তীতে কর্মসূচি জানানো হবে।

এ সরকার হাজারো কোটি টাকা লুট করেছে

Gnatnvy-ot20131115200821টাঙ্গাইল: মহাজোট সরকার হাজারো কোটি টাকা লুট করেছে বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্প ধারার প্রেসিডেন্ট ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী।



শুক্রবার বিকেল ৫টায় নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে কৃষক

শ্রমিক জনতা লীগ আয়োজিত ‘সখীপুর-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে ভোট ডাকাতি দিবস’ পালন উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে তিনি এ অভিযোগ করেন। 

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের গ্রেফতার ও রিমান্ডের নেওয়ার তীব্র সমালোচনা করে বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, এই রিমান্ড শেষ নয়, আরও রিমান্ড আছে। এই রিমান্ড নিয়ে যাবে সেই রিমান্ডের কাছে। 



নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আজ সারা জাতি ঐক্যবদ্ধ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ঐক্যবদ্ধ হয়ে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি আদায় করে নিতে হবে।



সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, এ সরকার বিদ্যুতের উন্নয়নের কথা বলে গর্ব করছে। অথচ, গত ৫ বছরে ১২ বার বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে। এমন নজির বিশ্বের কোনো দেশে নেই।



দেশের মানুষকে রক্ষা করতে এবং শান্তি দিতে শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে সরে দাঁড়ানোরও আহ্বান জানান তিনি। 



সমাবেশে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, জনতা ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। হাসিনার পতন এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। 



তিনি বলেন, ভোট ডাকাতি করে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীকে রাজনীতি থেকে বিতাড়িত করার অপচেষ্টা করতে চেয়েছিলেন শেখ হাসিনা। কিন্তু পারেননি। তার হাত আরও শক্তিশালী হয়েছে। 



শেখ হাসিনা তিনশ’ আসনেই ভোট চুরির নীল নকশা তৈরি করার পাঁয়তারা করছেন অভিযোগ করে বিএনপি নেতা বলেন, এই চক্রান্ত দেশের জনগণ কখনোই মেনে নেবে না। 



কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তমের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর আহমেদ, বিকল্প ধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান প্রমুখ। 



উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালের ১৫ নভেম্বর টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ‘ভোট ডাকাতি’র প্রতিবাদে প্রতি বছর দিবসটি পালন করে আসছে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ।