adv
২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সাংবাদিক শফিক রেহমানসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

ডেস্ক রিপোর্ট: গত বৃহস্পতিবার রায় ঘোষণার পর এই ৫ আসামি পলাতক থাকায় বিচারক প্রত্যেকের বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা জারি করে গ্রেপ্তারে পরোয়ানা জারি করেন।
শুক্রবার আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁশলি আব্দুর রহমান খান কাজল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আসামিরা রায় ঘোষণার সময় পলাতক থাকায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাসহ সাজা পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। নিউজ২৪
এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে এবং তার তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ ও হত্যাচেষ্টার মামলায় সাংবাদিক শফিক রেহমান, আমার দেশ পত্রিকার সাবেক ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানসহ পাঁচজনকে সাত বছরের কারাদ- দিয়েছেন আদালত।
বৃহস্পতিবার ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূরের আদালত এ রায় দেন। আরটিভি
কারাদ-প্রাপ্ত অন্য আসামিরা হলেন- জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার (জাসাস) সাবেক সহ সভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ মামুন, তার ছেলে রিজভী আহাম্মেদ ওরফে সিজার এবং যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান ভূঁইয়া। আসামিরা পলাতক থাকায় আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন।
সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ ও হত্যাচেষ্টা ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক ফজলুর রহমান ২০১৫ সালের ৩ আগস্ট পল্টন থানায় মামলা করেন। আসামিদের বিরুদ্ধে দ-বিধির ৩০৭ ও ১২০(বি) ধারায় অভিযোগ আনা হয়।
মামলায় বলা হয়েছে, ২০১১ সালের সেপ্টেম্বরের আগে যেকোনো সময় থেকে এ পর্যন্ত (২০১৫ সালের ৩ আগস্ট) জাসাসের সহ সভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ মামুনসহ বিএনপি ও দলটির নেতৃত্বাধীন জোটভুক্ত অন্য দলগুলোর উচ্চ পর্যায়ের নেতারা রাজধানীর পল্টনের জাসাস কার্যালয়ে, আমেরিকার নিউ ইয়র্ক শহরে এবং যুক্তরাজ্য ও বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় আসামিদের যোগসাজশে একত্র হয়ে জয়কে আমেরিকায় হত্যার ষড়যন্ত্র করেন। অর্থায়ন ও পরামর্শদাতা হিসেবে অভিযোগ আনা হয় মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে।
২০১৮ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি শফিক রেহমানসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া