adv
৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সংসদে প্রধানমন্ত্রীর পাশেই বসতেন তিনি

ডেস্ক রিপাের্ট : বিগত তিনটি সংসদে প্রধানমন্ত্রীর পাশেই বসতেন তিনি। নবম ও দশম সংসদে দায়িত্ব পালন করছেন উপনেতা হিসেবে। শারীরিক অসুস্থতার কারণে একাদশ জাতীয় সংসদে কিছুটা অনিশ্চয়তা তৈরি হয়। তবে দিনশেষে প্রধানমন্ত্রী আস্থা রাখেন সৈয়দ সাজেদা চৌধুরীর ওপরই। অথচ আওয়ামী লীগের আস্থাভাজন এই মানুষটিকে শুধু জাতীয় সংসদে নয় রাজনৈতিক মাঠেও আর কেউ কোনোদিন পাশে পাবে না।

গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে ৯ সেপ্টেম্বর রাতে প্রবীণ এই রাজনীতিবিদকে ভর্তি করা হয় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে। সেখানেই রোববার রাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুর সংবাদ পাওয়ার পরই হাসপাতালে ছুটে যান তার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সহকর্মীরা।

আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠার ৭ বছর পর থেকেই দলটির সঙ্গে যুক্ত হন সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। তারপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। ১৯৬৯ থেকে ৭৫ সময়ে বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। পঁচাত্তর পরবর্তী কঠিন সময়ে দলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন ৭১ এর এই বীরসেনানী।

১৯৮৬ সালে দল তাকে পূর্ণ সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়। ছয় বছর সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন শেষে ৯২ সালে তাকে দেয়া হয় দলের প্রেসিডিয়াম সদস্যের মর্যাদা। পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়কেরও গুরু দায়িত্বও পালন করেন বঙ্গবন্ধুর এ ঘনিষ্ঠ সহচর।

তিন ছেলে ও এক মেয়ের জননী সাজেদা চৌধুরী ফরিদপুর-২ আসন থেকে একাধিবার জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। ২০০০ সালে আমিরিকান বায়োগ্রাফিকাল ইনস্টিটিউট কতৃক ওমেন অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হন তিনি। ২০১০ সালে সর্বোচ্চ স্বাধীনতা পুরষ্কারেও ভূষিত করা হয় তাকে।- যমুনাটিভি

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
September 2022
M T W T F S S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া