adv
৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পোল্ট্রি শিল্প বেকায়দায় – মুরগিও ডিমের বাজার অস্থির

ডেস্ক রিপাের্ট : পোল্ট্রি শিল্পে বাড়ছে অস্থিরতা। সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম বেড়েছে অন্তত ৩৫ টাকা! আর প্রতি পিস ডিমের জন্যে বাড়তি আড়াই টাকা গুনতে হচ্ছে ক্রেতাদের। দোকানীরা জানিয়েছেন, আগের চেয়ে ডিম বিক্রি কমতে শুরু করেছে। খামারীরা বলছেন, ওষুধ ও পোল্ট্রি ফিডের দাম বেড়েই চলছে। এর সাথে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রভাবে পরিবহন ব্যয়ও বেড়েছে। আর লোডশেডিং এর সময় জেনারেটর ব্যবহারের জন্যে উৎপাদন খরচ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারছেন না।

বাজার এখন অস্বস্তিকর জায়গায় পরিণত হয়েছে। নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধিতে নাকাল দেশের সাধারণ মানুষ। সস্তায় মাংসের স্বাদ পেতে, বেশিরভাগ নিম্ন আয়ের মানুষ ব্রয়লার মুরগি কিনে থাকেন। সেখানেও বাড়তে শুরু করছে দাম। সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজিতে বেড়েছে অন্তত ৩৫ টাকা।

জানা গেছে, রাজধানীতে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২০০-২১০ টাকা। সোনালী জাতের দাম ৩১০ টাকা আর লেয়ারের দাম উঠেছে কেজিতে ২৮০ টাকা। ৫০০ টাকার কমে মিলছে না এক কেজি দেশি মুরগী। খুচরা ব্যবসায়ীরা বলছেন, জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধিতে পরিবহনের ভাড়া বেড়েছে। এতে দাম আরও বেড়েছে।

একজন বিক্রেতা বললেন, ব্রয়লার মুরগি ২০০ টাকা কেজিতে বেঁচছি। পাকিস্তানি মুরগি ২৮০ টাকা কেজিতে। গাড়িভাড়া বেশি, খাদ্যের দাম বেশি আবার তেলের দামও বেড়েছে।

ডিমের বাজারে অস্থিরতা চলছে। সপ্তাহের ব্যবধানে হালিতে দাম বেড়েছে ১০ টাকা। এক হালি ফার্মের মুরগির ডিমের দাম উঠেছে ৫০ টাকা। প্রতি হালি হাঁসের ডিম ও দেশি মুরগীর ডিমের দাম ৬০ টাকা। কোয়েল পাখির দাম হালিতে ১০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকায়। খুচরা বিক্রেতারা বলছেন, আগের তুলনায় বিক্রি কমেছে ডিমের।

পোল্ট্রি ফিড ও ওষুধের দাম বাড়ার প্রভাব পড়েছে, ডিমের মোকামে। ডিম ব্যবসায়ীরা বলছেন, একটা ডিম উৎপাদনে খরচ হয় ৯ টাকা। আর লোডশেডিং বাড়ায় বেড়েছে খামারিদের ব্যয়।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া