adv
২৮শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আওয়ামী লীগ থেকে দূষিত রক্ত বের করে দিতে হবে – বললেন ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, চট্টগ্রাম মহানগর ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের আয়োজন করুন। পাহাড়ে সম্মেলন হচ্ছে, চট্টগ্রামেও সম্মেলনের আয়োজন করতে হবে। আওয়ামী লীগ থেকে দূষিত রক্ত বের করতে হবে। দুঃসময়ের কর্মীদের কাছে টানতে হবে।

বুধবার (২৫ মে) সকালে চট্টগ্রাম নগরীর কাজীর দেউড়ির ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন হলে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য নবায়ন ও নতুন সদস্য সংগ্রহ অভিযান উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভার্চুয়াল বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, নিজেদের টাকায় পদ্মা সেতু করার প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। পদ্মা সেতু হওয়াতে সারাদেশের মানুষ খুশি। সেতু উদ্বোধনের তারিখ ঘোষণার পর সবখানে সাজ সাজ রব। বিএনপি নেত্রী বলেছিলেন, পদ্মা সেতু হবে না। তিনি এখনও বেঁচে আছে। আল্লাহ তার হায়াত দান করুক। তিনি নিশ্চয়ই শুনেছেন পদ্মা সেতু হয়ে গেছে। কাজ শেষ। শুধু উদ্বোধনের অপেক্ষা। তাই বিএনপি ও তার দোসরদের বুকে বড় জ্বালা। কারণ তাদের কোনও উন্নয়ন নেই। তাদের আছে শুধু হাওয়া ভবন এবং ৫ বার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কেলেঙ্কারি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি নেতাদের বক্তব্য শুনলে কবি কাজী নজরুল ইসলামের সেই কবিতাটি মনে পড়ে, দেখিয়া শুনিয়া ক্ষেপিয়া গিয়াছি, তাই যাহা আসে কই মুখে। বিদ্রোহী কবিতার এ কবিতাটি মনে পড়ে। কেননা বিএনপি নেতারা যাহা মুখে আসে তাহাই বলে। তাদের নেত্রী বলেছিল পদ্মা সেতু কোনদিন হবে না। পদ্মা সেতু হওয়া সম্ভব না। খালেদা জিয়া আপনাকে বলছি, আপনি শুনে রাখেন আর আপনার নেতাকর্মীদেরও শুনিয়ে দিন পদ্মা সেতু হয়ে গেছে। পদ্মা সেতু এখন শুধু উদ্বোধনের অপেক্ষায় আছে।’

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সড়ক চার লেইনের বিষয়ে জাপানের সঙ্গে কথা হয়েছে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, চট্টগ্রাম মেট্রোরেলের সমীক্ষা চলছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম ছয় লেইনের পরিকল্পনা করা হচ্ছে, সেটা বাস্তবায়ন করা হবে। তবে নেতাকর্মীরা খারাপ আচরণ করলে শেখ হাসিনার এসব উন্নয়ন ম্লান হয়ে যাবে। সবার সঙ্গে ভাল আচরণ করতে হবে। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সমস্যা আছে। মাঝে মাঝে তারা খারাপ খবরের শিরোনাম হয়। চট্টগ্রাম মহানগরে অন্তর্কলহে অনেকের প্রদীপ নিভে গেছে। এটি আমরা দেখতে চাই না। আগামী ২৩ জুন আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উৎসবমুখর পরিবেশে উদযাপন করতে হবে।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শেখ হাসিনা এতো এতো উন্নয়ন করেছেন। সবকিছু বৃথা যাবে, ম্লান হয়ে যাবে যদি না আচরণের মাধ্যমে মানুষকে খুশি করা না যায়। মানুষ যদি খুশি না হয়। তাই আমাদের আচরণের মাধ্যমে শেখ হাসিনার উন্নয়নকে তুলে ধরতে হবে। এসব উন্নয়ন দেশের জনগণের কাছে তুলে ধরতে হবে। আগামীতে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণে শক্তিশালী ও ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ গঠন করতে হবে। আওয়ামী লীগ থেকে দূষিত রক্ত দূর করে দিতে হবে।’

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ।

বিশেষ বক্তা ছিলেন, আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় সম্পাদক বেগম ফরিদুন্নাহার লাইলী, আওয়ামী লীগের অর্থ ও পরিকল্পনা সম্পাদক বেগম ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি, উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া