adv
১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে দেশে সয়াবিন তেলের দাম বেড়েছে: বললেন ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে দেশে সয়াবিন তেলের দামের ওপর প্রভাব পড়ছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার রাজধানীর সাইনবোর্ড এলাকায় নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড সড়ক ছয় লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্প পরিদর্শন শেষে এক প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

আকস্মিকভাবে সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ৩৮ টাকা বৃদ্ধির বিষয়ে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এটা আমাদের প্রতিবেশী দেশ ও অনেক দেশে ডাবলেরও বেশি হয়ে গেছে। তার কারণ হলো ইউক্রেন যুদ্ধ। ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে তেলের দামে প্রভাব পড়েছে। ফুড প্রাইস, তেল, জ্বালানি, সব কিছুর দাম সারাবিশ্বেই ঊর্ধ্বমুখী। বাংলাদেশ তো আইসোলেটেড কোনো আইল্যান্ড না। প্রভাব-প্রতিক্রিয়া সব জায়গায় পড়বে। কিছু করার নেই।’

তবে, তেলের মূল্য বৃদ্ধিতে মানুষ কষ্ট পাবে না দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শেখ হাসিনা, তিনি সত্যিকার অর্থে ক্রাইসিস ম্যানেজার। তিনি করোনা সংকটের সময়েও তার দূরদর্শিতাকে কাজে লাগিয়ে দেশকে বাঁচিয়েছেন। সংকট আসবেই। পৃথিবীতে যুদ্ধ চললে আসবেই। তবে সেটা মোকাবিলার জন্য সত্য সাহস থাকতে হবে। সেটা মোকাবিলা করার সাহস ও সততা আমাদের প্রধানমন্ত্রীর রয়েছে।’
ঈদে এবার আনন্দ হয়নি, মানুষের জন্য ঈদ ছিল কষ্টদায়ক- বিএনপি মহাসচিবের এই মন্তব্যের বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘আসল কথা কী, মানুষ যদি আনন্দ পায়, বিএনপির তখন কষ্ট লাগে। তাদের গাঁয়ে জ্বালা হয়। তারা কষ্ট পায়।’

তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে ঈদ উপভোগ করার সেই সময় চলে গেছে। এখন যে দায়িত্ব নিয়ে আছি, ঈদে মানুষের আনন্দ, হাসিমুখ দেখছি, রাস্তা থেকে টেলিফোন পাইনি রাত ২টায়, যাত্রীদের কান্না, ভোগান্তির কারণ, এমনকি এবার কোনো দুর্ভোগ ঘরমুখো মানুষের হয়নি। যে কারণে আমি খুব খুশি। ঈদ ভালো কেটেছে।’

এবারের ঈদযাত্রা স্বস্তিদায়ক হওয়ার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে কাদের বলেন, ‘স্বস্তির প্রথম কারণ হচ্ছে সড়ক। আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে সড়কের অবস্থা ভালো। হাইওয়েতে দায়িত্বপ্রাপ্ত হাইওয়ে পুলিশ, মালিক-শ্রমিক, মন্ত্রণালয়, সড়ক ও জনপদ, বিআরটিএ যার যার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করেছে। যেখানে যানজট হয়, উত্তরবঙ্গের দিকে আমাদের রোডস অ্যান্ড হাইওয়ে, তারা নতুন পরিকল্পনা করে ব্যবস্থা করেছে। ৩টি ফ্লাইওভার খুলে দেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে। তাছাড়া রাস্তাগুলো আমরা আপডেট করে রেখেছি। যে কারণে কোনো ভোগান্তি হয়নি। ছুটিও এবার লম্বা সময় ছিল। তাতে মানুষের একসঙ্গে ভিড় করার প্রয়োজন ছিল না।’

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড সম্পর্কে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘এখানে ৬ লেনের রাস্তা হবে। ৩৬৪ কোটি ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে আগামী বছরের মধ্যে আমরা কাজটা করছি। এ কাজ জনস্বার্থে। কাজেই সেনাবাহিনীসহ যাদেরই জায়গা আছে তাদের সঙ্গে আলোচনা করব।’

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড ৬ লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্পটি ৮ দশমিক ১০৫ কিলোমিটার। এর চুক্তিমূল্য ৩৬৪ কোটি ২৫ লাখ টাকা। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে শুরু হওয়া এ কাজ আগামী বছর জুনের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। ইতোমধ্যে প্রকল্পের ৪৫ ভাগ কাজ সমাপ্ত হয়েছে।

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া