adv
২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

খসড়া আইন অনুমোদন – দণ্ডিত ব্যক্তি সিইসি-ইসি হতে পারবেন

ডেস্ক রিপাের্ট : নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে শেষ পর্যন্ত আইন প্রণয়নের পথেই হাঁটছে সরকার। এ সংক্রান্ত আইনের খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রস্তাবিতৃ আইনের এই খসড়ায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন কমিশনার হওয়ার জন্য যেসব শর্ত দেওয়া হয়েছে তার একাধিক বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিশেষজ্ঞরা।

এর মধ্যে দণ্ডিত ব্যক্তিও নির্বাচন কমিশনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার বা কমিশনার পদে নিয়োগ পেতে পারবেন। আইনের প্রস্তাবিত খসড়ায় বলা হয়েছে, যদি ফৌজদারি অপরাধে কমপক্ষে দুবছর কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন তাহলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও কমিশনার হতে পারবেন না। এর অর্থ দাঁড়ায় দুই বছরের কম দণ্ডিত ব্যক্তিরও প্রধান নির্বাচন কমিশনার বা কমিশনার হতে পারবেন।

‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ আইন, ২০২২’-এর খসড়া নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদ ভবনে মন্ত্রিসভা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় সাত মাস পর সরকারপ্রধানের সরাসরি উপস্থিতিতে মন্ত্রিসভার বৈঠক ছিল এটি।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্তগুলো আনুষ্ঠানিকভাবে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। ১৯৭২ সালে প্রণীত সংবিধানে আইন প্রণয়নের কথা বলা হয়েছে। তবে সংবিধানের ১১৮(১) অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন কমিশনারদের নিয়োগ দিতে পারেন। এবার ৫০ বছর পর কোনো সরকার ইসি গঠনে আইন প্রণয়নের উদ্যোগ নিল।

খসড়া আইনের বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচনি আইন-কানুন বিশেষজ্ঞ ও সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার সোমবার বলেন, এমন একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানে দণ্ডিত অর্থাৎ অপরাধ প্রমাণিত ব্যক্তিকে নিয়োগ দেওয়ার সুযোগ রাখা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। তিনি বলেন, প্রস্তাবিত আইনে বিগত সব নির্বাচন কমিশনকে হেফাজত করা হচ্ছে। কিন্তু গত দুটি নির্বাচন কমিশন বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার বিরাট ক্ষতি করেছে।

তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠছে। এই বিষয়টিও গ্রহণযাগ্য নয়। বদিউল আলম আরও বলেন, অনুসন্ধান কমিটি কাদের বিষয়ে অনুসন্ধান করল। কাদের নাম সুপারিশ করল তাদের তালিকা প্রকাশ করতে হবে। সেই সঙ্গে সুপারিশকৃতদের বিষয়ে যে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে তাও প্রকাশ করার ব্যবস্থা রাখলে সেটার স্বচ্ছতা নিশ্চিত হবে। না হলে বিগত দুটি সার্চ কমিটির মতোই তা গ্রহণযোগ্য হবে না। – যুগান্তর

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
January 2022
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া