adv
২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গেস্ট হাউসের মেঝে ঝাড়ু দিচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী (ভিডিও)

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  কৃষকদের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার বেঁধে যায় উত্তরপ্রদেশে লখিমপুর খিরি জেলায়। রীতিমতো হিংসাত্মক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। তিনটি গাড়িতে আগুন জ্বালিয়ে দেন ক্ষুব্ধ লোকজন।

এই ঘটনা শোনার পরই প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ও কংগ্রেস নেতারা তৎক্ষণাত লখিমপুর খিরির পথে রওয়ানা দেন কিন্তু ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় পৌঁছানোর আগেই লখনৌ থেকে প্রায় ৯০ কিলোমিটার দূরে সীতাপুরে তাঁদের আটক করে পুলিশ।

সীতাপুরের একটি গেস্টহউসে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে রাখা হয়েছে। সেখানে তার অবস্থানের একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে তার টিম। প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, পুলিশের রাখা গেস্ট হাউসের মেঝে ঝাড়ু দিচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। এনডিটিভিকে তিনি বলেন, ‘ওটা আমার কক্ষ ছিল।

আমি কক্ষ পরিষ্কার রাখতে পছন্দ করি।’ তার টিমের এক সদস্য জানিয়েছেন, কক্ষটি নোংরা ছিল বলে প্রিয়াঙ্কা নিজেই তা পরিষ্কার করেন। প্রিয়াঙ্কাকে আটকের পর কংগ্রেসের কর্মীরা অতিথিশালার বাইরে বিক্ষোভ করেন। কংগ্রেসের অভিযোগ, প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ও দীপেন্দর হুদার বিরুদ্ধে বলপ্রয়োগ করেছে পুলিশ।

তাঁকে গৃহবন্দী করে রাখার ইউপি পুলিশের আদেশের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেন, “আমি বাড়ি থেকে বের হয়ে কোনও অপরাধ করছি না। শুধু ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে চাই এবং তাদের দুঃখ ভাগ করতে চাই। আমি কি ভুল করছি? যদি কিছু ভুল করে থাকি, তাহলে আপনার (ইউপি পুলিশ) গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকা উচিত। ইউপি পুলিশ আমাকে আটকে দিয়েছে, কিন্তু কোন কারণে?”, ২৪ ঘণ্টার বেশি সময় কেটে গিয়েছে। এখনও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে আটক করে রেখেছে যোগী সরকার।

ড্রোনের সাহায্যে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর উপর নজরদারি চালাচ্ছে উত্তরপ্রদেশ সরকার, এমন মারাত্মক অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেস। সীতাপুরের যে অতিথি নিবাসে প্রিয়াঙ্কাকে রাখা হয়েছে সেই অতিথি নিবাসের কাছেই আজ সকালে একটি ড্রোন উড়তে দেখা গিয়েছে বলে কংগ্রেসের দাবি। কারা ওই ড্রোন উড়িয়েছে, সে বিষয়ে পুলিশ অফিসাররা কোনও সদুত্তর দিতে পারেননি বলেও অভিযোগ কংগ্রেস নেতাদের। সূত্র: এনডিটিভি

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া