adv
২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

করােনাভাইরাসে খুলনা বিভাগে আরও ২৭ মৃত্যু

ডেস্ক রিপাের্ট : খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় প্রতিদিনই করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ বিভাগে মৃত্যু হয়েছে ২৭ জনের।

এসময়ে সর্বাধিক মৃত্যু ও শনাক্ত হয়েছে খুলনা জেলা ও মহানগরীতে। একই সময়ে বিভাগে ৯৯৮ জনের শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার দুপুরে বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনায় ৯ জন, কুষ্টিয়ায় পাঁচজন, যশোরে চারজন, বাগেরহাটে চারজন এবং নড়াইলে তিনজন ও মেহেরপুরে দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

এর আগে সোমবার (২১ জুন) আগের ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১২ জনের মৃত্যু ও শনাক্ত হয় ৯৪৫ জনের। আর রোববার (২০ জুন) আগের ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে তখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ২৮ জনের মৃত্যু এবং ৭৬৩ জনের করোনা শনাক্তের কথা জানানো হয়েছিল। তার আগে শনিবার (১৯ জুন) ২২ জনের মৃত্যু এবং ৬২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল।

খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৪৬ হাজার ৯৭৫ জন। আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৬৪ জনে। এ সময় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৪ হাজার ৯৪৮ জন।

জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, খুলনায় ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ মৃত্যু ও শনাক্ত হয়েছে। এসময়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ২৬৮ জনের এবং মত্যু হয়েছে ৯ জনের। জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৩ হাজার ২৬৪ জন। মারা গেছে ২২০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ১৬৩ জন।

বাগেরহাট: এ জেলায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫৬ জনের। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৬৯২ জনের। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৪০ জন।

সাতক্ষীরা: এখানে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৮৬ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ২ জন এবং মারা গেছে ৬২ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ৮২ জন।

যশোর: গত ২৪ ঘণ্টায় যশোরে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ২৫৩ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছেন ১০ হাজার ৩৮ জন। মোট মারা গেছেন ১১৩জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ৭৮৯ জন।

নড়াইল: গত ২৪ ঘণ্টায় নড়াইলে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৪২ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৩৫২ জন। মোট মারা গেছেন ৩৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৪৭ জন।

মাগুরা: মাগুরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৬ জনের। এ জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৪২১ জন। মোট মারা গেছেন ২৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ২২৩ জন।

ঝিনাইদহ: গত ২৪ ঘণ্টায় ঝিনাইদহে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৩০ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ৫২১ জন। মোট মারা গেছেন ৭১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৯০২ জন।

কুষ্টিয়া: গত ২৪ ঘণ্টায় কুষ্টিয়ায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১১৯ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬ হাজার ৫৪০ জন। মোট মারা গেছে ১৬২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ১০৪ জন।

চুয়াডাঙ্গা: এখানে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৮২ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৭৩২ জন। মোট মারা গেছেন ৭৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১০ জন।

মেহেরপুর: নতুন করে গত ২৪ ঘণ্টায় এ জেলায় শনাক্ত হয়েছেন ৪৬ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪১৩ জন। আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেছেন ৩৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৯৮৮ জন।

এদিকে, করোনার এই ঊর্ধ্বগতি রোধে খুলনায় শুরু হয়েছে এক সপ্তাহের সর্বাত্মক লকডাউন। মঙ্গলবার সকাল থেকে লকডাউনে বন্ধ রয়েছে গণপরিবহন, মার্কেট, দোকানপাট, শপিংমল, সাপ্তাহিক হাট এবং বেসরকারি অফিস।

খুলনা রেলস্টেশনে ট্রেনের আগমন ও বহির্গমনও বন্ধ রয়েছে। তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ও কাঁচাবাজারের দোকান সকাল ৭টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এবং ওষুধের দোকান সার্বক্ষণিক খোলা থাকবে। ব্যাংক খোলা থাকবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত। হোটেল-রেস্তোরাঁগুলোতে বসে খাওয়া যাবে না।

খুলনা সিভিল সার্জন নিয়াজ মোহাম্মদ জানিয়েছেন, সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার একমাত্র কারণ, স্বাস্থ্যবিধি না মানা। সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সচেতন করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। এ কারণেই লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া