adv
৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শহীদ মিনারে এইচ টি ইমামের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের প্রথম জানাজা শেষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়েছে তার মরদেহ।

মরদেহে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। তাদের নিবেদন শেষে সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। এরপর সেখানে সর্বস্তরের মানুষ তার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানান।

এর আগে প্রথম জানাজা তার জন্মস্থান সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় সরকারি আকবর আলী কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হয়।
জানাজার আগে তাকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়। জানাজা পড়ান মওলানা আব্দুল হাকিম। সকালে হেলিকপ্টারে করে তার মরদেহ উল্লাপাড়ার সোনাতলা গ্রামে নেওয়া হয়। সেখান থেকে প্রথম জানাজার জন্য তার মরদেহ নেওয়া হয় উল্লাপাড়া সরকারি আকবর আলী কলেজ মাঠে।

শহীদ মিনারে জাতীয় পতাকায় মোড়ানো কফিনে প্রথমে রাষ্ট্রপতির পক্ষে তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম (বীর প্রতীক) ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল নকিব আহমদ চৌধুরী পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন। তার মরদেহ সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত শহীদ মিনারে রাখা হয়।

এরপর আওয়ামী লীগের পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মুকুল বোস, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবীর নানক, আব্দুর রহমান প্রমুখ। এরপর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন শেষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, এইচ টি ইমামের মতো কর্মপাগল ও কর্মনিষ্ঠ মানুষ সমাজে বিরল। তিনি দেশের জন্য অনেক কাজ করে গেছেন। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি দেশের জন্য কাজ করে গেছেন। চাকরি থেকে অবসর নিয়েছিলেন, কিন্তু কাজ থেকে কখনও অবসর নেননি। এইচ টি ইমামের মৃত্যুতে যে শূন্যস্থান তৈরি হলো তা কখনও পূরণ হওয়ার নয়।

তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পাশে ছিলেন এইচ টি ইমাম। বঙ্গবন্ধু হত্যার পর তার কন্যা শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেছিলেন। তিনি আমাদের দলের প্রচার সেলের প্রধান ছিলেন।

এইচ টি ইমামের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগসহ সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও ব্যক্তি পর্যায়ের মানুষ। এছাড়া বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে এইচ টি ইমামের কফিনে শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয়।

বুধবার (৩ মার্চ) দিবাগত রাত সোয়া ১টায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচে) মারা যান এইচ টি ইমাম।

কিডনি জটিলতাসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন অসুস্থতা নিয়ে দুই সপ্তাহ আগে তিনি সিএমএইচে ভর্তি হন। ২০১৪ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন এইচ টি ইমাম। দেশের প্রথম মন্ত্রিপরিষদ সচিব এইচ টি ইমামের বয়স হয়েছিল ৮২ বছর।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া