বাসে আগুন: পুলিশের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাল বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক : সম্প্রতি রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় বাস পোড়ানোর ঘটনায় বিএনপির শীর্ষ নেতা থেকে শুরু করে কয়েক শ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। যদিও শুরু থেকে এর সঙ্গে নিজেদের সম্পৃক্ততা অস্বীকার করে আসছেন বিএনপি নেতারা।

এরইমধ্যে পল্টনে বাস পোড়ানোর ঘটনায় সরাসরি জড়িত থাকার অভিযোগ এনে শনিবার ছাত্রদল ও যুবদলের তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য ও গণমাধ্যমকর্মীদের ধারণ করা ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে তাদের শনাক্ত করা হয়েছে। বাস পোড়ানোতে বিএনপি নেতাকর্মীরা জড়িত বলে পুলিশের ভাষ্য। এমন অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে বিএনপি বলছে, পুলিশের এই বক্তব্য সাজানো। বিএনপি জ্বালাও পোড়াওয়ের সঙ্গে জড়িত নয়।

শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপির মুখপাত্র এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সংবাদ সম্মেলনে গত ১২ নভেম্বর ঢাকায় গণপরিবহনে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় বিএনপিকে জড়িয়ে যে বক্তব্য দেওয়া হয়েছে। বিএনপি এই বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।’

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার পর থেকেই বিএনপি বলে আসছে, এই ঘটনার সঙ্গে বিএনপির কোনো সম্পৃক্ততা নেই। বিএনপি জ্বালাও পোড়াওসহ অগ্নিসংযোগের মতো ধ্বংসাত্মক রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। অতীতের মতোই এর দায় বিএনপির ওপর জবরদস্তিমূলকভাবে চাপিয়ে দিতে চায় সরকার।’

প্রিন্স বলেন, ‘জনমনে বিভ্রান্তি ও বিএনপিকে হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্যে এ ধরনের অপতৎপরতায় লিপ্ত রয়েছে সরকার। সরকারের এই ধরনের অপকৌশলে বিএনপি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছে। এটি সরকারের সাজানো নাটকের পুনরাবৃত্তি মাত্র।’

তিনি আরও বলেন, ‘রাজনীতি ও গণতন্ত্রের বৃহত্তর স্বার্থে সরকারকে আবারও এ ধরনের অপতৎপরতা বন্ধ করার এবং সরকারের অপপ্রচার ও মিথ্যাচারে বিভ্রান্ত না হতে জনগণের প্রতি বিএনপি আহ্বান জানাচ্ছে।’

জয় পরাজয় আরো খবর