বঙ্গবন্ধুর নামে স্থাপিত ভাস্কর্য অপসারণের দাবি জানালো ইসলামী শাসনতন্ত্র

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর ধোলাইপাড়ে বঙ্গবন্ধুর নামে স্থাপিত ভাস্কর্যকে মূর্তি হিসাবে উল্লেখ করে তা অপসারণের দাবি জানিয়েছে ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন।

শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে রাজধানীর ধুপখোলা মাঠে এক সমাবেশ থেকে বক্তারা এই দাবি করেন। সমাবেশে বক্তারা বলেন, মূর্তির বদলে আল্লাহ, কোরআন ও হাদিসের বাণী সংম্বলিত মিনার স্থাপন করতে হবে।

তারা আরও বলেন, বাংলাদেশ সমজিদের দেশ, আউলিয়ার দেশ, মাদ্রাসার দেশ। এদেশে কোন মূর্তি থাকতে দেয়া হবে না।

দলটির মহানগর ও কেন্দ্রীয় কমিটির বক্তারা বলেন, সারাদেশের সড়কের মোড়ে মোড়ে মূর্তি বসানো হয়েছে সেই সব মূর্তি সরানোর জন্য আন্দোলন করা হবে। তারা বলেন বঙ্গবন্ধুর জীবনের দর্শনে কোন মূর্তি ছিল না, তাই মূর্তি রাখাকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পরিপন্থী বলেও উল্লেখ করেন তারা।

দেশে করােনায় একদিনে আরও ১৯ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১ হাজার ৭৬৭

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৭৬৭ জন। শুক্রবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

দেশে কোভিড নাইনটিনে মোট প্রাণহানি এখন ৬ হাজার ১৫৯ জনের। এছাড়া, এ পর্যন্ত ৪ লাখ ২৮ হাজার ৯৬৫ জন কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৯৬৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে এবং নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ৫৩৯টি নমুনা। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৫১৯ জন। সর্বমোট সুস্থ ৩ লাখ ৪৬ হাজার ৩৮৭ জন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল গত ৮ মার্চ। ২৬ অক্টোবর তা ৪ লাখ পেরিয়ে যায়। এর মধ্যে গত ২ জুলাই চার হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদফতর। ৪ নভেম্বর তা ছয় হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৩০ জুন একদিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

মাছে করোনা, ভারত থেকে মাছ আমদানি নিষিদ্ধ করল চীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : হিমায়িত সামুদ্রিক খাদ্য রপ্তানিতে ভারতীয়দের কাছে অন্যতম বড় বাজার চীন। প্রতিবছর ভারতের ব্যবসায়ীরা কোটি কোটি ডলারের সামুদ্রিক মাছ ও খাবার রপ্তানি করে দেশটিতে। তবে ভারতীয় একটি প্রতিষ্ঠানের পাঠানো হিমায়িত সামুদ্রিক মাছে করোনা ভাইরাস পাওয়ার পর তাদের কাছ থেকে আমদানি নিষিদ্ধ করেছে চীন।

শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) চীনের শুল্ক অফিস জানিয়েছে, ভারতের বাসু ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে আগামী এক সপ্তাহ সবধরনের মাছ আমদানি বন্ধ থাকবে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, সম্প্রতি ভারতীয় প্রতিষ্ঠানটির পাঠানো হিমায়িত ক্যাটলফিশের (একজাতীয় সামুদ্রিক মাছ) তিনটি নমুনা পরীক্ষায় করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়। এর পরপরই তাদের কাছ থেকে আমদানি নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত নেয় চীনা কর্তৃপক্ষ।

ইন্ডিয়ামার্টের তথ্যমতে, ভারতের অন্যতম বৃহত্তম সামুদ্রিক খাদ্য রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান বাসু ইন্টারন্যাশনাল। কলকাতাভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম শুরু হয়েছিল ২০০২ সালে। তারা সাধারণত তাজা ও হিমায়িত দুই ধরনেরই সামুদ্রিক মাছ, কাঁকড়া, ঝিনুক, ইল প্রভৃতি রপ্তানি করে থাকে।

চীন ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, কোরিয়া, ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়ায় সামুদ্রিক খাবার রপ্তানি করে বাসু ইন্টারন্যাশনাল।

এক সপ্তাহের জন্য রপ্তানি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির আর্থিক ক্ষতি তো হচ্ছেই, তাদের ব্যবসায়িক সুনামেও বড় আঘাত এসেছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

তবে চীনের শুল্ক সাধারণ প্রশাসন জানিয়েছে, এক সপ্তাহ পরেই আবারও দেশটিতে যথারীতি সামুদ্রিক মাছ রপ্তানি করতে পারবে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানটি।

রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বাস পোড়ানোর ঘটনায় ৯ মামলা, আসামি ৪৪৬

ডেস্ক রিপাের্ট : রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বাস পোড়ানো এবং পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার ঘটনায় বিএনপি নেতাকর্মীদের আসামি করে ৯টি মামলা হয়েছে।

এর মধ্যে মতিঝিল থানায় দুটি, শাহবাগ থানায় দুটি, পল্টন থানায় দুটি এবং কলাবাগান, ভাটারা ও বংশাল থানায় একটি করে মামলা করা হয়েছে। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের গণমাধ্যম ও জনসংযোগ বিভাগের উপকমিশনার ওয়ালিদ হোসেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার ও আজ শুক্রবার সকালে এসব মামলা হয়।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইন ও বিস্ফোরক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলাগুলো করা হয়েছে। মামলার বাদী পুলিশ।

এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে ৪৪৬ জনকে। আটক করা হয়েছে ২০ জনকে। আসামিদের বেশিরভাগই বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী। এসব মামলায় অজ্ঞাতনামা আসামিও রয়েছেন।

মতিঝিল থানায় করা মামলায় আসামিদের মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে বিএনপির পরাজিত মেয়রপ্রার্থী ইশরাক হোসেন রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার মোট ২০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের মধ্যে মতিঝিলে ১ জন, শাহবাগে ৬, পল্টনে ৯, বংশালে ২ জন ও কলাবাগানে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনের দিন বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ৯টি বাস পুড়িয়ে দেয়া হয়। আগুনে পুড়ে যাওয়া বাসের মধ্যে ৩টি সরকারি।

বিএনপির আন্দোলন বাধাগ্রস্ত করতে গাড়ি পুড়িয়ে নাশকতা সৃষ্টি : মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে গণতন্ত্র না থাকলে দুষ্কৃতিকারীরা গাড়ি পোড়ানোর মতো নাশকতা চালায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, সরকারের কিছু এজেন্ট থাকে, যারা ষড়যন্ত্র করে, তারাই আন্দোলন বাধাগ্রস্ত করতে গাড়ি পুড়িয়ে নাশকতার সৃষ্টি করে।

শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) আয়োজিত মিট দ্যা রিপোর্টার্স অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ডিআরইউয়ের সাগর-রুনী মিলনায়তনে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ডিআরইউয়ের সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ এবং মির্জা ফখরুলের জীবনী পাঠ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরী।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, প্রথমে এক-এগারোর সরকারের লক্ষ্য ছিল ‘মাইনাস টু’। পরে তারা মাইনাস ওয়ান বাস্তবায়ন করেন। আর তাদের এ কাজে সক্রিয় ভূমিকা রাখেন আওয়ামী লীগের নেতারা। সে সময় শেখ হাসিনা বলেছিলেন, তিনি ক্ষমতায় এলে এক-এগারোর সরকারের সব কাজের বৈধতা দেবেন।

সেজন্য ক্ষমতায় এসেই তিনি বিএনপিকে নির্মূল করতে থাকেন। যা গণতন্ত্রের জন্য ভালো ফল আনেনি, আনবেও না। সুপরিকল্পিতভাবে গণতন্ত্রকে হরণ করার প্রক্রিয়া শুরু হয়। সরকার নির্বাচন ব্যবস্থাকে নিয়ন্ত্রণ করে। যাতে সমগ্র গণতন্ত্র বাধাগ্রস্ত হয়। গণতন্ত্র না থাকলে জবাবদিহিতা নেই। এটাই বড় সমস্যা। কারো কোনো জবাবদিহিতা নেই।

খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের মতের অমিলের বিষয়ে তিনি বলেন, বিএনপিতে কোনো দ্বন্দ্ব নেই। প্রতি শনিবার আমাদের স্থায়ী কমিটির বৈঠক হয়। সেখানে সব বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়।

খালেদা জিয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তিনি মানসিকভাবে রাজনীতিতে সক্রিয় রয়েছেন। আমাদের রাজনীতিতে তার প্রভাব রয়েছে। তিনি রাজনীতি থেকে যাননি, যাবেন না। তার অস্তিত্ব গভীরভাবে দেশের জনগণের মধ্যে আছে।

খালেদা জিয়ার স্বাস্থের অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, তার চিকিৎসার জন্য সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। চিকিৎসার জন্য তার বিদেশে যাওয়াটা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে।

গণতন্ত্রের প্রধান অন্তরায় বিএনপি- আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্যের বিষয়ে তিনি বলেন, এ দেশের গণতন্ত্রের প্রধান অন্তরায় আওয়ামী লীগ নিজেই। বাকশাল গঠন করে তারাই এ দেশের গণতন্ত্রের কবর দিয়েছিলেন। ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনসহ বিভিন্ন আইন করেছেন তারা। যা গণতন্ত্রের পক্ষে নয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের বর্তমানে পলিটিক্যাল এজেন্ডা একটাই- প্রকৃত জনগণের সরকার, সংসদ। দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন সম্ভব নয়। নিরপেক্ষ সরকার ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন ছাড়া কোনোভাবেই বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। আমরা প্রতিনিধিত্বশীল সরকার চাই।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সংসদে জনগণের কোনো বিষয় নিয়ে আলোচনা হয় না। চার-পাঁচ মিনিটের মধ্যে আইন পাস হয়। যা জনগণের কোনো কাজে লাগে না।

হেফাজতে সামিল হচ্ছে জামাতের নেতাকর্মীরা (ভিডিও)

ডেস্ক রিপাের্ট : ২০১৩ সালের ৫ই মে। হেফজতের পূর্ব নির্ধারিত সমাবেশ ঘিরে দিনভর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ। সরকারি-বেসরকারি সম্পদ ভাঙচূর ও বিভিন্ন স্থাপনায় আগুনও ধরিয়ে দেয় হেফাজত কর্মীরা। পরে অভিযানের মধ্যদিয়ে দমন হয় নাশকতা। পরবর্তীকালে তদন্তে বেরিয়ে আসে নাশকতার পেছেনে-হাত ছিল জামাত-শিবিরের।

আবারও হেফাজতে সামিল হচ্ছে জামাতের নেতাকর্মীরা। সম্প্রতি রাজধানীতে হেফাজতের ফ্রান্সবিরোধী বিক্ষোভ মিছিল ঘিরে ছিল জামাতকর্মীদের সরব উপস্থিতি।

খোঁজ নিয়ে দেখাযায়, সম্প্রতি রাজধানীতে ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচিতে বহু মানুষ জড়ো হয়। মূলত হেফাজতের মিছিলে এসে মেলে জামাতকর্মীরা। কর্মসূচিতে জামাতের অর্থায়নও ছিল। নেতৃত্বে ছিলেন দেলোয়ার হোসেন সাইদীর পুত্র শামীম সাইদী।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে শামীম সাইদী বলেন, ‘আমরা তো মুসলমান হিসিবেই অংশগ্রহণ করেছি। সেখানে আমরা যারা ছিলাম, সেখানে হেফাজতের কোন নেতাকর্মী ছিলেন না, বিশেষ করে আমি যে ব্যানারে ছিল। কাজেই হেফাজতের সঙ্গে আমাদের কোন দূরত্ব নেই।’

তবে আলেমরা মনে করেন সমাবেশের গায়ে কালিমা দিতেই সেদিন জামাত এসে মিশে ছিল। এ ব্যাপারে রাজধানীর আম্বর শাহ জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা লক্ষ্য করেছি যে, আমাদের রাসূল (সা.) নিয়ে করা আন্দোলনে অনেকে রাজনৈতিক দাবিও ঢুকিয়েছেন। হেফাজতের অনেকে রয়েছে, যারা জামায়াতের সাথে লেয়াজু কমিটেত তথা ২০ দলীয় জোটে রয়েছে। অনেক সময় তারাও একমত হয়ে দেখা যায় এ আন্দোলনগুলো করেন।’

জামাতের এই সুক্ষ কৌশল থেকে বাচতে হেফাজতের নীতিনির্ধারকদের সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক মাওলানা আনিসুজ্জামান শিকদার।

তিনি বলেন, ‘শুধু জামায়াতে ইসলাম নয়, যেকোন উগ্র দলই আমাদের জন্য ক্ষতিকর। হেফাজতের ইসলাম যারা করেন, তাদেরও মৌলিক কথা শান্তি। তারপরও তাদের সাবধান থাকা দরকার যে, এখানে এমন কোন লোক অনুপ্রবেশ না করে যাতে তাদের ভালও কিছুও খারাপে পরিণত হয়।’

নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা মেজর জেনারেল (অব.) আবদুর রশীদ বলছেন, ‘যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত সংগঠনটি এখনো বিদেশী শক্তির মদদ পাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘হেফাজত যেটি ডাক দিয়েছে, সেটিতে জামায়াতের অংশগ্রহণ আজকের না। এরকম রাজনৈতিক সমাবেশ করে যদি কোন অঘটন ঘটে যায়, সেটি বাংলাদেশের যে ভাবমূর্তি আছে সেটি মারাত্মকভাবে ব্যহত হবে।’

৫ মের ঘটনা থেকে হেফাজতের শিক্ষা উচিত মন্তব্য করে আবদুর রশীদ বলেন, ‘এখানে যে হুমকি-ধামকি দেয়া হচ্ছে, তা মূলত একধরনের পেশার তৈরি জন্য। -একুশেটিভি

আইপিএলকে ঘিরে জুয়া, দেড় কোটি রুপিসহ ৪২ জন গ্রেফতার

স্পোর্টস ডেস্ক : ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ম্যাচকে কেন্দ্র করে জুয়ার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে বেঙ্গালুরু থেকে ৪২ জনকে গ্রেফতার করেছে ভারতের সেন্ট্রাল ক্রাইম ব্র্যাঞ্চ (সিসিবি)। সেই সঙ্গে উদ্ধার করা হয়েছে নগদ দেড় কোটি রুপি।

ভারত যেন জুয়াড়িদের আখড়া। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) শুরু হলে যেন জুয়াড়িদের উৎসব শুরু হয়। আইপিএলের সদ্য শেষ হওয়া ১৩তম আসরকে ঘিরেও এর ভিন্নতা ঘটেনি। ১৯ সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতে আইপিএল শুরু হওয়ার দুদিন পর একটি ড্রাইভ চালু করে ভারতের স্থানীয় কিছু বাজিকর। আটককৃতরা সেই ড্রাইভের সঙ্গেই যুক্ত।

পুলিশ জানিয়েছে, সেখানে শতকরা ৭৫ ভাগেরও বেশি তরুণ বাজি ধরেছিল, যারা কিনা হোটেল, বার, সুপারমার্কেট, পেট্রোল বাঙ্ক এবং ইটারিজের কর্মচারী ছিল। যদিও অল্প পরিমাণ টাকা অনলাইনে লেনদেন হতো, এক লাখ টাকার উপরে অর্থ নগদে বদল করতো।
এক তদন্ত কর্মকর্তা বলেছেন, স্মার্টফোনগুলো ক্রিকেটকে বাজি ধরতে সহজ করেছে। জুয়াড়িরা বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে, বেশিরভাগ বাইরের দেশে জুয়া বৈধ। তবে তদন্তের সময় আমরা স্থানীয়ভাবে প্রকাশিত কিছু অ্যাপ্লিকেশন পেয়েছি। বেশিরভাগ জুয়াড়িরা স্বল্প সময়ের স্থানীয় অ্যাপ্লিকেশন পছন্দ করে, যারা কমপক্ষে ৫০,০০০ টাকার বাজি ধরে তারা আন্তর্জাতিক অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে। বেশিরভাগ বড় জুয়াড়িরা মুম্বাইয়ের।

প্রতিটি রান করা, প্রতিটি বাউন্ডারি, প্রতিটি উইকেট এবং প্রতিটি ম্যাচ জিততে অর্থ বিনিয়োগ করা হয় বলে জানিয়েছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা। যেখানে কি-না ২০ হাজার রুপি পর্যন্ত বাজি ধরতে পারে। – ক্রিকফ্রেঞ্জি/ জি নিউজ

ওবায়দুল কাদের বললেন – বিএনপি আগুন সন্ত্রাস ছাড়তে পারেনি

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাসে আগুন দেয়ার ঘটনায় বিএনপিকে দায়ী করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি আবারও প্রমাণ করেছে তারা তাদের চিরাচরিত অভ্যাস থেকে সরে আসতে পারেনি। তাদের এ ধরণের নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড কোনোভাবেই বরদাশত করা হবে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এ ধরণের কর্মকাণ্ডের দাঁতভাঙা জবাব দেবে আওয়ামী লীগ।’

রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) সকালে সংবাদ সম্মেলনে এ সব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে, প্রচারণাও চালাবে কিন্তু নির্বাচনের সময় এজেন্ট দেবে না। তাদের কৌশল নির্বাচনকে বিতর্কিত করা। বিএনপি জানে জনগণের ভোটে তারা জিততে পারবে না। এ উপনির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে। তবে পুরনো আগুন সন্ত্রাসের পুনরাবৃত্তি ঘটানো হয়েছে। আগে যারা আগুন সন্ত্রাস চালাতো তারাই আবার আগুন সন্ত্রাস চালাচ্ছে।’

এ সময় বিএনপিকে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড থেকে সরে আসার আহ্বান জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘ঢাকায় ভোটার উপস্থিতি আশানুরূপ হয়নি। করোনা ভীতির কারণে ঢাকা সিটিতে ভোটার উপস্থিতি কম। তবে সিরাজগঞ্জে ৫১ শতাংশ ভোট পড়েছে।’

এ সময় যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শনিবার যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেওয়া হবে। আর আগামী সপ্তাহে দলের উপ-কমিটি ঘোষণা করা হবে।’

ভাড়া নিয়ে দ্বন্দ্বে ভাড়াটিয়াকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ বাড়িওয়ালার বিরুদ্ধে

ডেস্ক রিপাের্ট : নারায়ণগঞ্জে বাড়ি ভাড়ার পাওনা ১৫শ’ টাকা নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে মেহেদী (৪৮) নামে এক ভাড়াটিয়াকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৯টায় শহরের নলুয়াপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মৃত্যু নিয়ে পরিবারের দাবি, মেহেদীকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আবার কেউ কেউ বলছেন, তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে ভাড়াটিয়া মেহেদীকে ধাক্কা দিলে তিনি মেঝেতে লুটিয়ে পড়ে স্ট্রোক করে মারা যান। মৃত মেহেদী একই এলাকার মৃত ফজল হকের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শী মৃতের ছেলে আমিন জানান, দীর্ঘ কয়েক মাস যাবত তারা বাড়িওয়ালা রানার তিনতলা বাড়িতে ভাড়া থাকছেন। চলতি নভেম্বর ম‌াসের ভাড়া নিতে তাকে ক্রমশই চাপ দিচ্ছিলেন রানা। রাতে পাওনা ১৫শ’ টাকা ভাড়া চাইতে এলে আগামীকাল দেবে বলে জানান আমিন। কিন্তু বাড়িওয়ালা বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এ সময় তার বাবা মেহেদী এসে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেন।

কিন্তু বাড়িওয়ালা তা না শুনলে বিষয়টি সংঘর্ষে রূপ নেয়। এ সময় বাড়িওয়ালা রানা, তার বোন পিংকি ও সুমন লাঠি দিয়ে পেটানো শুরু করলে মেহেদী মেঝেতে লুটিয়ে পড়েন। আহতাবস্থায় স্থানীয়দের সহযোগিতায় হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মেহেদীকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে মেহেদীর মৃত্যু নিয়ে স্থানীয় বেশ কয়েকজন জানান, ভাড়া নিয় দ্বন্দ্বের জের ধরে তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে মেহেদীকে ধাক্কা দিলে তিনি স্ট্রোক করে মারা যান।

অপরদিকে, ঘটনার পর স্থানীয়রা মেহদীর মৃত্যুর বিচার চেয়ে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেন। এসময় পরিস্থিতি শান্ত করতে ঘটনাস্থলে ছুটে যান নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. কবির হোসেন। পরে সদর মডেল থানার ওসি আসাদুজ্জামানও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান জানান, আমরা মেহেদীর মরদেহ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ১০০ শয্যা বিশিষ্ট (ভিক্টোরিয়া) জেনারেল হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছি। অভিযুক্তদের আটক করার চেষ্টা করছি। তারা বর্তমানে পলাতক রয়েছেন। মেহেদীর লাশের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে তার মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।- বিডিপ্রতিদিন

মিশরে শান্তিরক্ষী মিশনের হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, ৫ মার্কিন সেনাসহ নিহত ৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিশরের সিনাই উপত্যকায় শান্তিরক্ষী মিশনের হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়েছে। এতে কমপক্ষে ৭ সেনা নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৫ জন আমেরিকান সেনা রয়েছেন।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার এ দুর্ঘটনা ঘটনা ঘটে।

মূলত ইসরায়েল এবং মিশরের মধ্যে শান্তি চুক্তির প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণে কাজ করছিলো শান্তিরক্ষীদের এই দল। তবে কি কারণে এ দুর্ঘটনার কবলে পড়ল হেলিকপ্টরটি তা জানতে তদন্ত চলছে। এমনকি দুর্ঘটনায় হতাহতদের তালিকাও প্রকাশ করা হয়নি।
এ ঘটনায় হেলিকপ্টারটি ভূপাতিত করার শঙ্কাও করছে স্থানীয় প্রশাসন। বলছে লোহিত সাগর অঞ্চলটিতে সক্রিয় রয়েছে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসআইএস। সূত্র: সিএনএন