বিজিবি এখন ত্রিমাত্রিক বাহিনী : প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপাের্ট : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ রোববার বিজিবি’কে একটি ত্রিমাত্রিক বাহিনী হিসেবে ঘোষণা করে বলেছেন, হেলিকপ্টার সংযোজন কেবল শুরু মাত্র, এই যাত্রা বিজিবি’র সার্বিক কর্মকান্ডকে আরও গতিশীল করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার পাশাপাশি অর্পিত দায়িত্ব পালনে এখন থেকে বিজিবি সদস্যরা জলে, স্থলে ও আকাশপথে বিচরণ করবেন।’

প্রধানমন্ত্রী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা সবসময় দেশপ্রেম, সততা ও ঈমানের সাথে দায়িত্ব পালন করে এই বাহিনীর সুনাম ও মর্যাদা সমুন্নত রাখবেন। একদিন এ বাহিনী বিশ্বের শ্রেষ্ঠতম সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মর্যাদা লাভ করবে-এ আমার আশা।’

শেখ হাসিনা বিজিবি এয়ার উইং-এর জন্য ক্রয়কৃত ২টি এমআই-১৭১ই হেলিকপ্টার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে একথা বলেন।

তিনি আজ সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পিলখানাস্থ বিজিবি সদর দপ্তরে এ উপলক্ষে আয়োজিত মূল অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিজিবি এখন অন্যান্য বাহিনীর মত ত্রিমাত্রিক বাহিনীতে উন্নীত হয়েছে। আমরা আধুনিক হেলিকপ্টার ক্রয় করেছি, প্রকৃতপক্ষে হেলিকপ্টারের কথা আমি নিজেই উদ্যোগ নিয়ে বলেছিলাম। কারণ, এটা অত্যন্ত গরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে দুর্গম পার্বত্য এলাকার নিরাপত্তা দেয়া একান্ত ভাবে দরকার। সেকারণেই এই হেলিকপ্টার ক্রয় করে দিয়েছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সবচেয়ে বড় কথা আমরা মুজিববর্ষ উদযাপন করছি, এই মুজিববর্ষেই বিজিবি হেলিকপ্টার পেল এটা অত্যন্ত গৌরবের এবং আনন্দের বলে আমি মনে করি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘২টি হেলিকপ্টার উদ্বোধনের মাধ্যমে (‘বীর শ্রেষ্ঠ নুর মোহাম্মদ’ এবং ‘বীর শ্রেষ্ঠ আব্দুর রউফ’) আমি আজ বিজিবি’কে একটি ‘ত্রিমাত্রিক বাহিনী’ হিসেবে ঘোষণা করছি।’
প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতার ভাষণের উদ্ধৃতি দেন।

তিনি বলেন, জাতির পিতা ১৯৭৪ সালের ৫ ডিসেম্বর পিলখানায় তৎকালিন বাংলাদেশ রাইফেলস-এর তৃতীয় ব্যাচের প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজে বলেছিলেন, ‘ঈমানের সঙ্গে কাজ করো, সৎ পথে থেকো, দেশকে ভালোবেসো।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এটা শুধু বিজিবি নয় বাংলাদেশের সকলের জন্যই প্রযোজ্য।’

তিনি বিজিবি’র উন্নয়নে তাঁর সরকারের পক্ষে যা যা করণীয় তা করারও আশ্বাস দেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন। বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাফিনুল ইসলাম অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে বিজিবি’র কর্মকান্ড সম্পর্কে একটি ভিডিও চিত্র প্রদর্শিত হয়।

বিজিবি’র একটি সুসজ্জিত চৌকষ দল প্রধানমন্ত্রীকে অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রীয় সালাম জানায়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সীমান্তের সার্বিক সুরক্ষা ও সার্বভৌমত্ব অক্ষুন্ন রাখার জন্য বিজিবি’র সাংগঠনিক কাঠামোভুক্ত অতি পুরাতন ট্যাংক বিধ্বংসী অস্ত্রের পরিবর্তে আধুনিক, যুগোপযোগী ও কার্যকরী ট্যাংক বিধ্বংসী মিসাইল ক্রয় করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ভারত এবং মিয়ানমারের সাথে ৫৩৯ কিলোমিটার অরক্ষিত সীমান্ত এলাকায় নতুন ৬২টি বিওপি নির্মাণের মাধ্যমে ৪০১ দশমিক ৫ কিলোমিটার সীমান্ত ইতোমধ্যে নজরদারীতে আনা হয়েছে। অবশিষ্ট ১৩৭ দশমিক ৫ কিলোমিটার অরক্ষিত সীমান্ত এলাকায় আরও বিওপি স্থাপন করা হবে।

সরকার প্রধান বলেন, গত ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে একনেকের সভায় আরও ৭৩টি নতুন কম্পোজিট বিওপি নির্মাণের বিষয়ে অনুমোদন প্রদান করা হয়েছে। এতে বিজিবি’র অপারেশনাল সক্ষমতা বহুগুণে বৃদ্ধিসহ সৈনিকদের মনোবলের উপরে ইতিবাচক প্রভাব বিস্তার করবে।
সূত্র : বাসস

দেশে একদিনে করোনায় মৃত্যু আরও ১৮, নতুন আক্রান্ত ১ হাজার ৪৭৪ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ছয় হাজার ৬৭ জনের। নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৪৭৪ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার লাখ ২০ হাজার ২৩৮ জনে।

আজ রোববার (৮ নভেম্বর) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গ বিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৫৭৭ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ৩৮ হাজার ১৪৫ জন। সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১১৪টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১২ হাজার ৬০১টি। আগের নমুনাসহ মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১২ হাজার ৭৬০টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৪ লাখ ৪২ হাজার ৬০২টি।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার ১১ দশমিক ৫৫ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৭ দশমিক ২০ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮০ দশমিক ৪৭ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৪ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে তিনি জানান, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১৮ জনের মধ্যে ১৪ জন পুরুষ ও নারী চার জন। এদের মধ্যে রয়েছেন ঢাকা বিভাগে নয় জন, চট্টগ্রাম বিভাগে তিন জন, খুলনা ও রংপুর বিভাগে দুই জন করে চার জন। এছাড়া বরিশাল ও সিলেট বিভাগে এক জন করে দুই জন রয়েছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালেই মারা গেছেন ১৭ জন। আর বাড়িতে মারা গেছেন এক জন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ১১ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে পাঁচ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে এক জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে এক জন রয়েছেন।
তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৯৯ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ১১৮ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৮৭ হাজার ৩১৭ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৭৫ হাজার ১৭৫ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১২ হাজার ১৪২ জন।

উপমন্ত্রীসহ ৬ সংসদ সদস্যের করোনা পজিটিভ

ডেস্ক রিপাের্ট : মুজিববর্ষ উপলক্ষে একাদশ জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশনে যোগ দিতে আসা সংসদ সদস্যগণের কোভিড-১৯ পরীক্ষার পর ছয় জনের করোনা পজিটিভ বলে জানা গেছে। জাতীয় সংসদের মিডিয়া সেন্টারে গত শুক্রবার পরীক্ষার জন্য তাদের নমুনা নেওয়া হয়।

নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে যাদের কোভিড-১৯ পজিটিভ এসেছে তারা হলেন- পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী এবং বাগেরহাট-৩ আসনের এমপি বেগম হাবিবুন নাহার, নওগাঁ-২ আসনের এমপি এবং সাবেক হুইপ মো. শহীদুজ্জামান সরকার, ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য শফিউল ইসলাম, পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য নুরুজ্জামান বিশ্বাস, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য নাদিরা ইয়াসমিন জলি এবং তাহমিনা বেগম।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন আজ রোববার সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হতে যাচ্ছে। এটি হবে একাদশ সংসদের দশম অধিবেশন।

সংবিধানের ৭২ অনুচ্ছেদের (১) নং দফায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ গত ২১ অক্টোবর এ অধিবেশন আহ্বান করেন।

এই অধিবেশনের মধ্য দিয়ে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে আরও একটি অধিবেশন শুরু হতে যাচ্ছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ এই অধিবেশনের আহ্বান করা হয়। গত মার্চ মাসে অধিবেশনটি হওয়ার কথা থাকলেও করোনাভাইরাসের প্রভাবে তখন তা স্থগিত করা হয়।

এর আগে গত ১০ সেপ্টেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদের নবম অধিবেশন শেষ হয়। করোনাভাইরাসের কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নির্ধারিত সংসদ সদস্যদের নিয়ে চলে নবম অধিবেশন। প্রতি কার্যদিবসে ৭০-৮০ জন সংসদ সদস্যের উপস্থিতি নিশ্চিত করা হয়। করোনাভাইরাসের কারণে মাঝে মাঝে বিরতি দিয়ে আসন বিন্যাস করা হয়।

তাছাড়া যারা অধিবেশনে যোগদান করেছেন তাদের প্রত্যেকের করোনা পরীক্ষা করানো হয়। করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়েই অধিবেশনে যোগ দিতে হয় সংসদ সদস্য ও সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের।

দশম অধিবেশনেও একই শর্ত বেঁধে দেওয়া হয়েছে। এ জন্য গত ৬ নভেম্বর সংসদ সদস্যসহ অধিবেশন সংশ্লিষ্ট সবার করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে বিগত দুটি অধিবেশনে সাংবাদিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও এ অধিবেশনে আগামীকাল সোমবার রাষ্ট্রপতির সংসদে ভাষণের সময় সীমিত সংখ্যক সাংবাদিককে সংসদ ভবনে উপস্থিত থেকে অধিবেশনের সংবাদ সংগ্রহ করার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। অধিবেশনের অন্য কার্যদিবসে সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারিত কার্যক্রম থেকে সংবাদ সংগ্রহ করতে হবে।

এবারের অধিবেশন বেশ সংক্ষিপ্ত হওয়ার কথা রয়েছে। জানা গেছে অধিবেশন ৮ থেকে ১০ কার্যদিবস চলতে পারে। এর মধ্যে আগামীকাল থেকে পরবর্তী চার কার্যদিবস বিশেষ অধিবেশনের অর্থাৎ বঙ্গবন্ধুর ওপর আলোচনাসহ মুজিববর্ষের বিভিন্ন কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। বাকি কার্যদিবসে সংসদের সাধারণ কার্যক্রম চলবে বলে সংসদ সচিবালয় থেকে জানা গেছে।

১২ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের প্লেয়ার্স ড্রাফট

নিজস্ব প্রতিবেদক : পাঁচটি দলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিতব্য আসন্ন এই টুর্নামেন্টের ড্রাফটে চারটি ক্যাটাগরিতে মোট ১৬০ জন খেলোয়াড় বাছাই করবে দলগুলো।

ক্যাটাগরিগুলো হলো- এ, বি, সি ও ডি। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান। তিনি জানান, আগামী ২১ বা ২২ নভেম্বর টুর্নামেন্ট শুরুর পরিকল্পনা করছে বিসিবি। আকরাম খান বলেন, খুব সম্ভবত আমরা ১২ নভেম্বর প্লেয়ার্স-ড্রাফট আয়োজন করবো। এজন্য ১৬০ জন খেলোয়াড়ের তালিকা করেছি। ৯ ও ১০ নভেম্বর ফিটনেস পরীক্ষা দিবে খেলোয়াড়রা।

স্পন্সর বিষয়ে ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান বলেন, টুর্নামেন্টের স্পন্সর চূড়ান্ত হয়ে গেছে। তবে এখনও কিছু আনুষ্ঠানিকতা বাকী। সেগুলো চূড়ান্ত হলে, আমরা সবকিছু জানাবো।

টুর্নামেন্টের ব্যাপারে আকরাম খান আরও বলেন, খুব সম্ভবত ২১ বা ২২ নভেম্বর টুর্নামেন্ট শুরু করার পরিকল্পনা আছে আমাদের। এ, বি, সি ও ডি- এই চার ক্যাটাগরি করে আমরা প্লেয়ার দিচ্ছি। যেখানে আইকন খেলোয়াড় থাকবে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে। এই ক্যাটাগরিতে পারিশ্রমিক ১৫ লাখ টাকার বেশি হবে। তবে এখনও সবকিছু চূড়ান্ত হয়নি।

এই টুর্নামেন্টে প্রতিটি দলের কোচিং স্টাফও বিসিবি ঠিক করে দিচ্ছে জানিয়ে আকরাম বলেন, আমরা ক্রিকেট বোর্ড থেকেই সবকিছু ঠিক করে দিচ্ছি। বিদেশিদের সঙ্গে দেশি অনেক কোচ-ট্রেইনার-ফিজিও-ফিল্ডিং কোচ-বোলিং কোচ আছে। প্রত্যেকটা দলকে একটা করে দেশি কোচও দেয়া হচ্ছে। তারা টিমের সাথেই থাকবে। নির্দিস্ট হোটেলে খেলোয়াড়-স্টাফরা একত্রে জৈব-সুরক্ষা বলয়ের মধ্যেই থাকবেন বলে জানান ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান।

বিশ্বের দরবারে আমেরিকাকে আবার সম্মানজনক জায়গায় নিতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক বাইডেনের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে বিজয় ঘোষণা করেছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। শনিবার বাংলাদেশ সময় রাতে তিনি নিজের জয় ঘোষণা করে। জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক দিয়ে তিনি বলেন, ‘লাল বা নীল রাজ্য নয়, কেবলমাত্র আমেরিকা’। আমেরিকাকে বিশ্বের দরবারে ফের সম্মানজনক জায়গায় নিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর বলেও জানান বাইডেন।

বাইডেন বলেন, জাতির লোকেরা কথা বলেছে। তারা আমাদের একটি সুস্পষ্ট এবং প্রত্যয়ী বিজয় উপহার দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ডেলাওয়ার অঙ্গরাজ্যের উইলমিংটনে বিজয়ী ভাষণে এসব কথা বলেন তিনি।

একই সঙ্গে দীর্ঘ পাঁচ দশকের রাজনৈতিক জীবনে প্রেসিডেন্ট হওয়ার যে স্বপ্ন ছিল সেটি পূরণ হচ্ছে বলেও জানান বাইডেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে উদ্দীপ্ত এক ভাষণে তিনি যারা তাকে ভোট দিয়েছেন, যারা তাকে ভোট দেননি, ডেমোক্র্যাট, রিপাবলিকান সবাইকে শত্রুতা ভুলে সহযোগিতার সম্পর্ক তৈরির আহবান জানান।

তিনি ঐক্য শব্দটির উপর বারবার বিশেষ গুরুত্ব দেন। যুক্তরাষ্ট্রে সাম্প্রতিক সময় যে ধরনের বিভেদ ও তিক্ততা তৈরি হয়েছে সেদিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করছিলেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘আমরা কি হতে চাই সে নিয়ে জোরালো সিদ্ধান্ত নেবার সময় এসেছে। আমরা যদি একে অপরকে সহযোগিতা না করার সিদ্ধান্ত নিতে পারি, তাহলে সহযোগিতা করার সিদ্ধান্তও নিতে পারি।’

ডোনাল্ড ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘আমিও বেশ কয়েকবার হেরেছি, আমি আপনার হতাশা বুঝতে পারছি।’

দেশটিতে পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গদের মৃত্যুকে ঘিরে সহিংস আন্দোলন, করোনাভাইরাসে বিশ্বের সবচাইতে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যুর অভিজ্ঞতা না ভুলে নতুন সমাজ গড়তে সেই অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিতে বলেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ম অনুযায়ী ২০২১ সালের ২০ জানুয়ারি শপথের পর দায়িত্ব নেবেন। এর মাধ্যমে ৭৭ বছর বয়সি বাইডেন হোয়াইট হাউজে প্রথম মেয়াদে সবচেয়ে বয়স্ক প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন।

এর আগে শুক্রবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল নিশ্চিত হওয়ার আগে এক ভাষণে বাইডেন বলেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেশের প্রতিটি মানুষের জন্য আমি কাজ করব। সে আমাকে ভোট দিক আর না-ই দিক। কারণ আমরা কেউ কারও শত্রু নই। আমরা সবাই মার্কিন নাগরিক।

তিনি বলেন, ‘মানুষ পরিবর্তনের পক্ষে ভোট দিয়েছে। মহামারি করোনা, জলবায়ুর পরিবর্তন, বর্ণবিদ্বেষ প্রভৃতির বিরুদ্ধে কাজ করার জন্য জনতা এই রায় দিয়েছে। আমরা চূড়ান্ত ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করছি মাত্র। তবে আমরা বসে নেই। ইতিমধ্যেই আমরা কাজ শুরু করে দিয়েছি।

বাইডেন তার বক্তৃতায় বলেন, জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে আমরা বৈঠক করেছি। দেশে করোনার সংক্রমণ মারাত্মক হারে বেড়ে চলেছে। প্রথম দিন থেকে আমরা করোনার সংক্রমণ মোকাবিলায় কোমর বেঁধে নামব। প্রত্যেকটা জীবন বাঁচানোই আমাদের লক্ষ্য।

পরিকল্পনার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘দেশের অর্থনীতিকে কীভাবে চাঙ্গা করে তোলা যায়, তার পরিকল্পনাও চলছে। তবে আমাদের এখনও একটু ধৈর্য ধরতে হবে। কারণ সব ভোট গোনা শেষ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। ভোট গণনায় অনেকে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করবেন। আমরা তা হতে দেব না।’

তবে বাইডেনের বিজয় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পরও হাল ছাড়েননি বর্তমান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি এরই মধ্যে আইনী লড়াইয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

এর চেয়ে গর্বের আর কিছু নেই : ওবামা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : হোয়াইট হাউসের নতুন কর্তা জো বাইডেন ও ভাই প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে অভিনন্দন জানিয়েছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

টুইটবার্তায় ডেমোক্র্যাট দলের সাবেক এই প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘বন্ধু ও যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে অভিনন্দন।’

এ সময় এ সম্পর্কিত একটি বিবৃতির ছবিও পোস্ট করেন ওবামা। যেখানে তিনি লেখেন, ‘আমাদের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেনকে অভিনন্দন জানানোর চেয়ে গর্বের আর কিছু নেই।’

এদিকে, প্রেসিডেন্ট বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বিশ্ব নেতারা। যুক্তরাজ্য, কানাডা, নরওয়ে ও পর্তুগালের প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে ভারতের কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীও অভিনন্দন জানান তাদের।

শনিবার রাতে এক টুইট বার্তায় রাহুল গান্ধী লেখেন, ‘প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে অভিনন্দন। আশা করি তিনি যুক্তরাষ্ট্রকে ঐক্যবদ্ধ করবেন এবং সঠিক পথে পরিচালিত করবেন’।

আবারও বাড়ছে স্বর্ণের দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক : আমেরিকার নির্বাচনী উত্তাপের মধ্যে বিশ্ববাজারে আবারও বেড়েছে স্বর্ণের দাম। গত এক সপ্তাহে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম বেড়েছে প্রায় ৪ শতাংশ। এতে ১৯৫০ ডলার ছাড়িয়ে গেছে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম। আর এর ফলে চলতি সপ্তাহে দেশের বাজারেও বাড়বে স্বর্ণের দাম। বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস) সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়াল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আমেরিকার নির্বাচন নিয়ে একধরনের উত্তেজনা ও অনিশ্চয়তা বিরাজ করছে। ডলারের দরপতন হয়েছে। এ কারণে হঠাৎ করে স্বর্ণের দামে বড় উত্থান হয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম বাড়ার এটিই একমাত্র প্রধান কারণ।

দিলীপ কুমার আগরওয়াল আরও বলেন, বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম বাড়ার কারণে দেশের বাজারেও স্বর্ণের দাম বাড়ানো হবে। দু-একদিনের মধ্যে স্বর্ণের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। নতুন করে প্রতি ভরিতে স্বর্ণের দাম আড়াই হাজার টাকার মতো বাড়ানো হতে পারে।

তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত সপ্তাহের শুরুতে বিশ্ববাজারে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ছিল ১৮৭৮ ডলার। দফায় দফায় বেড়ে সপ্তাহ শেষে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম হয়েছে এখন ১৯৫১ দশমিক ৭০ ডলার। এতে সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম বেড়েছে ৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ বা ৭৩ ডলার।

আর এর ফলে দুই মাসের মধ্যে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম সর্বোচ্চ পর্যায়ে উঠে এসেছে। সেইসঙ্গে গত জুলাইয়ের পরে এই প্রথম এক সপ্তাহে স্বর্ণের দাম বাড়ল প্রায় ৪ শতাংশ।

এর আগে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম অস্বাভাবিকভাবে কয়েক দফা বাড়ায় সর্বশেষ গত ১৫ অক্টোবর দেশের বাজারেও স্বর্ণের দাম বাড়ানো হয়। এ দফায় ভালো মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) স্বর্ণের দাম ২ হাজার ৩৩৩ টাকা বাড়িয়ে ৭৬ হাজার ৩৪১ টাকা নির্ধারণ করা হয়। ২১ ক্যারেটের স্বর্ণ ৭৩ হাজার ১৯২ টাকা, ১৮ ক্যারেটের স্বর্ণ ৬৪ হাজার ৪৪৪ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণ ৫৪ হাজার ১২১ টাকা নির্ধারণ করা হয়। বর্তমানে এ দামেই স্বর্ণ বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে স্বর্ণের দামের বড় উত্থানের সঙ্গে সঙ্গে বিশ্ববাজারে উত্থান হয়েছে রুপার দামেও। গত এক সপ্তাহে ৮.০৬ শতাংশ দাম বেড়ে প্রতি আউন্স রুপার দাম হয়েছে ২৫.৫৩ ডলার। এর মাধ্যমে গত আগস্টের পর এই প্রথম এক সপ্তাহে রুপার দাম বাড়ল ৮ শতাংশের ওপর।

মিরপুরের রুপনগরে ইসলামী ব্যাংকের উপশাখা উদ্বোধন

ডেস্ক রিপাের্ট : ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড-এর মিরপুর মহিলা শাখার অধীনে ইস্টার্ণ হাউজিং উপশাখা সম্প্রতি মিরপুরের রুপনগরে উদ্বোধন করা হয়। ব্যাংকের ডেপুটি ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মোঃ মোশাররফ হোসাইন প্রধান অতিথি হিসেবে এ উপশাখা উদ্বোধন করেন।

ব্যাংকের ঢাকা সেন্ট্রাল জোনপ্রধান মোঃ আলতাফ হুসাইন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। স্বাগত বক্তব্য দেন ব্যাংকের মিরপুর মহিলা শাখাপ্রধান হাসনে আরা বেগম। আরো বক্তব্য দেন ব্যবসায়ী মোঃ আহসান হাবীব ও মোঃ নুরুল ইসলাম। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন উপশাখা ইনচার্জ কাজী মোহাম্মদ সেলিম। স্থানীয় ব্যবসায়ী, পেশাজীবী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ভারী অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে আমেরিকার রাস্তায় ট্রাম্প সমর্থকদের মহড়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সশস্ত্র সমর্থকরা দেশটির বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের রাজপথে নেমে মহড়া দিচ্ছে। জর্জিয়া, অ্যারিজোনা ও পেনসিলভানিয়ার মতো যেসব দোদুল্যমান রাজ্যে জো বাইডেন হাড্ডহাড্ডি লড়াইয়ের পর জয়লাভ করেছেন সেসব অঙ্গরাজ্যের রাস্তায় এ ধরনের সশস্ত্র ট্রাম্প সমর্থককে মহড়া দিতে দেখা গেছে।

স্কাই নিউজের বিশেষ প্রতিনিধি অ্যালেক্স ক্রফোর্ড ছবিসহ এ ধরনের ভারী অস্ত্রে সজ্জিত মানুষের ছবি প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, সশস্ত্র ব্যক্তিরা বলছিল, তারা যুদ্ধে যাচ্ছে বলেই তাদের কাছে ভারী অস্ত্র রয়েছে।

জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের ভারী অস্ত্রে সজ্জিত এসব মানুষ বলছিল, নিরাপত্তাগত কারণে এবং ‘বাইডেনের হাত থেকে আমেরিকাকে রক্ষা করতেই’ তারা অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছে। ট্রাম্পের এসব সমর্থকের কেউ কেউ ‘বাইডেন দেশকে ধ্বংস করে ফেলবেন’ বলেও অভিযোগ করেন।

অ্যারিজোনা ও পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের রাজপথ থেকেও একই ধরনের দৃশ্য চোখে পড়ার খবর এসেছে।

রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের পর শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হন ডেমোক্র্যাটদলীয় প্রার্থী জো বাইডেন।

ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি প্রতিদ্বন্দ্বিতার পর ৫৩৮ ইলেকটোরাল ভোটের মধ্যে ম্যাজিক সংখ্যা ২৭৩টি নিশ্চিত করেছেন তিনি। শনিবার পেনসিলভানিয়ার ২০টি ইলেকটোরাল ভোট জয়ের মধ্য দিয়ে তার ২৭৩টি ইলেকটোরাল ভোট নিশ্চিত হয়। প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য তার প্রয়োজন ছিল ২৭০টি ইলেকটোরাল ভোট।

শনিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল ঘোষিত হলেও ট্রাম্প এখানো আনুষ্ঠানিকভাবে তা মেনে নেননি। তিনি বরং উল্টো আইনি লড়াই করার হুমকি দিয়েছেন।- পার্সটুডে

শেষ পর্যন্ত বাইডেন বিজয়ী, শিক্ষিকা জিল হচ্ছেন ফার্স্টলেডি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী জো বাইডেন বিজয়ী হয়েছেন। এর ফরে তিনি আমেরিকার ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন। বিশেষ কোনো আইনগত জটিলতা সৃষ্টি না হলে তিনি আগামী জানুয়ারি মাসে ক্ষমতা গ্রহণ করবেন।

পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যে ট্রাম্পকে পেছনে ফেলে জয় পাওয়ার পর বাইডেনের বিজয় নিশ্চিত হয়। ওই রাজ্যে বিজয়ের পর প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ২৭০টির বেশি ইলেকটোরাল ভোট সংগ্রহ হয়। তিনি এ পর্যন্ত ২৭৩টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়েছেন।

গত তিনদিন ধরে দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর ভাগ্য অনেকটা পেন্ডুলামের মতো দুলেছে। কখনো ট্রাম্প এগিয়ে আবার কখনো বাইডেন। তবে শেষ হাসি বাইডেনই হাসলেন। জর্জিয়া, নেভাদা ও অ্যারিজোনাতেও বাইডেন এগিয়ে রয়েছেন।
এদিকে, ট্রাম্প শিবির থেকে বলা হচ্ছে- “নির্বাচন শেষ হয়ে যায় নি। প্রেসিডেন্ট পরাজয় মেনে নিতে রাজি নন।” এর আগে ট্রাম্প নিজেকে বিজয়ী বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন।

৭৭ বছর বয়সে জো বাইডেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন যা দেশটির ইতিহাসে প্রথম। এছাড়া, তার রানিং মেট কমলা হ্যারিস হচ্ছেন আমেরিকার প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট।

আগামী জানুয়ারি মাসে যখন বাইডেন প্রেসিডেন্ট হিসেবে হোয়াইট হাউজে প্রবেশ করবেন তখন তার সঙ্গে ফার্স্টলেডি হিসেবে থাকবেন জিল বাইডেন। তিনি এতদিন পেশায় শিক্ষিকা ছিলেন। জিল হচ্ছেন বাইডেনের দ্বিতীয় স্ত্রী। ১৯৭২ সালে বাইডেনের প্রথম স্ত্রী গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত হলে জিলকে বিয়ে করেন। ৬৯ বছর বয়সী জিল বাইডেন কয়েক দশক ধরে শিক্ষকতার পেশায় ছিলেন।- পার্সটুডে