এবার ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করল সুদান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের পর ইহুদি রাষ্ট্র ইসরায়েলের সঙ্গে এবার আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে রাজি হয়েছে সুদান। শুক্রবার হোয়াইট হাউসে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণ নিয়ে দেশ দুটির ঐকমত্যের ঘোষণা দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ইসরায়েলের সঙ্গে সুদানের সম্পর্ক স্থাপনের ব্যাপারটি ভালোভাবে নিচ্ছে না ফিলিস্তিন। দেশটির নেতারা বলছেন, ‘এটা তাদের পিঠে ছুরি মারা’।

মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু এবং সুদানের প্রধানমন্ত্রী আব্দেল্লা হামদক ও দেশটির ট্রানজিশনাল কাউন্সিলের প্রধান আব্দেল ফাত্তাহ-আল-বুরানের সঙ্গে ফোনালাপের দেশ দুটির ঐকমত্যের ঘোষণা দেন ট্রাম্প।

সুদান-ইসরায়েলের সম্পর্ক স্থাপন নিয়ে তিন দেশের এক সম্মিলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “নেতারা সুদান ও ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে এবং নিজেদের মধ্যে বিবাদমান যুদ্ধাবস্থার ইতি টানতে একমত হয়েছেন।”

বিবৃতিতে ট্রাম্প আরও বলেছেন, তার প্রত্যাশা আসছে মাসগুলোতে সৌদি আরবসহ ফিলিস্তিন ও অন্যান্য দেশগুলোও ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ করার ব্যাপারে রাজি হবে।

“এটা হবে তৃতীয় দেশ (সুদান) যাদের সঙ্গে এটা করছি। এমন আরও অনেক দেশের ঘোষণা আসছে।”

গত দুই মাসের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করা তৃতীয় আরব দেশ হলো সুদান। এর আগে ইহুদি রাষ্ট্রটির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন। ৩ নভেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পুনরায় নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা জোরালো করতেই ট্রাম্প এসব প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন বলে বিশ্লেষকদের ধারণা।

ইসরায়েল-সুদানের সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণ চুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছে আরব আমিরাত। তারা বলছে, “এই অঞ্চলের নিরাপত্তা ও উন্নতি আরও শক্তিশালীকরণে এটা গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

এদিকে, সুদানের ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র মন্ত্রী ওমর গামারেলদিন রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে জানিয়েছেন, ইসরায়েলের সঙ্গে তারা সম্পর্ক স্থাপনের চুক্তি করলেও আইনসভা গঠিত হলে সেখানে এটা পাস হতে হবে।

সামরিক কর্মকর্তা এবং বেসামরিক নাগরিকদের মধ্যে ক্ষমতা-বণ্টনের ভিত্তিতে সুদান এখনো আইন পরিষদ গঠন করতে পারেনি। রাজনৈতিক ব্যাপক অস্থিতিশীলতার পর ২০১৯ সালে ওমর আল-বশিরের ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর থেকে একটি অন্তবর্তীকালীন সরকার দেশটি শাসন করে আসছে। নতুন আইন পরিষদ কবে গঠিত হবে এর কোনো নিশ্চয়তা নেই।

জয় পরাজয় আরো খবর