২৫ হাজার টাকা জামানত রেখে জামিন পেয়েছেন সাংবাদিক আরিফুল

ডেস্ক রিপাের্ট : জামিনে মুক্তি পেয়েছেন মাদকদ্রব্য রাখার অভিযোগে মধ্যরাতে নিজ বাড়িতে গ্রেপ্তার হওয়া কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগান। মুক্তি পাওয়ার পর তাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার সকাল ১০ টার দিকে কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুজাউদ্দৌলা তাকে জামিন দেন। জামিন পাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে তাকে জেল থেকে মুক্তি দেয়া হয়। তার স্ত্রী ও সাংবাদিকরা তাকে কারাফটকে বরণ করে নেন।

জামিনের বিষয়টি নিশ্চিত করে আরিফুল ইসলামের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শাখাওয়াত হোসেন জানান, ২৫ হাজার টাকা জামানত রেখে আরিফকে জামিন দেয়া হয়েছে। তবে মামলাটির আপিল চলমান।

তবে আরিফের বোন রিমা আক্তার জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে জামিনের বিষয়টি তারা মেনে নিতে পারছেন না। তারা জামিন আবেদন করেননি। তারা আরিফের নিঃশর্ত মুক্তি চান।

কুড়িগ্রামে জেলা প্রশাসকের সমালোচনা করে সংবাদ প্রকাশের ১০ মাস পর মাদক রাখার অভিযোগে আরিফুলকে শুক্রবার মধ্যরাতে দরজা ভেঙে বাসা থেকে তুলে নিয়ে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিল ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়।

তবে মাদকবিরোধী টাস্কফোর্সের অভিযানে মাদকসহ আরিফুলকে আটক করা হয় বলে দাবি করেছিলেন ‘অভিযান’ পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমা।

শহরের একটি সরকারি পুকুর সংস্কারের পর জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন নিজের নামানুসারে ‘সুলতানা সরোবর’ নামকরণ করতে চেয়েছিলেন উল্লেখ করে দশ মাস আগে বাংলা ট্রিবিউনে সংবাদ করেছিলেন আরিফুল। পরিবারের দাবি, এর জেরেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আরিফুলের গ্রেপ্তার প্রক্রিয়া নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকে প্রশ্ন তুলেন। সমালোনা করেন জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনের।

জয় পরাজয় আরো খবর