ভােট কেন্দ্রে বিএনপির হামলার শঙ্কায় ভোটার আসেনি : বললেন তথ্যমন্ত্রী

ডেস্ক রিপাের্ট : উপমহাদেশের মানদণ্ডে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচন সবচেয়ে ভালো ভোট হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, নির্বাচনের দিন বিএনপির লোকেরা হামলা করবে, এই আশঙ্কা থেকে সিটি নির্বাচনে ভোটাররা ভোট দিতে কেন্দ্রে আসেনি।

বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজশাহী শিল্পকলা একাডেমিতে জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি শুরু থেকেই ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) বিরুদ্ধে যেভাবে প্রচারণা চালিয়েছে এতে সাধারণ ভোটাররা বিভ্রান্ত হয়েছে। এটা হলে আরও ৮-১০ শতাংশ ভোট বেশি পড়ত।

তিনি বলেন, বিএনপি প্রথম থেকেই বলেছে সিটি নির্বাচন হচ্ছে তাদের আন্দোলনের অংশ। আর বিএনপির আন্দোলন মানেই ‘জ্বালাও-পোড়াও’ এটি মানুষ খুব ভালো করে জানে। ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনে পাঁচটি ভোট কেন্দ্র জ্বালিয়ে দিয়েছিল তারা। প্রিজাইডিং অফিসার থেকে শুরু করে ভোটারদের পর্যন্ত হত্যা করেছে। তাই বিএনপি যখন এই নির্বাচনকে আন্দোলনের অংশ হিসেবে ঘোষণা দেয়, তখন থেকেই মানুষ হামলার আশঙ্কা করেন। আর সেই হাঙ্গামার আশঙ্কার কারণেই ভোটাররা ভোট দিতে আসেনি।

মন্ত্রী বলেন, জনসংখার দিক থেকে ঢাকা বিশ্বের অন্যতম একটি শহর। ঢাকা শহরে প্রায় ৫৫ লাখ ভোটার আছেন। এত ভোটারের শহরে নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা সহজ কথা নয়। এজন্য নির্বাচন কমিশন (ইসি) ধন্যবাদ পাওয়ার অধিকার রাখে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত কমিটির এটাই প্রথম প্রতিনিধি সভা। এ সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেরাজ উদ্দিন মোল্লা ও সভা পরিচালনা করেন জেলার সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ দারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন— জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

জয় পরাজয় আরো খবর