নূর হোসেনকে কটাক্ষকারীদের ক্ষমা নেই – বললেন ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গার উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ৯০-এর স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে শহীদ নূর হোসেনকে কটাক্ষ করলে জনগণ ক্ষমা করবে না। একবার মুখ ফসকে গেলে যতই ‘সরি’ বলুন কোনো কাজে আসবে না।

মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ও নূর হোসেনকে নিয়ে কেউ কেউ কটাক্ষ করছেন। এ ধরনের কটাক্ষ রাজনৈতিক অনুভূতিতে আঘাত করে। অনেকেই শেখ হাসিনা সম্পর্কে ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। এরকম বক্তব্য সহ্য করা হবে না।

তিনি বলেন, নূর হোসেনকে হত্যার মধ্য দিয়ে গণতন্ত্রকে হত্যার চেষ্টা কারা করেছিলেন সেটা জাতি জানে। সেই নূর হোসেনকে অশ্রাব্য ভাষায় কটাক্ষ করা হয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার আদালতে অক্সিজেন নিয়ে যারা রাজনীতিতে অস্তিত্ব খুঁজে পেয়েছে তারা আজ নেত্রীকে কটাক্ষ করে। কথা মুখ থেকে একবার ফসকে গেলে আর ফিরে আসে না, যতো সরিই বলুন না কেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পুরস্কৃত করছিল। যার ধারাবাহিকতায় ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট তারা গ্রেনেড হামলা চালিয়ে শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করেছিল। বারবার তারা শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করেছে। এখনও বলা হয়, ‘মুজিব গেছে যেই পথে, হাসিনা যাবে সেই পথে।’ এই রকম ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য বিএনপি দিয়ে যাচ্ছে। আমরা অনেক ধৈর্য ধরেছি, আর নয়।

উল্লেখ্য, গত রোববার (১০ নভেম্বর) গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে জাতীয় পার্টির মহানগর উত্তর শাখার উদ্যোগে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় নূর হোসেনকে ইয়াবা-ফেনসিডিলখোর বলে মন্তব্য করেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা। তার এই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এরইমধ্যে নিজের বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা চেয়েছেন রাঙ্গা।

সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ. ফ. ম. বাহাউদ্দীন নাছিম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নির্মূল রঞ্জন গুহ ও সদস্য সচিব গাজী মেসবাউল হোসেন সাচ্চু প্রমুখ।

জয় পরাজয় আরো খবর