adv
৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংলাপ থেকে ‘ওয়াক আউট’ করবে বিএনপি?

ডেস্ক রিপোর্ট : সংলাপের স্বস্তির মধ্যেই বিএনপি শিবির থেকে অশান্তির বার্তা আসছে। আজ মানববন্ধনের পর বিএনপির তরুণ নেতাদের চাপের মুখে বিএনপির শীর্ষ নেতারা আশা দিয়েছেন যে, তারা সংলাপ প্রলম্বিত হতে দেবেন না। যদি প্রধানমন্ত্রী ৭ দফা নীতিগতভাবে মেনে না নেন, তাহলে বিএনপির অংশগ্রহণকারীরা সংলাপ থেকে বেরিয়ে আসবেন। এরপর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই বিএনপি চূড়ান্ত আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করবে। এমনকি হরতাল, ঘেরাও এর মতো কর্মসূচি দিতেও তাঁরা পিছপা হবে না।

আজ সকালে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপি দেশব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। ঢাকায় কেন্দ্রীয়ভাবে এই মানববন্ধন পালিত হয় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে। ঢাকার কর্মসূচি শেষে সংলাপ বিরোধি নেতারা দলের মহাসচিব এবং স্থায়ী কমিটির সদস্যদের কাছে কর্মসূচি দাবি করেন। দলের একাধিক নেতা প্রশ্ন করেন, এই সংলাপ সংলাপ খেলা কতদিন চলবে? আপনারা কি ম্যাডামকে ছাড়া নির্বাচনের পাঁয়তারা করছেন?

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, তরুনদের শান্ত করে বলেন,‘ আমরা সংলাপে যাচ্ছি ৭ দফার ভিত্তিতে। সেখানে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির প্রসঙ্গটি আছে।’ তিনি বলেন,‘ ৭ দফা নীতিগত ভাবে মেনে নিলেই কেবল আলোচনা এগুবে।’ ড. খন্দকার মোশাররফ বলেন‘, প্রয়োজনে আমরা সংলাপ থেকে ওয়াক আউট করবো।’ কর্মীদের চাপের মুখেই স্থায়ী কমিটির নেতারা মানববন্ধনের পর দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বৈঠক করেন। সেখানে বিএনপি সংলাপের ব্যাপারে ৩ টি নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছে।

১. সংলাপে বেগম খালেদা জিয়া মুক্তির প্রসঙ্গটিকে সবচেয়ে গুরুত্ব দেওয়া হবে। অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানানো হবে সংলাপের শুরুতেই।

২. ৭ দফা দাবির প্রথম দফায় কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।

৩. সংলাপকে দীর্ঘ করা যাবে না, এটা যেন কালক্ষেপনের কৌশল না হয়।

নয়াপল্টনের কার্যালয় থেকেই বিএনপি মহাসচিব টেলিফোনে কথা বলেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে। ড. কামাল হোসেনকে তাঁরা বিএনপির মনোভাব জানান। ড. কামাল বলেন, ‘আমরা আগে যাই, দেখি তারপর এসব প্রসঙ্গ আসবে।’

উল্লেখ্য এর আগে গতকাল ড. কামাল হোসেনের মতিঝিলের চেম্বারের বৈঠকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যে তারা সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে সংলাপ করবে। উভয়পক্ষকে ছাড় দেয়ার মানসিকতার কথাও বলা হয়েছিল। কিন্তু আজ বিএনপির নেতারা স্পষ্ট করেই বলেছেন `শেখ হাসিনার অধীনে বিএনপি কোন নির্বাচনে যাবে না।` অথচ এই সংলাপে যার যাই হোক এই প্রস্তাবে আওয়ামী লীগ রাজী হবে না। সেক্ষেত্রে এই সংলাপ কি সদ্যজাত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেও ভাঙ্গন ধরাবে? জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা অবশ্য এমনটি মনে করেন না। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, `সংলাপ নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কোন বিভেদ নেই, হতাশাও নেই। আমরা মনে করি সংলাপের মধ্য দিয়ে একটা সমাধানের পথ বেরিয়ে আসবে। -বাংলা ইনসাইডার

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
October 2018
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া