adv
২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সাংবিধানিক ক্যু-এর কথা স্বীকার করলেন সিনহা

ডেস্ক রিপাের্ট : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক আশ্রয়ের জন্য দেশটির ‘অ্যানেক্সি’ ফরমে বাংলাদেশে সাংবিধানিক ক্যু-এ জড়িত থাকার লিখিত স্বীকারোক্তি দিয়েছেন পদত্যাগী সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।

সম্প্রতি এস কে সিনহা ‘এ ব্রোকেন ড্রিম: রুল অব ল’, হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেমোক্রেসি’ এর মোড়ক উন্মোচন করেন। সেখান থেকে যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করেন সাবেক এই প্রধান বিচারপতি। প্রতিটি রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনার পর যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়টি নিয়ে অনুসন্ধান করে। প্রাথমিক অনুসন্ধানের বাতিল হয়ে গেলে সেখানেই শেষ রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন। তবে প্রাথমিক অনুসন্ধান শেষে রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনার বিষয়ে অধিকতর অনুসন্ধানের জন্য আরও তথ্য চায়। এই তথ্য চাওয়া হয় ‘অ্যানেক্সি’ ফরমে। সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকেও এই অ্যানেক্সি ফর্ম পূরণ করতে বলা হয়। ফরমে ৭- ৮ টি প্রশ্ন ছিল। প্রশ্নগুলোর মধ্যে ছিল, কেন সরকার তাঁর ওপর ক্ষিপ্ত, তাঁর কোনো রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা ইত্যাদি। এ সময় সুরেন্দ্র কুমারের পক্ষ থেকে ষোড়শ সংশোধনী রায় দেওয়ার পরের পরিস্থিতি কথা উল্লেখ করা হয়। এ পর্যায়ে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর থেকে জানতে চাওয়া হয়, এই রায়তো তিনি একা দেননি, অন্য কয়েকজন বিচারক এতে যুক্ত ছিলেন। তাঁদের কোনো সমস্যা না হয়ে শুধু তাঁর একাই কেন সমস্যা হচ্ছে।

এরপরই সুরেন্দ্র কুমার সিনহা মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরকে জানান, ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রয়েছে। তিনি সংবিধানের আলোকে গণতন্ত্র পুনপ্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করেছিলেন। এস কে সিনহা বলেন, ষোড়শ সংশোধনীর আলোকে বর্তমান সংসদকে অবৈধ এবং নির্দলীয়, নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ফিরিয়ে আনার জন্য তিনি, ড. কামার হোসেনের সঙ্গে কাজ করেছেন।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরে লিখিত দেওয়ার মধ্যে দিয়ে সুরেন্দ্র কুমার সিনহা নিজেই স্বীকার করলেন যে, সাংবিধানিক ক্যু-এর সঙ্গে তিনি এবং ড. কামাল জড়িত ছিলেন। একই সঙ্গে এর মাধ্যমে আরও প্রমাণ হলো, ষোড়শ সংশোধনী রায় মূল ব্যাপার ছিল না। এই রায়ের মাধ্যমে বর্তমান সংসদকে অবৈধ ঘোষণা করা এবং নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ফিরিয়ে আনার চক্রান্ত হয়েছিল। এই চক্রান্তের কথা জানার পর এবং সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিরুদ্ধে তদন্তের অভিযোগগুলোর বিষয়ে হাতেনাতে প্রমাণ পাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতেই তাঁকে সরে যেতে হয়েছে। -বাংলা ইনসাইডার

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
October 2018
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া