adv
২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সংসদে প্রধানমন্ত্রী- নোটিশ পেলে প্রতিরক্ষা বিষয়ক সব চুক্তি সংসদে উপস্থাপন করা হবে

hasinaডেস্ক রিপাের্ট : নোটিশ পেলে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে সম্পাদিত সব সামরিক চুক্তি ও সমাঝোতা স্মারক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংসদে উপস্থাপন করা হবে, বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার সংসদে সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য ফজিলাতুন নেসা বাপ্পির সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এ কথা জানান।

এসময় সংসদ নেতা শেখ হাসিনা প্রতিরক্ষা বিষয়ে সমঝোতা স্মারক বা চুক্তি সম্পাদিত কয়েকটি দেশের নাম উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ‘অন্যান্য দেশের সঙ্গে সম্পাদিত চুক্তির বিষয়ে ডিটেইল জানতে চাইলে আমি সব দিতে পারব। আরেকবার নোটিশ দিলে পার্লামেন্টে উপস্থাপন করবো।’

বাপ্পি তার সম্পূরক প্রশ্নে ভারত ছাড়া অন্য কোনও দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা বিষয়ে সমাঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে কি না তা জানতে চান। চীনের সঙ্গে এ বিষয়ে কী চুক্তি ছিলো বিষয়টি জানাতে তিনি সংসদ নেতাকে অনুরোধ করেন। জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এ ধরনের সমঝোতা স্মারক এবং চুক্তি আমাদের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে রয়েছে। চীন, রাশিয়া, কুয়েত, কাতারসহ বিভিন্ন দেশের সঙ্গে ডিফেন্সের চুক্তি আছে। তবে চীনের সঙ্গে সমাঝোতা চুক্তিটি বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে হয়। এই চুক্তির বিষয়ে একটি কথাও তারা বাংলাদেশের কাউকে জানতে দেয়নি। তারা সংসদেও এই চুক্তির বিষয়টি জানায়নি।’

এর আগে বাপ্পির প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ভারত সফরে করা কোনও চুক্তি/সমঝোতা স্মারকই দেশের স্বার্থবিরোধী নয়। তাই ভারতের সঙ্গে দেশের স্বার্থবিরোধী চুক্তি সম্পাদন হয়েছে- এ ধরনের বিবৃতি সম্পূর্ণ অসত্য, মনগড়া, অবিবেচনা প্রসূত এবং বাংলাদেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করার প্রচেষ্টা মাত্র। বাংলাদেশ একটি স্বাধীন, সার্বভৌম এবং আত্মমর্যাদা সম্পন্ন দেশ। দেশের স্বার্থবিরোধী কোনও চুক্তি আওয়ামী লীগ সরকার করবে না।’

জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমামের প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশের স্বার্থে আমি বিভিন্ন দেশে সফর করি। সেখানে অনেক চুক্তি বা সমাঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করি আর যা কিছু করি দেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করে দেশের মানুষকে সুন্দর জীবন দেওয়ার জন্য। হয় ভারতের সঙ্গে আমাদের যেসব চুক্তি বা সমঝোতা স্মারক হয়েছে সবগুলি দেশের উন্নয়নেকে ত্বরান্বিত করার জন্য করা হয়েছে। এসব চুক্তির ফলে দেশের উন্নয়ন আরও ত্বরান্বিত হবে।’
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বুধবার সংসদ অধিবেশনের শুরুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া