adv
২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যেভাবেই হোক ইন্টারনেটের দাম কমাবো: তারানা

TARANAনিজস্ব প্রতিবেদক : ইন্টারনেটের দাম কমানোর উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। তিনি বলেছেন, ‘এবিষয়ে বিটিআরসি ও সংশ্লিষ্টদের নিয়ে বসে আগামী ছয় মাসের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

২৬ এপ্রিল বুধবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে মোবাইল অপারেটরদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তারানা হালিম। বৈঠকে আইআইভি, আইটিসি, বিএসসিসিএল ওআইএসপিসহ বিভিন্ন মোবাইল অপারেটর প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

তারানা হালিম বলেন, ‘আমি ভ্যাট ট্যাক্স ও রাজস্ব ভাগাভাগি করে, ছাড় দিয়ে হলেও দাম কমাবো। আমি দু-একদিনের মধ্যে এ বিষয়টি নিয়ে অর্থমন্ত্রীকে চিঠি দেবো। যেভাবেই হোক দাম কমাবো। তবে এর ফল পেতে ছয় মাস সময় লাগবে।‘

বাংলাদেশে ইন্টারনেটের মূল্য পৃথিবীর তৃতীয় সর্বনিম্ন জানিয়ে তারপরও ট্যাক্স-ভ্যাট কমিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের পক্ষ থেকে গ্রাহক পর্যায়ে দাম কমানোর চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

তারানা বলেন, ‘ট্যাক্স, ভ্যাটে কিছু করার আছে কি না- সে বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলব। অথবা কিছুটা যদি রেভিনিউ শেয়ারিং মডেল, কস্ট শেয়ারিং মডেলে যদি কস্ট কমানো যায়- সেই বিষয়গুলো এক্সপ্লোর করে আমি বলেছি, দুই দিনের মধ্যে এমএনওরা একটা প্রস্তাব দেবেন। আমরা এখন তৃতীয় সর্বনিম্ন, আমরা সর্বনিম্ন যদি হতে পারি, সেটাই বা কম কিসের। কাজেই সেই মানসিকতা নিয়ে আমরা দেখতে চাই কতদূর করতে পারি।’

প্রসঙ্গত, বর্তমানে বিভিন্ন মোবাইলফোন অপারেটরের ৩০ দিন মেয়াদের এক গিগাবাইট ইন্টারনেট প্যাকেজের গড় দাম ১৮০ থেকে ২২০ টাকা। আর সাত দিন মেয়াদের এক গিগাবাইট প্যাকেজের দাম ৮৯ থেকে ৯৪ টাকা। এই দামের সঙ্গে ১৫ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর, ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক ও ১ শতাংশ সারচার্জ গ্রাহককে দিতে হয়। এ হিসাবে প্রতি ১০০ টাকার ইন্টারনেট সেবা কিনতে গ্রাহককে প্রায় ২২ টাকা কর দিতে হয়। দীর্ঘদিন ধরে এই দাম কমানোর দাবি জানিয়ে আসছেন ভোক্তারা।

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া