adv
২৫শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর ক্ষােভ- হাওরে ক্ষতির পরিমাণ কে মেপেছে

H Hনিজস্ব প্রতিবেদক : অকাল বন্যায় ফসল হারানো হাওর অঞ্চলে ক্ষয়ক্ষতির পরিসংখ্যান নিয়ে যে প্রচার চলছে তাতে ক্ষোভ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৪ এপ্রিল সোমবার সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকের এক অনির্ধারিত আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

হাওর অঞ্চলে মে মাসের দিকে উজানের ঢলে বন্যা হলেও এবার পানি এসেছে অনেক আগে। আর চলতি বছর যে পরিমাণ পানি এসেছে, এর আগে তা কখনও দেখা যায়নি বলে জানিয়েছেন পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ। আগাম বন্যা হওয়ায় হাওরের ধানের প্রায় সব ধ্বংস হয়ে গেছে।

ধান পাকার আগেই তলিয়ে গেছে ফসল এবং এতে বিপুল জনগোষ্ঠী অর্থৈনৈতিক অনিশ্চয়তায় পড়ে গেছে। এই বন্যায় বিশেষ করে সুনামগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোণার হাওর অধ্যুষিত হাজার হাজার হেক্টর জমির ধান পুরোপুরি নষ্ট হয়ে গেছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া, হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার, ও সিলেট জেলাতেও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

FISHগত রবিবার সচিবালয়ে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব মাকসুদুল হাসান খান বলেন, ‘হাওরে বন্যায় মোট এক হাজার ২৭৬ মেট্রিক টন মাছ নষ্ট হয়েছে এবং তিন হাজার ৮৪৪টি হাঁস মারা গেছে।

একই সংবাদ সম্মেলনে কৃষি সচিব মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ্ বলেন, ‘বন্যায় দুই লাখ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে।’

তবে প্রধানমন্ত্রী মনে করেন ক্ষতির এই তথ্য কীভাবে নির্ধারণ হয়েছে। বৈঠকে অংশ নেয়া একজন মন্ত্রী ঢাকাটাইমসকে বলেন, “প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘আপনারা বলছেন হাওরে বন্যায় এত মাছ মরেছে, এত ধান নষ্ট হয়েছে। কিন্তু এই পরিমাণ কে মেপেছে? কীসের ভিত্তিতে এ ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করা হল?’।”

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া