adv
৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঐশ্বরিয়ার ‘আত্মহত্যা’র ভুয়া খবর সোশ্যাল মিডিয়ায়

oishoবিনােদন ডেস্ক : কড়া ডোজের ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। পারিবারিক সমস্যার জেরেই তিনি নাকি সম্প্রতি নিজের জীবন শেষ করতে চেয়েছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়তেই মুহূর্তে তা ভাইরাল হয়ে যায়।

গত কয়েক দিন ধরেই ভারতীয় সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ভাবে ঘুরছে খবরটা। কিন্তু রবিবার রাতে ফ্যাশন ডিজাইনার মণীশ মলহোত্রের জন্মদিনের পার্টিতে অভিষেক বচ্চনের সঙ্গে ঐশ্বরিয়াকে দেখা যায়। সেখানে বেশ হাসিখুশি ছিলেন তিনি। অতিথিদের সঙ্গে ছবি তোলার জন্য হাসি মুখে পোজ দিতেও দেখা যায় বচ্চন-বধূকে।

২ ডিসেম্বর ‘আউটলুক পাকিস্তান’ নামের একটি ওয়েবসাইটে ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে ওই ভুয়ো খবর প্রকাশিত হয়। নির্দিষ্ট কোনও সূত্রের নাম না করে সেখানে সংবাদমাধ্যম থেকে পাওয়া খবর হিসেবে ঐশ্বরিয়ার আত্মহত্যার চেষ্টার সংবাদটি করা হয়। সেখানে লেখা হয়, পারিবারিক সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে বেশ কড়া ডোজের ঘুমের ওষুধ খান ঐশ্বরিয়া। তাকে অচৈতন্য অবস্থায় দেখে পরিবারের লোকজন তড়িঘড়ি চিকিৎসক ডেকে আনেন। শেষে পাকস্থলী পরিষ্কার করে তাকে বাঁচিয়ে তোলা হয়। কিন্তু এই খবরের সত্যতা অন্য কোথাও স্বীকার করা হয়নি।

বচ্চন পরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানানো হয়েছে, এ খবর সম্পূর্ণ মিথ্যা। এমন কোনও ঘটনাই ঘটেনি। পাশাপাশি, মণীশের জন্মদিনে রবিবার ঐশ্বরিয়াকে ভীষণ ভালো মেজাজে দেখা গিয়েছে।

ওই অনুষ্ঠানে হাজির একজন জানিয়েছেন, তিনি রবিবার প্রায় মাঝ রাত পর্যন্ত অভিষেক-ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে ছিলেন।

‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’-এ নায়িকার ভূমিকার ভূয়সী প্রসংশাও করেন পার্টিতে হাজির অনেকে। তাতে অভিষেককে বেশ খুশি দেখাচ্ছিল বলে জানিয়েছেন ওই ব্যক্তি। তার কথায়, ‘ছবি তোলার জন্য পোজও দিচ্ছিলেন নায়িকা।’

ঐশ্বরিয়ার আত্মহত্যার চেষ্টার ঘটনায় বচ্চন পরিবারের দিকে আঙুলও তোলা হয় ওই লেখায়। বলা হয়, ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে আগে থেকেই পরিবারে সমস্যা ছিল। ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’-এ রণবীর কপূরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যের জেরে সেই পারিবারিক অশান্তি চরমে পৌঁছয়।

শাশুড়ি জয়া বচ্চনও নাম না করেই প্রকাশ্যে কটাক্ষ করেন ঐশ্বরিয়াকে। এর পরে সেখানে লেখা হয়, তার বৈবাহিক জীবন যে সঙ্কটময় এটা কোনও ভাবেই আর গোপন ছিল না। এর আগেও পুত্রবধূকে নিয়ে বচ্চন পরিবারের এমন অনেক গণ্ডগোলের খবর প্রকাশ্যে এসেছে বলে ওই ওয়েবসাইটের দাবি।

বচ্চন পরিবারের বিরুদ্ধে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগও তোলা হয়। এবং সেই কারণেই নাকি তাকে হাসপাতালে না নিয়ে গিয়ে বাড়িতেই চিকিৎসক ডাকা হয়। এমনকী, চিকিৎসকের মুখ বন্ধ রাখার চেষ্টাও করা হয় বলে ওই ওয়েবসাইটের দাবি।

তারা এও লিখেছে, একজন চিকিৎসক নাম প্রকাশ না করার শর্তে খবরটি ফাঁস করেন। সেই চিকিৎসককে উদ্ধৃত করে সেখানে লেখা হয়েছে, জ্ঞান ফেরার পর ঐশ্বরিয়া নাকি তাকে বলেছেন, ‘আমাকে মরতে দিন, এমন কষ্টকর ভাবে বাঁচার থেকে মরে যাওয়া ভালো।’

সব মিলিয়ে ভুয়ো এই খবর নিয়ে বেশ থমথমে বলিউড। কেউই কোনও মন্তব্য করতে নারাজ।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
December 2016
M T W T F S S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া