adv
২১শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

রাজধানীর উন্নয়ন প্রকল্পে ঢাকার দুই মেয়র ৫০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়েছেন

mayorডেস্ক রিপাের্ট : রাজধানী ঢাকার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে পাঁচ হাজার কোটি টাকা থোক বরাদ্দ চেয়ে চিঠি দিয়েছেন ঢাকা উত্তর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের দুই মেয়র। নিজস্ব আয়ের উতস কমে যাওয়ায় এবং নাগরিক সুবিধার আওতা বাড়ায় ব্যয় সংকুলান করতে এ অর্থ বরাদ্দ চেয়েছে দুই সিটি করপোরেশন।
 
অর্থ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হক চেয়েছেন দুই হাজার কোটি টাকা। আর ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন চেয়েছেন তিন হাজার কোটি টাকা। তারা এই টাকা চেয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছে চিঠি দিয়েছেন। অর্থমন্ত্রী বিষয়টি বিবেচনা করতে পারেন। বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
 
সূত্র জানায়, দুই মেয়রই তাদের চিঠিতে অর্থের অভাবে নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে পারছেন না বলে উল্লেখ করেছেন। তবে সুনির্দিষ্ট কোন প্রকল্পের উল্লেখ না থাকায় থোক বরাদ্দ দেওয়া নিয়ে মন্ত্রণালয় দ্বিধায় পড়েছে। কারণ, এর আগে দুই সিটি করপোরেশন ডাস্টবিন স্থাপনের যে প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে তার অধিকাংশ ডাস্টবিনই চুরি হয়েছে অথবা নষ্ট হয়ে গেছে।
 
এ বিষয়ে বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) অধ্যাপক সারোয়ার জাহান বলেন, ‘দুই সিটি করপোরেশন ডাস্টবিন স্থাপনের যে প্রকল্প হাতে নিয়েছিল তা অনেকটাই ব্যর্থ। প্রতিটি ডাস্টবিনের দাম পাঁচ হাজার টাকা করে পড়েছে। দুই সিটি করপোরেশনে প্রায় ছয় হাজার ডাস্টবিন স্থাপনের পর প্রকল্পটি বন্ধ রয়েছে। এ ধরনের প্রকল্পে বরাদ্দ দেওয়া হলে তাতে জনগণের অর্থের অপচয় হবে। সিটি করপোরেশনগুলোর সেবার মান বাড়াতে সুনির্দিষ্ট প্রকল্পের বিপরীতে বরাদ্দ দেওয়া উচিত।’
 
অর্থমন্ত্রীকে লেখা ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের চিঠিতে বলা হয়েছে, আপনি নিশ্চই অবগত আছেন যে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন একটি নাগরিক সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান। একজন নাগরিকের জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত সকল ধরণের নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা সিটি করপোরেশনের মূল দায়িত্ব। যানজটমুক্ত, পরিবেশবান্ধব, পরিচ্ছন্ন বায়ু, বসবাসযোগ্য এবং আধুনিক উন্নত নগর গঠন এবং নাগরিক সেবা নিশ্চিত করার জন্য ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। এ সকল প্রতিজ্ঞা বাস্তবায়নে ডিএনসিসি ইতোমধ্যে ব্যপক প্রকল্প/কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। অনেকগুলো প্রকল্প ইতিমধ্যে বাস্তবায়িত হয়েছে এবং অনেকগুলো বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় রয়েছে। 
 
এতে বলা হয়েছে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নিজস্ব রাজস্ব এবং বিভিন্ন প্রকল্পের বিপরীতে সরকারের কাছ থেকে প্রাপ্ত বরাদ্দ দিয়ে উন্নত নাগরিক সেবা প্রদান করা সম্ভব হয় না। মহাসড়ক, সড়ক নর্দমা, ভাঙা স্থান মেরামত/সংস্কার করা, পরিচ্ছন্ন রাখা, দেওয়াল লিখন মোছা ও সর্বত্র সড়কবাতি নিশ্চিত করা ব্যয়বহুল কর্মযজ্ঞ। এ বিশাল কর্মযজ্ঞ সম্পাদনের জন্য প্রাপ্ত অর্থ খুবই অপ্রতুল। আর্থিক দৈন্যতার কারণে নাগরিক সেবার মান নাগরিকদের প্রত্যাশা অনুযায়ী বৃদ্ধি করা সম্ভব হচ্ছে না।
 
নগরবাসীর জন্য উন্নত নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা এবং সরকার প্রতিশ্রুত উন্নয়ন কর্মকা- পরিচালনা অব্যাহত রাখার স্বার্থে ডিএনসিসির অনুকূলে দুই হাজার কেটি টাকা বরাদ্দ দেওয়ার জন্য আবেদন করেছেন ডিএনসিসি’র মেয়র আনিসুল হক।
 
একইভাবে অনুরূপ অপর এক চিঠিতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন তার এলাকার উন্নয়নে তিন হাজার কোটি টাকা থোক বরাদ্দ চেয়েছেন বলে সূত্র জানায়। 

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
November 2016
M T W T F S S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া