adv
৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বাফুফে নির্বাচন- হেলালের নামগন্ধ নেই, পাল্লা যেনো ঝুকে আছে সালাউদ্দিনের দিকে

indexক্রীড়া প্রতিবেদক : ৩০ এপ্রিল বাফুফে(বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন) নির্বাচনকে সামনে রাখে দারুণ সরগরম দেশের ফুটবল অঙ্গন। সভাপতি পদে তিনজন প্রার্থী হলেও, আলোচনায় নেই গোলাম রব্বানি হেলাল। তিনি প্যানেল ছাড়াই সভাপতি পদে নির্বাচন করছেন।
লড়াই যেটুকু হবে তা কাজী সালাউদ্দিনের সম্মিলিত পরিষদ ও সংসদ সদস্য কামরুল আশরাফ খান পোটনের ‘ফুটবল বাচাও ’জোটের মধ্যে। ক’দিন আগে ২৫ দফা নির্বাচনী ইশতেহার দেয় সালাউদ্দিন প্যানেল। আজ ২৪ এপ্রিল রাজধানীর একটি হোটেলে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করে ‘ফুটবল বাঁচাও’ জোট।

দুই পক্ষই নির্বাচনে জেতার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী। কিন্তু বাস্তব অবস্থা হলো, নাটকীয় কোন কিছু না ঘটলে টানা তৃতীয়বারের মতো সভাপতি হতে যাচ্ছেন দেশের কিংবদন্তি ফুটবলার কাজী সালাউদ্দিন। ভোটের হওয়া সে কথাই বলছে।

ক’দিন আগে বাফুফে ভবনে এসে সালাউদ্দিন প্যানেলকে পূর্ণ সমর্থন দিয়ে যান চট্রগ্রাম সিটি মেয়র, জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আ জ ম নাসির। এরপরই মূলত সালাউদ্দিন প্যানেলের সম্ভাবনা উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। বাফুফে নির্বাচনে মোট ভোটার ১৩৪। এরমধ্যে জেলা ও বিভাগীয় ফোরামের রয়েছে ৭০ ভোটের মতো। বাফুফে নির্বাচনে বরাবরই এই ফোরাম সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখে। মানে এই ফোরাম যে দিকে যায়, নির্বাচনে জিতে সেই প্যানেলই।

শুধু ফেরামই নয়, ঢাকার বিভিন্ন বিভাগের ক্লাবগুলোতেও সালাউদ্দিন প্যানেলের সমর্থন অনেক বেশি।‘ ফুটবল বাঁচাও’ জোটের পিছনে শেখ জামাল, মোহামেডান, আরামবাগসহ হাতে গোনা ক’য়েকটি ক্লাব।

সালাউদ্দিনের বিরুদ্ধে নানা দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ তুলে অনেক দিন ধরেই আন্দোলন করে আসেছিল ‘ ফুটবল বাঁচাও’ কমিটি। প্রধামন্ত্রীকে দিয়ে সালাউদ্দিনকে নির্বাচন থেকে বিরত রাখার চেষ্টা করেছিল তারা। কিন্তু কোনটাই সফল হয়নি। বাফুফে নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোটেও মাথা ঘামাচ্ছেন না।

‘ফুটবল বাঁচাও’ জোট প্রথমে সভাপতি পদে প্রার্থী করতে চেয়েছিল বেক্সিমকো গ্রুপের কর্ণধার সালমান এফ রহমানের ছেলে সায়াম রহমানকে। তিনি রাজি না হওয়ায় অনুরোধ করা হয় এফবিসিসিআইয়ের বর্তমান প্রেসিডেন্ট আব্দুল মাতলুব আহমেদকে। কিন্তু রাজি হননি তিনিও।

শেষমেষ ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ও সংসদ সদস্য কামরুল আশরাফ খান পোটনকে সভাপতি পদে প্রার্থী করে ‘ফুটবল বাঁচাও’ কমিটি। কিন্তু ফুটবলে তিনি একেবারেই অপরিচিত ব্যক্তি। আর তাকে যারা পরিচলনা করছেন সেই মঞ্জুর কাদের-লোকমানদেরও ক্রীড়াঙ্গণে তেমন গ্রহণযোগ্যতা নেই।তাদের কথায় খুব বেশি ভোট আসবে না- এমটাই মনে করছেন ফুটবল সংশ্লিষ্টরা।

পোটন নাকি বাফুফে নির্বাচনকে প্রেস্টিজ ইস্যু হিসেবে নিয়েছেন। তিনি জিততে মরিয়া।ভোট ব্যাঙ্ক নিজের দিকে আনতে চেষ্টার কোন ক্রুটি করছে না। ভোটারদের নাকি দেওয়া হচ্ছে নানা অফার। এতেও শেষ রক্ষা হবে না বলে মনে করছেন ফুটবল সংশ্লিষ্টরা।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া