adv
২৮শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

এ মাসে পূর্ণমাত্রায় ভোলার বিদ্যুত কেন্দ্রে উতপাদন

Buddit1ডেস্ক রিপোর্ট : দ্বীপজেলা ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার দক্ষিণ কুতবা এলাকায় স্থাপিত হয়েছে ২২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুত কেন্দ্র।
 
গত বছরের জুলাই মাসে শেষ হয় এর নির্মাণ। গত ডিসেম্বর মাসে উদ্বোধনের কথা থাকলেও অজ্ঞাত কারণে তা স্থগিত হয়ে যায়। তবে উদ্বোধন ছাড়াই বিদ্যুত সরবরাহ শুরু করা হয়েছে কেন্দ্র থেকে।
 
গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে বিদ্যুত উতপাদন শুরু হয়েছে। কিন্তু গ্যাস সংকটের কারণে উতপাদন কম হওয়ায় সব গ্রিডে বিদ্যুত সরবরাহ করা সম্ভব হয়নি। চলতি মাসে গ্যাস সংকট কেটে যাবে বলে আশা করেছেন প্রকল্প পরিচালক হারুন-অর-রশিদ। তিনি বলেন, গ্যাস সংকট কেটে গেলে এপ্রিল মাস থেকেই পূর্ণমাত্রায় উতপাদন করা সম্ভব হবে।
 
সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে জানা যায়, ভোলার উপজেলা বোরহানউদ্দিনে ২০১৩ সালের ১৩ জুলাই ২ হাজার ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে চীনা চেঙ্গেদা কোম্পানি ২২৫ মেগাওয়াট উতপাদন ক্ষমতার বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপনের কাজ শুরু করে। ২০১৫ সালের জুলাই মাসে নির্মাণ শেষ হয়। সেপ্টেম্বর মাসে জাতীয় গ্রিডে পরীক্ষামূলকভাবে বিদ্যুত সরবরাহ করে। গত বছরের ডিসেম্বর মাসে বিদ্যুত কেন্দ্রটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করার কথা ছিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।
 
বোরহানউদ্দিন পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম বলেন, ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুত কেন্দ্রের পর দক্ষিণাঞ্চলের বিদ্যুত সমস্যা নিরসনে জন্য এখানে আরও একটি ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মাণ করা হবে। যার মাধ্যমে ভোলাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে। তারা আশা করছেন, শিগিগিরই দ্বিতীয় প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শুরু হবে। বিদ্যুতের ওপর নির্ভর করে ছোট-বড় কারখানা হবে এখানে। এটা ভোলার মানুষের স্বপ্ন। প্রধানমন্ত্রীর কাছে ভোলার গণমানুষের দাবি বোরহানউদ্দিনে একটি সার কারখানা ও বড় বড় শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপন করা হউক।
 
বিদ্যুত বিভাগের ইলেকট্রিক্যাল প্রকৌশলী এরশাদ আলী বলেন, ভোলায় ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুত কেন্দ্র চালু হয়েছে। ওই বিদ্যুত কেন্দ্রে ৫৬ জন কর্মকর্তা-কর্মচারি নিয়োজিত রয়েছে।
 
১৯৯৩ সালে ভোলার বোরহানউদ্দিনের কাচিয়া এলাকায় আবিষ্কৃত হয় শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্র। এরপর ২০১০ সালে জেলা সদরে ৩৪ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন গ্যাসভিত্তিক রেন্টাল পাওয়ার প্লান্ট চালু হয়। তবে বাণিজ্যকভাবে শিল্পকারখানা স্থাপন হয়নি।
 
শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্রে মজুদ থাকা বিপুল পরিমাণ গ্যাসকে কাজে লাগিয়ে গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেয় সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় বোরহানউদ্দিন উপজেলার নাদীরার চর নামক এলাকায় প্রায় ৩০ একর জমির উপর গড়ে উঠেছে ২২৫ মেগাওয়াটের এই বিদ্যুত কেন্দ্র।
 
প্রায় ২ হাজার কোটি ব্যয়ে ১৮ মাস ধরে এর নির্মাণ চলে। ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক ও জিওবি ফান্ড থেকে অর্থের জোগান দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে বাংলাদেশ বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ড। এটি নির্মাণ করেছে চীনা কোম্পানি।
 
প্রকল্প পরিচালক হারুন-অর-রশিদ বলেন, নির্মাণ শেষে উতপাদনে গেছে বিদ্যুত কেন্দ্রটি। বিদ্যুত সরবরাহে বাধা নেই। এরপরও কেন উদ্বোধন হচ্ছে না জানি না। এটি রাজনৈতিক বিষয়।
 
তিনি বলেন, পুরোমাত্রায় উতপাদনে যেতে গ্যাস সংকট অন্যতম বাধা। আশা করা যাচ্ছে, চলতি মাসে গ্যাস সংকট কাটলে সব গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা যাবে।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া