adv
১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিএনপি পৌর নির্বাচনে সেনা মোতায়ন চায়

BNP Logoনিজস্ব প্রতিবেদক ঃ পরিস্থিতি বদলেছে- তাই বিএনপি এখন পৌর সভা নির্বাচনে সেনা মোতায়ন চায়। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে সাক্ষাত করে এমন দাবীই জানিয়ে বিএনপি প্রতিনিধি দল। তবে এর আগেই দলীয় চেয়ারপারসন সেনা মোতায়নের দাবি ঘোষনা করেছেন। 
যদিও নভেম্বর মাসে বিএনপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর সেনা মোতায়েনের দাবি তোলেনি। নির্বাচন কমিশনও স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করেনি। 
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মঙ্গলবার প্রথম সেনা মোতায়েনের দাবি গোষনা করেছেন। এর পরদিনই ইসিতে গেলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মঈন খানের নেতৃত্বে বিএনপি শীর্ষ নেতারা। 
“এখন কেন সেনা মোতায়েন চাইছেন”- জানতে চাইলে মঈন খান সাংবাদিকদের জবাবে বলেন, “দুই সপ্তাহ আগের পরিস্থিতি আর এখনকার পরিস্থিতি ভিন্ন। এখন নতুন আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। ভোটারদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সেনা মোতায়েন করতে অনুরোধ করেছি আমরা।”
পরিস্থিতি ‘বদলেছে’, তাই পৌর ভোটে সেনা চায় বিএনপি। এমনই প্রেক্ষপটে ৩০ ডিসেম্বরের এই ভোট নিয়ে তিন দিন আগে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত বৈঠক শেষ করেছে ইসি। সিইসি কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ বৈঠক শেষ করে সাংবাদিকদের বলেছিলেন, পরিস্থিতি ভালো আছে, সেনা মোতায়েনের প্রয়েঢাজন নেই।
মঈন খান মিডিয়ার সামনে দাবি করেন,“দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠেয় প্রথম নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীদের প্রচার চালাতে নানাভাবে বাধা নেওয়া হচ্ছে। 
“দুই সপ্তাহ ধরে যে জুলম-নির্যাতন চলছে দলের নেতাকর্মীদের ওপর, তাতে আর লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নেই। এ নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন।”
অন্যদিকে মঙ্গলবার ভোটের প্রচারে পটুয়াখালীতে হামলায় ক্ষতিগ্রস্থ  বিএনপি নেতা, সাবেক মন্ত্রী আলতাফ হোসেন চৌধুরীর গাড়ি; দলটির অভিযোগ, আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থকরা এই হামলা চালায়।
প্রশাসন ও সরকারদলীয় লোকজন থেকে যে পরিবেশ তৈরি করেছে তাতে বিএনপির জন্য সমান সুযোগ থাকছে না, বলেন তিনি।  —
“ভোটে সেনা মোতায়েন না হলে বিএনপির অবস্থান কী হবে”- প্রশ্ন করা হলে দলের নীতি-নির্ধারণী ফোরামের এই সদস্য বলেন, “আমরা এখনও ইসির অবস্থান জানি না, ইসি নিরাপত্তা নিশ্চিত করবেন।”
অন্যদিকে বিএনপির দাবির প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশনের কারও কোনো বক্তব্য এখনও জানা যায়নি। তবে সিইসি স্বাক্ষরিত ইসির সিদ্ধান্ত পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেখানে সেনা মোতায়েনের কোনো প্রসঙ্গ উল্লেখ নেই।
ইসি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, নির্বাচনী এলাকায় পুলিশ, এপিবিএন, ব্যাটালিয়ন আনসার, র্যাব, কোস্টগার্ড ও বিজিবি মোতায়েন করা হবে।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
December 2015
M T W T F S S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া