adv
৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রংপুরের জয়ের রথ থামিয়ে দিল বরিশাল

barisal-bulls-logo-for-bpl-t20-2015-11ক্রীড়া প্রতিবেদক ঃ বরিশাল রংপুরের জয়ের রথ থামিয়ে দিল। জেতা ম্যাচ হেরে গেছে রংপুর ১৩ রানে। যেমনটা আগের ম্যাচে চট্টগ্রাম জেতা ম্যাচ হেরে গিয়ে ছিল এই রংপুরের কাছে। এবার নিজেরাই শিকার হল রংপুর। বিপিএলের তৃতীয় আসরে টানা দ্বিতীয় জয়ের মুখ দেখা হল না রংপুরের। 

আগের দিন চট্টগ্রামের বিপক্ষে নিশ্চিত হারা ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়া সাকিবের রংপুর আজ মিরপুরের উইকেটে বরিশালের কাছে নিশ্চিত জেতা হেরেছে মিডল অর্ডারের ভূলে। শুরুতে কোন টেনশন নিয়ে ব্যাট করতে হয়নি রংপুরকে। টস জিতে ফিল্ডিং করার সিন্ধান্তটা যে সাকিব সঠিক নিয়েছেন বোঝা গেলে বরিশালকে ১৫৫ রানে আটকে দেবার পর। যদিও ৪ উইকেটে ১৫ রানে থাকা বরিশাল ১৫৫ রানে যাবে সেটাও চিন্তায় ছিল না কারও। যেমনটা কেউ চিন্তা করেনি ৫ উইকেটে ১৩৪ রানে রংপুর শেষ অবদি ১২ বলে ২২ যোগ করতে ৫ উইকেট হারিয়ে বসবে।

১৫৬ রানের মামুলি টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরু খুব একটা ভাল করতে পারেনি রংপুর। ধারাবাহিক ভাবে উইকেটের পতন ঘটলেও রানের চাকা সচলই রেখেন ব্যাটসম্যানরা। দলের ১৯ আর নিজের ১৭ রানে সৌম্য সরকার ফেরত গেলেন। সিমন্স টিকে থাকলেন, সঙ্গী সাকিব আল হাসান। দলীয় ৪০ রানের মাথায় কুপারের বলে ক্যাচ দিলেন ৬ রান করা সাকিব। আগের ম্যাচেও সাকিব নিরাশ করেছেন।

৪র্থ উইকেটে মিজবা-উল হক আর মিথুনের জুটি যখন টিকে গেছে বলে মনে হচ্ছিল তখনই ১৯ রান করা অভিজ্ঞ মিজবা কুপারের বলে ক্যাচ আউট! দলীয় সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৬৬ রান। মিথুন তখন নিজের ফিফটির দিকে তাকিয়ে আছেন। ১৭ ওভার শেষে স্কোর ৪ উইকেটে ১১৮ রান। মিথুন আর পেরেরা উইকেটে। মিথুন ৪৪ রানে আর পেরেরা ১১ রানে ব্যাট করছেন। ১৮ ওভারে স্কোর ১৩৪। ফেরত গেলেন পেরেরা ১৩ রানে। যদিও মিথুনের ২৯ বলে ৫০ হয়ে গেছে। ১২ বলে ২২ রান দরকার রংপুরের। কিন্তু ৫৫ রান করা মিথুন সামীর বলে ক্যাচ দিলে রংপুরের ড্রেসিং রুমে হতাশা নেমে আসে। জয় পেতে হলে বাউন্ডারি খুবই জরুরী। নতুন ব্যাটসম্যান আল আমিন স্লিপের ফাঁক দিয়ে মেরে দিলেন। ৬ বলে ১৫ দরকার। রংপুরের জন্য ম্যাচটি কঠিন হয়ে যায়। স্টাইকে স্যামী, বোলার কেভিন কুপারকে মাথার উপর দিয়ে তুলে মারলেন, কিন্তু বল খুব বেশি উপরে উঠে যাবার কারনে ফিল্ডার পারসানার তালুবন্দি করতে সমস্যা হয়নি। ১৯.১ ওভারে ৭ উইকেটে ১৪১। ৫ বলে ১৫ রান, ৩ বলে ১৫ রান আর শেষ মেষ ২ বলে ১৪ রান! প্রায় অসম্ভব কাজ। শেষ ওভারে কুপার পর পর তিন উইকেট শিকার করলেন। ৪-১-১৫-৫ এই ছিল কেভিন কুপারের বোলিং ফিগার। একাই ধস নামালেন রংপুরের ব্যাটিং লাইনআপে। ১৪২ রানে শেষ হল রংপুর।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নামা বরিশাল নিজেদের প্রথম ম্যাচে ৯ উইকেটে সংগ্রহ করে ১৫৫ রান। ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস, রনি তালুকদার আর বেন্ডন টেইলর তিন জনেই ১,১,১ করে রান যোগ করে ড্রেসিং রুমে ফেরত গেলেন দলকে মহা বিপদে ফেলে। ক্রিজে অধিনায়ক মাহমুদুল্লা রিয়াদ আর সাব্বির রহমান। কিন্তু দলের ১৫ রানেই সাব্বির ফেরত গেলেন ব্যক্তিগত ১১ রানে যোগ করে।

কিন্তু রিয়াদ নিরাশ করলেন না দলকে। নাদিফ চৌধুরীকে নিয়ে এগিয়ে যাবার চেস্টায়রত ছিলেন। যদিও নাদিফ আরও একটু টিকে যেতেন তাহলে দলীয় স্কোরটা আরও দেখতে সুন্দর হতে পারত। ৩১ বলে ৩০ রান যোগ করা সাব্বির সাকিবের বলে পেরেরার হাতে বন্দি হলেন। ৫ম ব্যাটসম্যান হিসাবে ৪৩ বলে ৫১ রান করা রিয়াদও সাকিবের শিকার বনে গেলেন সেই পেরেরার হাতেই। দলের স্কোর ৫ উইকেটে ৯৭ রান । পারসানা ১২ রান যোগ করে রান আউট। তবে শেষ দিকে কেভন কুপার মিথুনের থ্রোতে রান আউট হবার আগে ১৩ বলে ২১ রান যোগ করে গেলে ৯ উইকেটে সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৫৩। আর তাইজুল ইসলামের ৭ ও আল আমিনের ২ রান বরিশালকে ১৫৫ রানে পৌচ্ছে দেয়।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
November 2015
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া