adv
১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘ওর গুড লাক আমার ব্যাড লাক’

TAMIMজহির ভূঁইয়া : নাটকীয় হার চট্টগ্রামের। আর নাটকীয় জয় পেয়ে আনন্দে আতœহারা রংপুর। কি ছিল আসলে ২ উইকেটে হারা ম্যাচের ভুল গুলো! ম্যাচে শেষে এসবই যে তামিম ইকবালের ভাবনায় থাকবে সেটা তো জানা কথা। আর এই কথা গুলোই তো ব্যাখা হিসেবে ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে বলতে হবে তাকে। সেটাও মিডিয়া আগামই জানে। তাই তো তামিম ম্যাচ শেষে হারের ব্যাখা দিতে এসে নিজেদের ভূল গুলো তুলে ধরলেন।
কি ছিল ম্যাচের আসল ভূল? প্রশ্নের জবাবে তামিম ইকবাল বলেন,“আমরা যেভাবে শুরু করেছিলাম সেভাবে খেলতে পারলে আরও ২০টা রান বেশি হত। মাঝখানে একটু সমস্যা হয়েছিল। দুইটা ক্যাচ আমাদের ক্ষতি করেছে। এটা খেলারই একটি অংশ। কোনো খেলোয়াড়ের প্রতি আমার কোনো অভিযোগ নেই। তারা খুব ভালো খেলেছে। আমির খুব ভালো বল করেছে। তাসকিন ও শফিউল তার কাজ করেছে ঠিকমত। ম্যাচটা যেকোনো দিকেই যেতে পারত।
 
মিসবাহ উল হক প্রসঙ্গে তামিম বলেন,“ওদের ৩০ রানে ৪ উইকেট ছিল। ও দেখে শুনেই ইনিংসটি শুরু করেছিল। সিঙ্গেল নিয়ে খেলেছে। এরপর আস্তে আস্তে বড় শট খেলা শুরু করেছে। আমি ১১তম ওভারে মনে হয় আউট হয়েছি। ওই সময় থেকে যদি বাউন্ডারি না মেরে সিঙ্গেল নিয়েও খেলতাম তাহলে অন্তত ২০০ রান হত। এরকম শুরু সব সময় হবে না। এগুলো শিক্ষণীয় বিষয়। দেশি ও বিদেশি সবার জন্যে শিক্ষণীয়। মিসবাহ অবিশ্বাস্য খেলেছে। থিসারাও তার খেলাটা খেলেছে। উইকেট নিয়ে তামিম বলেন, নিশ্চিতভাবে এটা ভিন্ন উইকেট। খুব, খুব, খুব ভালো ব্যাটিং উইকেট। সহজেই বল ব্যাটে আসছিল। স্পিন হচ্ছিল না। আসলে কোনো স্পিনই হচ্ছিল না। বেটার উইকেট ছিল ব্যাটিং করার। এই ধরণের খেলায় ১৮৮ রান তাড়া করতে গিয়ে ৮ উইকেটে ১৮৬ রান,.. যে সময়ে শফিউলকে আনলাম এক ওভার করানোর জন্যে। ওই সময়ে যদি এক উইকেট  পেয়ে যেতাম, তাহলে তিন নম্বর ওভারটার কোনো প্রয়োজন হত না। ওরা ওই ওভার গুলো ব্যবহার করেছে। আমার মূল বোলারকে শেষে ব্যবহার করতেই হত। তবে আমারদের কিছু সুযোগতো নিতেই হবে। ওগুলো আজকে কাজে লাগেনি। আবার কোনো না কোনো সময় কাজে লাগবেই।
 নিজেদের ব্যাটিং প্রসঙ্গে বলেন, আমার কাছে মনে হয় আমি আমার সঠিক কাজটাই করেছি ব্যাটিংয়ে। বাহাতি স্পিনার ছিল। আমাকে সুযোগটি নিতেই হত। আমি যখন আউট হয়ে যাই তখন ক্রিজে ওদের দুই-এক ওভার দেখে খেলাি উচিত ছিল। ওই ওভারে আরেকটি উইকেট পড়ে যাওয়াতে আমাদের সমস্যা হয়েছে। ক্যাচ এমন একটা জিনিস, এটা মিস হতেই পারে। রাতুল এমন একজন ফিল্ডার ;; আমি যেই জিনিসটা ওখানে বললাম, সামনের ম্যাচে রাতুল ওই জায়গায় ওই পজিশনেই ফিল্ডিং করবে। কারণ ও একজন ভালো ফিল্ডার। ওর থেকে ক্যাচ মিস হওয়া দূর্ঘটনা। যেকোনো খেলোয়াড়ই ক্যাচ মিস করতে পারে। সাকিবের জয় নিয়ে বলেন, ওর গুড লাক আমার ব্যাড লাক। সাকিব জিতেছে। ভাগ্য সাহায্য করেছে সাকিবকে।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
November 2015
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া