adv
৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স দায় চাপালো এনএসসির উপর

-sultana-kamal.ক্রীড়া প্রতিবেদক : হঠাত করেই আবিষ্কার হয় কে বা কারা ধানমন্ডির ক্রীড়া কমপ্লেক্সে মহিলা সাঁতারুদের কাপড় পাল্টানোর রুমে ছিদ্র করেছে। এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হলে শনিবার বিকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস। ঘটনার সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত তিনি সাঁতার কমপ্লেক্স বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন।
নারী সাতারুদের পোশাক বদলের তিনটি কক্ষের ছাদ কে বা কারা  ছিদ্র করেছে। গত বুধবার হঠাৎ করেই এক মহিলা সাতারু দেখতে পান সেই ছিদ্র দিয়ে তাকে ফলো করা হচ্ছে। তিনি চিৎকার করলে মুহুর্তেই ওই লম্পট ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। সাতার কমপ্লেক্সের কর্মচারী মোমিনের দিকেই সবার অভিযোগের তীর। কিন্তু সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে নিশ্চুপ থাকেন সবাই।
দুপুরের পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে এসে এক মহিলা সাঁতারুদের  তোপের মুখে পড়েন জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস। সরেজমিনে দেখা যায় ছাদে প্রতিটি গর্ত কারা যেন আবার বন্ধের চেষ্টা করেছে মাটি ফেলে। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ সচিব জানান, ঘটনার সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত  বন্ধ থাকবে সুইমিংপুল। সচিবের পরিদর্শনকালে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন না মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সের সাধারণ সম্পাদক কামরুন নাহার ডানা।
এ ব্যাপারে ডানার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে স্টেডিয়ামে গিয়েছিলাম। যে কারণে সচিবের সঙ্গে থাকতে পারিনি। তিনি বলেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট হুসাইন মুহম্মদ এরশাদের আমলে তৈরি এই ক্রীড়া কমপ্লেক্স। দীর্ঘ বছরে কোনো সমস্যার কথা শুনিনি। হঠাৎ এই ছিদ্রের আবিষ্কার। আমি পরিদর্শনে গিয়ে দেখেছি, ছাদের উপর থেকে ছিদ্র পরিষ্কার বুঝা যায় না। তবে বাথরুম থেকে ছিদ্র অনেক বড়ই দেখা যায়। ডানা বলেন, প্রশ্ন অনেক। এতোদিনে কেনো মেয়েরা আমাকে জানায়নি। গোসলের সময় ছিদ্র সবার চোখেই পড়ার কথা। 
কামরুন নাহার ডানা আরো বলেন, এ ব্যাপারে মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের কোনো দায় নেই। এই কমপ্লেক্সের মূল মালিক জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) কে ঘটনা জানানো হয়েছে। তারা (এনএসসি) সরেজমিনে দেখে তদন্ত কমিটি করবে বলে জানিয়েছে। 

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া