adv
১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দেশিয় ষড়যন্ত্র দেখছেন বিসিবি সভাপতি

PAPONক্রীড়া প্রতিবেদক : বাংলাদেশের ক্রিকেটে আবার কালো মেঘ। ২৮ সেপ্টেম্বর জঙ্গী তৎপরতার দোহাই দিয়ে বাংলাদেশ সফর বাতিল করেছিলো ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সেই কালো মেঘ কিছুটা পরিস্কার হওয়ার পথে আবার নতুন করে জমাট বাধলো। এবার সফর স্থগিত  করলো দক্ষিণ আফ্রিকা। বাংলাদেশে তাদের উপর জঙ্গী আক্রমণের সমূহ সম্ভাবনার কথা জানিয়ে সফর স্থগিতের ঘোষণা দেয় দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দলও। এ অবস্থায় দেশীয় ক্রিকেটের শাসক সংস্থা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কী আর করা। বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপন খবরটি শুনে থমকে ছিলেন অনেকক্ষণ। বিড় বিড় বলছিলেন, এই ষড়যন্ত্রের শেষ কোথায়? 
এরপরই আসলেন সাংবাদিকদের সামনে। সভাপতি বলেন, ষড়যন্ত্র একটা অবশ্যই হচ্ছে। না হলে এভাবে হওয়ার কথা নয়। আমার ধারণা এটা দেশীয় কোনো ষড়যন্ত্র। এর সঙ্গে বাইরের কোনো যোগসূত্র আছে কিনা এখনো জানি না। তবে ক্রিকেটকে লক্ষ্য করে এসব করার সম্ভাবনা খুবই কম। কারণ ক্রিকেটকে ব্যবহার করা যাবে সাময়িকভাবে। কিছুদিনের জন্য হয়তো আটকানো যাবে। তারপর কী নিয়ে করবে? 
বাংলাদেশ যে মুহূর্তে ছন্দে রয়েছে, ঠিত সেই সময় এমন স্থবিরতা বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য ক্ষতি বলে মনে করেন পাপন।  তিনি বলেন, এই স্থবিরতা আমাদের জন্য এটা বিরাট ক্ষতি। হঠাৎ একটা ধাক্কা এল, ছন্দে ব্যাঘাত ঘটল। আমরা জয়ের ধারায় ছিলাম। আবার তারা কবে আসবে সেটি নিশ্চিত নয়। ফলে কোচ-খেলোয়াড়রা ছুটিতে যেতে চাচ্ছে। ভাবনা-চিন্তায় হঠাৎ একটা পরিবর্তন। এটাই তো আমাদের জন্য বিরাট ক্ষতি।
নাজমুল মনে করেন, সবাইকে আবার আস্থায় ফিরে নিয়ে আসার দায়িত্বটাও বাংলাদেশরই। এ জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা চাইলেন তিনি। বিদেশি নাগরিকদের হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত হলে পরিস্থিতি বদলে যাবে বলে আশাবাদী নাজমুল হাসান পাপন। 

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া