adv
২৫শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পুরুষের পেটে সন্তান – এলাকায় তোলপাড়

news_imgডেস্ক রিপোর্ট : নাম নাজমা আক্তার, বয়স ১৫ বছর। ছোট করে চুল ছাঁটা, পরণে প্যান্ট শার্ট। দেখতে অবিকল ছেলে। পেটের দায়ে বছর ২ আগে নিজের নাম পরিবর্তন করে নাজমুল ইসলাম নাম দিয়ে ছেলের ছদ্মবেশে রিকশা চালাতে শুরু করে। কিন্তু জীবন সংগ্রামে হেরে গিয়ে এক লম্পটের লালসার শিকার হয়ে তিনি এখন কুমারী মাতা।
সোমবার দিনগত রাত ১টার দিকে বাগেরহাটের শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনি একটি কন্যা সন্তান জন্ম দিয়েছেন। নাজমা আক্তার খোন্তাকাটা গ্রামের মৃত আ. খালেকের মেয়ে।

পুরুষের পেটে সন্তান হয়েছে এই খবর ছড়িয়ে পড়লে তা দেখার জন্য সকাল থেকে হাসপাতালে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসছে শত শত মানুষ।

এই ঘটনার জন্য দায়ী মৃত শামছু তালুকদারের ছেলে ও উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজারের হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম তালুকদারকে (৩৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
হাসপাতালের বেডে শুয়ে নাজমা জানান, ৪ বছর বয়সে তার বাবা মারা যান। মা মরিয়ম বেগম বছর পাঁচেক আগে অন্যাত্র বিয়ে করে তাকে ছেড়ে চলে যান। সব হারিয়ে নাজমার আশ্রয় হয় বৃদ্ধ দাদীর কাছে। এরপর গত এক বছর ধরে জীবিকার তাগিদে তিনি বেছে নেন রিকশা-ভ্যান চালানোর সংগ্রাম। এ কারণে মানুষরূপী পশুদের হাত থেকে বাঁচতে নাজমা পুরুষের ছদ্মবেশ ধারণ করে। নিজের নাম রাখেন নাজমুল। কিন্তু এরপরও তিনি নিজেকে রা করতে পারেননি।

উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজারের হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী রফিকুলের লালসার শিকার হন নাজমা। এতে তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। একথা বহুবার বলা হলেও রফিকুল তাকে গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রসব বেদনা নিয়ে হাসপাতালে ছুটে আসেন নাজমা। রাত ১টায় ফুটফুটে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন তিনি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. অসীম কুমার সমাদ্দার জানান, নাজমা ও তার মেয়ে সুস্থ আছে। ওসি মো. রেজাউল করিম জানান, নাজমার স্বীকারোক্তিমতে ওই রাতেই থানায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। মামলার আসামি রফিকুলকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া