adv
২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রোবার দ্বিতীয় ওয়ানডে- জিতলে সিরিজে ফেরা – হারলে সিরিজহারা

mashrafee1এল আর বাদল : হিসাব নিকাশের ওয়ানডে ম্যাচ রোববার। জিতলে সিরিজে ফিরে আসা আর হারলে সিরিজ হাতছাড়া। এ সবই বাংলাদেশের জন্য। দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম ওয়ানডে জিতে নিরাপদে নিশ্বাস ছাড়ছে। এখন তাদের লক্ষ্য বাকি দুই ম্যাচের একটি জিতলেই সিরিজ তাদের। তবে প্রোটিয়াস দলপতি হাশিম আমলা স্পষ্টই জানালেন, চট্টগ্রামের অপেক্ষা নয়। সিরিজের ফয়সালা ঢাকাতেই হবে। এর মানে দাঁড়ালো, রোববারই হাশিম আমলা দ্বিতীয় ওয়ানডে জিতে সিরিজ ঘরে তুলতে চাইছেন। এদিকে স্বাগতিক দলের অধিনায়কও শেষ পর্যন্ত চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন সিরিজে ফিরে আসার। দুই দল আজ স্বপ্নপূরণ করতে বিকাল ৩টায় মাঠে নামবে।  
সিরিজ শুরুর আগে টাইগার দলপতি একবারও বলেননি যে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারাতে পারবেন। প্রথম ম্যাচে ৮ উইকেটের বড় পরাজয়ে নড়েচড়ে বসেছেন অধিনায়ক নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত মাশরাফি বিন মোর্তুজা। বিশাল ব্যবধানে পরাজয়ে লজ্জিত মাশরাফি নিজেই। ক্রিকেট বোর্ডও তেঁতে আছে খেলোয়াড়দের উপর। শনিবার তাদের ডেকে সতর্ক করে দিলেন। পাশাপাশি পরামর্শ দিলেন বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। মুশফিকুর রহিম, সৌম্য সরকার, তামিম ইকবালসহ অনেককেই তাদের প্রথম ম্যাচে ত্র“টিগুলো চিহ্নিত করে বুঝালেন। প্রথম ম্যাচের ব্যর্থতা ঘোচাতে আজ দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে জয়ের জন্য যার পরনাই লড়াই করবে মাশরাফিবাহিনী।  
এদিকে শনিবার সাংবাদিকদের সামনে হাজির হয়ে প্রথম ম্যাচে নিজেদের ভুলত্র“টির কথা জানালেন অলরাউন্ডার নাসির হোসেন।  
প্রথম ওয়ানডেতে ধ্বংসস্তূপের মধ্যে দারুণ লড়াই চালিয়েছিলেন নাসির। একটা সময় সংশয় ছিল, বাংলাদেশের ১৫০ পার হয় কিনা। আটে নামা নাসিরের ৩১ রানের কল্যাণেই বাংলাদেশ যেতে পেরেছিল ১৬০ রান পর্যন্ত। রাবাদার এক ওভার মোকাবিলা করেছিলেন নাসির। সেই ২৭ তম ওভারটি মেডেন পেয়েছিলেন রাবাদা। ৪৪ বলে ৩১ রান করা নাসির সতীর্থদের বার্তা দিয়েছেন, কখনো কখনো কোনো বোলারকে একটু বুঝেই খেলতে হয়।
নিজে বেশ সামলাতে পারলেও দক্ষিণ আফ্রিকার রাবাদার বলে সতীর্থদের খাবি খাওয়া প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে নাসির বললেন, রাবাদার উইকেটগুলো দেখলে দেখবেন, কয়েকটা ছিল সফট ডিসমিসাল। লিটন, সৌম্য সফট ডিসমিসালে ফিরেছে। তবে দুই-একটা উইকেট পেয়েছে ভালো বোলিং করেই। একজন বোলার ৬ উইকেট পেতেই পারে। এ নিয়ে চিন্তার কিছু নেই। মনে করি না, সে এমন কোনো আহামরি বোলার, যাকে আমরা সামলাতে পারব না।
দুটো টি-টোয়েন্টিতে হার। প্রথম ওয়ানডেতেও পরাজয়ের হতাশা। তবুও নাসির বিশ্বাস করেন, সিরিজে ফেরার যথেষ্ট সুযোগ আছে বাংলাদেশের। দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর সামর্থ্য আমাদের আছে। আমরা ঠিকঠাক খেলতে পারছি না। ব্যাটসম্যানরা ঠিক খেলতে পারলেই ওদের হারানো সম্ভব।
নাসির জানালেন বোর্ড সভাপতি তেমন কিছুই বলেননি। তিনি আমাদের সব সময় সাহস দেন। উনি আমাদের খারাপ কিছু বলেননি। ইতিবাচক কথাই বলেছেন। সবাইকে তিনি আরও গুরুত্ব দিয়ে খেলতে বলেছেন।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া