adv
৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘দুই মন্ত্রীর স্বেচ্ছা পদত্যাগ করা উচিত’

Maya-Kamrulনিজস্ব প্রতিবেদক : বিচারিক স্বচ্ছতার স্বার্থে এবং নিজেদের জনপ্রিয়তা রক্ষার্থে যেসব মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে গুরুতর দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে তাদেরকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করা উচিৎ বলে মন্তব্য করছেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান।
মঙ্গলবার ১২টায় ধানমণ্ডির মাইডাস সেন্টারে টিআইবির সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সম্প্রতি খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম এবং ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার বিরুদ্ধে উঠা দুর্নীতির অভিযোগ বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।
ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘যদিও বিষয়টি বিচারাধীন তবুও যে কথাটি বলা যায়, তা হলো দেশের স্বার্থে এবং নিজের জনপ্রিয়তার স্বার্থে দুর্নীতির অভিযোগ উঠা মন্ত্রীদের পদত্যাগ করা উচিত। কেননা এতে করে আইনি লড়াইটা ভালো হয়। যদি তারা জয়ী হন পরবর্তীতে জনগণই তাদের ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নিয়ে আসবেন। তাই আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, এসব মন্ত্রীদের পদত্যাগ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করা উচিৎ। এর ফলে তাদের প্রতি জনগণের আস্থা ও জনপ্রিয়তা বেড়ে যাবে।’
সম্প্রতি অভিযোগ ওঠা গম কেলেঙ্কারি নিয়ে তিনি বলেন, ‘ভেজাল গম আমদানির বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। মন্ত্রী যে প্রত্যাশিত মানের গম আমদানি করতে পারেনি তা স্পষ্ট ও প্রমাণিত। আর এটাও প্রমাণিত যে সেখানে ভেজাল গম আমদানি করা হয়েছে। সরকারের উচিত নিজেদের স্বার্থে ও দেশের স্বার্থে গুরুত্ব সহকারে অভিযোগ আমলে নিয়ে অনুসন্ধান করা এবং অভিযুক্ত মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাদের মন্ত্রিসভা থেকে বহিষ্কার ও আইনের আওতায় নিয়ে আসা।’
টিআইবির নির্বাহী পরিচালক আরো বলেন, ‘তবে আমার মনে হয় রাজনীতির স্বার্থে, দেশের স্বার্থে, মানুষের রাজনীতির প্রতি যাতে অনিহা তৈরি না হয় এই স্বার্থেও তাদের পদত্যাগ করা উচিৎ। আমাদের দেশে যদিও এ রকম নজির নেই। তাই সম্প্রতি যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, তারা অন্তত দৃষ্টান্ত স্থাপনের জন্যও পদত্যাগ করতে পারেন। এতে তাদের প্রতি মানুষের শ্রদ্ধা বাড়বে। রাজনীতি কলুষমুক্ত হওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হবে।’
প্রসঙ্গত, দুদকের করা দুর্নীতির মামলায় ১৩ বছরের সাজা বহাল থাকায় ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার মন্ত্রিত্ব নিয়ে সাংবিধানিক জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে। অপরদিকে সম্প্রতি ব্রাজিল থেকে আমদানিকৃত ৪০০ কোটি টাকার পচা গম আমদানির মতো গুরুত্বর অভিযোগের মধ্যে রয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। যদিও তিনি এই আমদানিকৃত পচা গমকে ভালো প্রমাণিত করার জন্য এখনো আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া