adv
২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভারতের ব্যারেজ খুলে দেয়ায় দুর্ভোগে তিস্তাপাড়ের মানুষ

BARAJEডেস্ক রিপোর্ট : ভারতে বন্যা ঠেকাতে গোজলডোবা ব্যারেজের সবগুলো কপাট খুলে দিয়েছে। টানা বর্ষণে বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা সামলাতে না পেরে ফের এ ব্যারেজ খুলে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

এতে তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইতে শুরু করেছে। ফলে নীলফামারীর ডিমলায় তিস্তাপাড় ও চরাঞ্চলে ফের দেখা দিয়েছে বন্যা। এতে এ অঞ্চলের মানুষকে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে।
পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, পানি বাড়ায় শুক্রবার বিকেল দোয়ানী তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্টে বিপদসীমার ১০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। কিসামত ছাতনাই গ্রামের ইসহাক জানান, তিস্তার পানি বাড়া-কমার মাঝে ভাঙ্গন দেখা দেয়ায় গ্রামের পুর্বদিকে বেশ কিছু আবাদী জমি ইতোমধ্যে নদীগর্ভে বিলিন হয়ে গেছে।

ডিমলা উপজেলার পুর্বছাতনাই ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক আব্দুল লতিফ খাঁন জানান, কয়েকদিন আগের বন্যার রেশকাটতে না কাটতে বৃহস্পতিবার রাত থেকে ফের তিস্তাপাড় ও চরাঞ্চলে বসবাসকারী মানুষজন বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। এতে এলাকায় বিশুদ্ধ পানিও জলের অভাব দেখা দিয়েছে।
টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম শাহীন জানান, তার ইউনিয়নের চরখড়িবাড়ি, উত্তর খড়িবাড়ি, দক্ষিণ খড়িবাড়ি, পুর্বখড়িবাড়ি গ্রামের প্রায় পাঁচ শতাধিক পরিবারের বাড়িতে তিস্তা নদীর পানি ঢুকে বন্যা দেখা দিয়েছে।

ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম বলেন, উজানের ঢলে হঠাৎ করেই তিস্তা নদী ফুঁসে উঠে পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ক্ষেত্রবিশেষে ১০/১২ঘণ্টা থাকার পর আবার পানি নেমে যায়। এতে নদীতে ফিরে আসে স্বাভাবিক অবস্থা। যতক্ষণ তিস্তা বিপদসীমার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হতে থাকে ততক্ষণ পর্যন্ত তিস্তা ব্যারেজের উজান ও ভাটিতে চরাঞ্চলসহ বিভিন্ন গ্রামের বাড়ি-ঘরে হাটু থেকে কোমড় পরিমাণ পানি উঠেছে।

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া