adv
১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘বঙ্গবন্ধু জাদুঘর যেনো বেদনার ইতিহাস’

Ravi_Sashtriনিজস্ব প্রতিবেদক : রবি শাস্ত্রী, ভারতীয় ক্রিকেটের জীবন্ত কিংবদন্তী। ভারতীয় দলের হয়ে ঢাকা সফরে খেলেছেন বহুবার। কিন্তু এবারের সফরটি তার একেবারেই আলাদা। ভারত থেকে মনস্থির করে এসেছিলেন, একমাত্র টেস্টের পর বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের এক সময়ের বাসস্থান ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে ঐতিহ্যবাহী বাড়িটি পরিদর্শন করবেন। 
ভারতীয় ক্রিকেটের বরপুত্র আর বর্তমান জাতীয় দলের পরিচালক রবি শাস্ত্রী সোমবার সকাল ১১টায়  প্রবেশ করেন বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে। এ সময় সঙ্গে ছিলেন দলের ম্যানেজার বিশ্বরূপ দে, কোচিং স্টাফ সঞ্জয় বাঙ্গার আর ভরত অরুণ।   এর আগে জাদুঘরের চত্ত্বরে পৌঁছে প্রথমেই তারা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে।  রবি শাস্ত্রী ঘুরে ঘুরে দেখছিলেন ভবনের দেয়ালে দেয়ালে প্রতিটি কোনায় কোনায় টাঙিয়ে রাখা বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি। ছবির গ্যালারিতে ছবিগুলো দেখতে দেখতে থমকে দাঁড়ালেন বঙ্গবন্ধু ও মহাত্মা গান্ধির ছবি, বঙ্গবন্ধু ও ফিদেল ক্যাস্ট্রোর ছবির সামনে। বঙ্গবন্ধুর ওই ছবি দেখে নিরব নিশ্চুপ হয়ে থাকলেন রবি শাস্ত্রী। তাদের নেতৃত্বের উচ্চতা অনুধাবন করতে চেষ্টা করেন।  বঙ্গবন্ধুর কথা উল্লেখ করে বলতে থাকেন এমন একজন নেতার স্মৃতির সামনে দাঁড়াতে পারাটা মন ছুঁয়ে যাওয়ার মতো একটি বিষয়। 
যে সিঁড়িতে পড়েছিলো বঙ্গবন্ধুর প্রাণহীন দেহ তার সামনে দাঁড়িয়ে ঘাতকদের নৃশংসতা স্মরণ করে থমকে থাকেন রবি শাস্ত্রী। এর আগে মুগ্ধ হয়ে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ শোনেন কিছুক্ষণ। তার দেওয়া ছয় দফা দাবিগুলো খুটিয়ে খুটিয়ে পড়েন। 
বের হওয়ার আগে ভিজিটরস বুকে রবি শাস্ত্রী লেখেন, এমন একজন মহান ব্যক্তিত্বের বাড়িতে এসে গৌরব ও বেদনার ইতিহাসের মুখোমুখি হলাম। আমি মনে করি কোন পর্যটক ঢাকায় এলে প্রথম সুযোগেই এই বাড়িটি একবার দেখে যাওয়া উচিত।
জাদুঘর থেকে বের হয়ে যাবার সময় রবি সাংবাদিকদের জানালেন, আমি ভারতে বসেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম টেস্ট শেষ হওয়ার পরই বঙ্গবন্ধুর বাড়ি এবং জাদুঘর দেখবো বলে। ইচ্ছাপূরণ করতে পেরে আমি ভাগ্যবান। 
 

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া