adv
২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নিমতলী ট্রাজেডির ৫ বছর

nimtoli_68369নিজস্ব প্রতিবেদক : আজ ৩ জুন বুধবার। একটি ভয়াল দিন। ক’জনের মনে পড়ে এই দিনটির কথা। ভয়াল নিমতলী ট্র্যাজেডি দিবস আজ। ৫ বছর আগে ২০১০ সালের এই দিনে রাজধানীর পুরান ঢাকার নিমতলী এলাকার নবাব কাটারার ৪৩ নম্বর বাড়ির এক তলার কেমিক্যাল ফ্যাক্টরি থেকে সৃষ্ট আগুনের লেলিহান শিখা কেড়ে নেয় ১২৫ জন মানুষের প্রাণ। সেদিন নিমতলীর সেই দুর্ভাগা বাসিন্দাদের কাছ থেকে আগ্নিশিখা কেড়ে নেয় তাদের প্রিয়জনকে, করে দেয় সহায়-সম্বলহীন, পুড়িয়ে ছাই করে দেয় ওই স্থানের বাসিন্দাদের সুখ-স্বপ্ন আর আনন্দ।

এই দুর্ঘটনায় সহায় সম্বল হারিয়ে বেদনায় কাতর বাসিন্দাদের অনেকেই এলাকা ছেড়ে চলে যান। অনেকেই আবার নতুন করে সেখানেই শুরু করেন জীবন সংগ্রাম। এই ভয়াল অগ্নিকাণ্ডের কথা স্মরণ করে প্রতি বছর ৩ জুন কুঁকড়ে ওঠেন নিমতলীবাসী, স্বজেনর মনে করে আহাজারিতে ভেঙে পড়েন। এদিন তারা আপনজনদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দিনব্যাপী দোয়া মাহফিলেরও আয়োজন করেন।

এদিকে, ২০১০ সালে দুর্ঘটনার পর আগুনে মৃত ব্যক্তিদের প্রতি পরিবারকে ক্ষতিপূরণ বাবদ সরকারিভাবে এক লাখ ২০ হাজার টাকা অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু আগুনে পুড়ে যাওয়া মালপত্র নষ্ট হওয়া বাবদ সরকারের পক্ষ থেকে পরিবারগুলোকে দেয়া হয়নি কোনো ক্ষতিপূরণ। আহত লোকজন পাননি চিকিতসার জন্য অর্থসাহায্য।

নিমতলীতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে আপনজনদের হারিয়েছিলেন রুনা, রতœা ও আসমা। মা-বাবাসহ স্বজন হারানো এই মেয়েদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার উদ্যোগেই গণভবনে ৯ জুন তাদের বিয়ে দেয়া হয়। তারা এখন সবার কাছে শেখ হাসিনার মেয়ে বলেই পরিচিত।

দুর্ঘটনার পর আবাসিক এলাকা থেকে সব ধরনের রাসায়নিক পদার্থের দোকান, গুদাম ও কারখানা অপসারণ করার কথা থাকলেও আজও তা হয়নি বলে জানান এলাকাবাসী। ফায়ার সার্ভিসের প্রধান কর্মকর্তা জানান, পুরান ঢাকায় রাসায়নিক পদার্থ বিক্রি ও মজুদ অব্যাহত থাকলে ভবিষ্যতে আরো বড় ধরনের বিপর্যয়ের ঝুঁকি রয়েছে।
এদিকে, নিমতলী ট্রাজেডির পাঁচ বছর উপলক্ষে আজ বুধবার মিলাদ মাহফিল, মসজিদ-মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনাসহ আগুনে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য নির্মিত স্মৃতি স্মারকের ওপর পুষ্পস্তবক অর্পণ ও আলোচনা এবং শোভাযাত্রার বের করার কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার পুরানা ঢাকার নবাব কাটরায় নাগরিক অধিকার আন্দোলন, গ্রীন ক্লাব অব বাংলাদেশ, শান্তির জন্য উদ্যোগ সংগঠনগুলো একটি শোভাযাত্রার বের করে। শোভাযাত্রায় বক্তারা ৩ জুনকে নিমতলী ট্রাজেডি দিবস হিসেবে ঘোষণা, পুরান ঢাকা থেকে রাসায়নিক গুদাম ও দোকান স্থানান্তর এবং নিমতলী ট্রাজেডিতে নিহত প্রতিটি ব্যক্তির পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে দেয়াসহ সরকারের কাছে পাঁচ দফা দাবি পেশ করেন।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া