adv
৫ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মুস্তফা কামালকে লেখা ডালমিয়ার চিঠিতে কী ছিলো

kamal-mনিজস্ব প্রতিবেদক : গত রোববার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ফাইনাল খেলা দেখতে পরিকল্পনামন্ত্রী, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) সাবেক সভাপতি ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি আ হ ম মোস্তফা কামাল কলকাতায় যান। সেখানে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি জগমোহন ডালমিয়ার আমন্ত্রণেই তিনি এ সফর করেছেন। কলকাতা পৌঁছার পর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী ও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) সভাপতি জগমোহন ডালমিয়া মুস্তফা কামালকে উষ্ণ সংবর্ধনা দিয়েছেন।
পরিকল্পনামন্ত্রীর এ সফরে জগমোহন ডালমিয়া দুই দেশের ক্রিকেট সম্পর্ককে অত্যন্ত মজবুত ও গভীর আখ্যায়িত করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘ভারত-বাংলাদেশ ক্রিকেট সম্পর্ক সবসময় অতি উচুঁতেই ছিল, এখনো আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।
এরই ধারাবাহিকতায় জগমোহন ডালমিয়া মুস্তফা কামালকে গত ২৭ মে চিঠি ও কিছু ছবি পাঠিয়েছেন, যা পরিকল্পনামন্ত্রীর কাছে শুক্রবার এসে পৌঁছায়। ডালমিয়ার পাঠানো ইংরেজি চিঠির বাংলা ভাবানুবাদ করলে এমনটা দাঁড়ায়-
প্রিয় কামাল,
সদ্য সমাপ্ত আইপিএল ফাইনাল খেলা দেখতে আসায় আমরা সত্যি আনন্দিত। আপনার উপস্থিতি নিশ্চিতভাবেই ফাইনাল ম্যাচকে আরও উজ্জ্বল করেছে। ব্যস্ত সফরসূচির মধ্যেও আমাদের আমন্ত্রণে সাড়া দেওয়ায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে আমি আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। সফরকালে আমাদের সঙ্গে আপনার অন্তরঙ্গ মুহূর্তে তোলা কিছু ছবি পাঠিয়ে দিলাম। আবার দেখা হবে।
ধন্যবাদন্তে,
জগমোহন ডালমিয়া
উল্লেখ্য, চলতি বছর বিশ্বকাপ ক্রিকেটের কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে জয়ের মতো পরিস্থিতি তৈরি করেছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। শেষ অবধি ভারত জয় পেলেও আম্পায়ারদের কিছু বিতর্কিত সিদ্ধান্ত ও আইসিসির কতিপয় আচরণ ম্যাচটিকে প্রশ্নবিদ্ধ করে তুলেছে। এই রেশ ধরে আইসিসির চেয়ারম্যান শ্রীনিবাসন ও তৎকালীন সভাপতি মোস্তফা কামালের মধ্যে দ্বন্দ্ব^ চরমে উঠেছে। এর ধারাবাহিকতায় আসরের ফাইনালে মোস্তফা কামালকে বঞ্চিত করার পাশাপাশি নিয়ম ভঙ্গ করেই বিশ্বকাপ ট্রফি চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার হাতে তুলে দিয়েছিলেন শ্রীনি। পরবর্তী সময়ে আইসিসির সভাপতি পদ থেকে পদত্যাগও করেছেন কামাল।
শ্রীনি-কামাল দ্বন্দ্বে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার ক্রিকেটীয় সম্পর্কে ফাটল ধরারও পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল একটা পর্যায়ে। তবে দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তা ও অন্তরাল থেকে কূটনৈতিক শীর্ষ ব্যক্তিবর্গের চেষ্টায় শেষ অবধি বাংলাদেশ-ভারত ক্রিকেট সম্পর্ক অঁটুট রয়েছে। যে কারণেই আগামী ৭ জুন বাংলাদেশ সফরে আসছে ভারতীয় ক্রিকেট দল এবং এটাকে আরও জোরদারভাবে প্রমাণ করতেই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) আমন্ত্রণে কলকাতায় গিয়েছিলেন কামাল।
 

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া