adv
২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

২০ হাজার নারী শ্রমিক রমজানের আগে সৌদি আরব যাচ্ছে

nari_692582083নিজস্ব প্রতিবেদক : আসন্ন রমজানের আগে সৌদি আরবে কমপক্ষে ২০ হাজার নারী শ্রমিক পাঠাবে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে ৩০ হাজার শ্রমিকের জন্য ভিসা এসে পৌঁছেছে।
বৃহস্পতিবার (১৪ মে) বিকেলে সৌদি আরবের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
মন্ত্রী জানান, দেশটি তাদের চাহিদা অনুযায়ী ৫০ হাজার শ্রমিক নিতে চায়। এ জন্য ১০০ রিক্রুটিং এজেন্সিকে ২০০ জন করে নারী শ্রমিক সংগ্রহ করতে বলে হয়েছে। যাতে তাদের চাহিদা অনুযায়ী আমরা যথা সময়ে নারী শ্রমিক পাঠাতে পারি।
ইতোমধ্যে ৩০ হাজার শ্রমিকের জন্য ভিসা এসে পৌঁছেছে। তবে চূড়ান্তভাবে আগামী মাসের (জুন) মধ্যে ২০ হাজার নারী শ্রমিককে সৌদি আরবে পাঠাবে বাংলাদেশ।
এ সময় সম্প্রতি মানবপাচার প্রসঙ্গে সরকারের করণীয় এবং গৃহীত উদ্যোগ বিষয়ে মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, আমরা শুধু বৈধ শ্রমিকদের নিয়ে কাজ করি। অবৈধ শ্রমিকদের নিয়ে নয়। এটি স্বরাষ্ট্র-পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাজ। বৈধ-অবৈধ মিশ্রণ করলে অসুবিধা হয়ে যাবে। তবে স্বরাষ্ট্র-পররাষ্ট্র-এ দুই মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ রয়েছে।
এদিন ৭ সদস্য বিশিষ্টি একটি প্রতিনিধি দল মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষৎ করেন। এতে নেতৃত্ব দেন সৌদি আবরের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি মিনিস্টার ড. আহমেদ আল ফাইদ। তারা বিভিন্ন রিক্রুটিং এজেন্সির সঙ্গেও বৈঠকে বসবেন বলে জানা গেছে।
মালয়েশিয়াতে জিটুজি (গভর্নমেন্ট টু গভর্নমেন্ট) পদ্ধতিতে শ্রমিক যায়নি, এ বিষয়ে যে অভিযোগ করা হচ্ছে সেটি নিয়ে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ সাংবাদিকদের বলেন, তারা চাহিদা যেমন পাঠিয়েছে তেমন শ্রমিক গেছে। যারা সমালোচনা করছেন তারা না ভেবেই করছেন। 
‘সমালোচকদের কথায় আমরা বাজার উলোটপালট করতে পরি না’- বলেন মন্ত্রী। 
মন্ত্রী আরও মন্তব্য করেন, বিগত বিএনপি-জোট সরকার আমলে আড়াই লাখ শ্রমিক মালয়েশিয়াতে যায়, আর আমরা আওয়ামী লীগ সরকার আসার পর বিশ্ব মন্দার মধ্যেও ৫০ লাখ শ্রমিক পাঠিয়েছি।

নৌকায় করে মানবপাচারের ঘটনা নতুন নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এবার রেকর্ড হয়েছে বলে যে কথা বলা হচ্ছে তাও সঠিক নয়। এবার বিষয়টি সংবাদপত্রে বা মিডিয়াতে বেশি প্রচারের কারণে এমনটি মনে হতে পারে। মূলত দেশটিতে বর্তমানে শ্রমিক চাহিদা না থাকার এটি ঘটেছে। মন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়াতে কোনো শ্রমিকই প্রাইভেট পর্যায়ে যায় না। দেশটি সরাসরি আমাদের ডাটাবেজ থেকে শ্রমিক নেয়, কোনো এজেন্ট এর মধ্যে থাকে না।
তবে সাম্প্রতিককালে মালয়েশিয়া থেকে কেন আরও চাহিদা আসছে না, সে বিষয়ে দ্রুত একটি মিটিং করে আলোচনায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া