adv
২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইয়েমেনে বাংলাদেশি প্রকৌশলী পাক-ভারত দূতাবাসের কাছে সহায়তা পাচ্ছেন না

rajshahi bagha enginiour (yeanem) photo 01.04.15_74961ডেস্ক রিপোর্ট :  গৃহযুদ্ধপীড়িত ইয়েমেনের রাজধানী সানায় আটকা পড়েছেন রাজশাহীর বাঘার প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা। স্বাজনদের তিনি জানিয়েছেন, সেখানকার পরিস্থিতি খুবই খারাপ। প্রায় প্রতিদিনই হচ্ছে বিমান থেকে বোমাহামলা। এতে বন্ধ রয়েছে দেশটিতে বিমান চলাচল। ফলে দেশে ফেরার কোনো উপায় দেখছেননা তিনি।

সেখানে বাংলাদেশের কোনো দূতাবাস না থাকায় তিনি পাকিস্তান ও ভারতীয় দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। তারা জানিয়েছে, এ মুহূর্তে কোনো বিদেশিকে তাদের সেবা দেয়ার সুযোগ নেই।

আর এ সংবাদেই শয্যাশয়ী তার বৃদ্ধা মা নূরুন্নার বেওয়া (৮০)। পরিবারের সদস্যরা প্রহর গুনছেন তার ফেরার। কাটছে অপেক্ষা আর দুঃচিন্তার দীর্ঘ রাত।

প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা বাঘার আড়ানী পৌর এলাকার ভারতিপাড়া গ্রামের আবদুল জব্বারের বড় ছেলে। মাস খানেক আগে বিশ্ব ব্যাংকের একটি প্রকল্পে রোড রক্ষণাবেক্ষণ কাজের টিম লিডার হিসেবে ইয়েমেনে যান প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা। দেশটির রাজধানী সানার নিকবর্তী ঈদ শহরে দায়িত্বপালন করছিলেন তিনি।

তার স্ত্রী স্বপ্না খাতুন, দুই ছেলে সুমিত ও সজিবকে নিয়ে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের শেখেরটেকে বসবাস করেন।  গত সপ্তাহে দেশে ফেরা কথা ছিলো তার।
মুঠোফোনে যোগাযোগ প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফার স্ত্রী স্বপ্না খাতুন বলেন, টেলিফোনে তাদের সঙ্গে তার স্বামীর যোগাযোগ হচ্ছে।
তিনি জানিয়েছেন, প্রায় প্রতিদিনই দেশটিতে বিমান থেকে বোমাহামলা হচ্ছে। এতে দেশটির রাজধানী সানাসহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকার পরিস্থিতি উদ্বোগজনক।

তিনি ছাড়াও সেখানকার প্রবাসী আরো অনেক বাংলাদেশি উদ্বোগ-উৎকণ্ঠায় দিন কাটাচ্ছেন।
এদিকে, বুধবার ভারতিপাড়ায় গিয়ে কথা হয় প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফার মা নুরনাহার বেওয়ার সঙ্গে। গণমাধ্যমকর্মী পরিচয় পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন তিনি। কান্না জড়িত কণ্ঠে জানান, তার পাঁচ ছেলে ও এক মেয়ে। এদের মধ্যে সবার বড় গোলাম মোস্তফা। বড় আদুরে সন্তান তিনি। গৃহযুদ্ধপীড়িত ইয়েমেন থেকে নিরাপদে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকারের প্রতি দাবি জানান তিনি।

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া