adv
২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

লড়াই করে হেরেছে বাংলাদেশ

CRICKET-BAN-SRIমেহেদি মাসুদ : বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে লড়াই করে হেরেছে বাংলাদেশ। খেলার শুরুতে টাইগাররা আশা জাগালেও শেষটা হয়েছে বিষাদের। শেষ পর্যন্ত আজ পাকিস্তানের কাছে তিন উইকেটে হেরে গেছে বাংলাদেশ।
সিডনির অলিম্পিক পার্ক ওভারে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশ ৪৯.৫ ওভারে অল আউট ২৪৬ রানে। জয়ের জন্য পাকিস্তানের টার্গেট ২৪৭ রান। এমন লক্ষ্যে পৌঁছাতেও পাকিস্তানকে খোয়াতে হয়েছে ৭ উইকেট। তবে লড়াই হয়েছে সমানে সমান।  এক সময় মনে হচ্ছিল, বাংলাদেশ জিতেও যেতে পারে। সে ধারনা ভুল প্রামণ করেছে পাকিস্তানের লোয়ার ব্যাটসম্যানরা।
জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতে বেশ নাজুক অবস্থাই ছিল পাকিস্তানের। দুই ওপেনার সাজঘরে ফেরেন দ্রুতই। দলীয় রান যখন দুই, তখন সরফরাজ আহমেদকে (১) এনামুলের ক্যাচ বানান রুবেল হোসেন। এরপর মাশরাফি ঝলক। দলীয় আট রানে আহমেদ শেহজাদকে (৫) আউট করেন তিনি। তবে শুরুর এই ধাক্কা দ্রুতই কাটিয়ে ওঠে পাকিস্তান। তৃতীয় উইকেটে ইউনিস-সোহেলের ৪৪ রানের জুটি দলকে এনে দেয় স্বস্তি। দলীয় ৫২ রানে ইউনিস খানকে (২৫) বিদায় করেন তাসকিন আহমেদ। তবে চতুর্থ উইকেট জুটিতে সোহেল-মাকসুদ এনে দেয় ৫১ রান। ৩৯ রান করে সোহেলকে বিদায় করেন মাহমুদল্লাহ। তখন পাকিস্তানের দলীয় রান ১০৩।
এরপর উমর আকমলকে সাথে করে আগাতে থাকেন মাকসুদ। দলীয় ১৬৬ রানে উমর আকমলকে (৩৯) ফেরান বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি। পাক অধিনায়ক মিসবাহ খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি। মাত্র ১০ রান করেই বোল্ড হন তাসকিনের বলে। কিন্তু পাকিস্তানের স্কোর তখন দুইশর কাছে। কারণ মাকসুদ ততক্ষণও ক্রিজে ছিলেন সচল ব্যাট হাতে। এরপর আফ্রিদি এসে ২০ বলে ২৪ রান করলে জয়ের খুব কাছাকাছি চলে যায় পাকিস্তান। আফ্রিদিকে আউট করেন সাকিব আল হাসান। শেষ পর্যন্ত ৪৮.১ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌছে যায় পাকিস্তান। ৯০ বলে ৯৩ রান করা শোয়েব মাকসুদ শেষ পর্যন্ত ছিলেন অপরাজিত। বাংলাদেশের হয়ে মাশরাফি ও তাসকিন নেন দুটি করে উইকেট। রুবেল, সাকিব, মাহমুদুল্লাহ পান একটি করে উইকেট।
এর আগে টসে জিতে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশের শুরুটাও ছিল বাজে।  স্কোরবোর্ডে এক রান উঠতেই শূন্য রানে রাজঘরে ফেরেন এনামুল হক। সোহাইল খানের বলে শোয়েইব মাকসুদের হাতে ধরা পড়েন তিনি। তিনে নামা মুমিনুল ৭ রান করে হ্যারিস সোহেলের বলে ক্যাচ দেন তারই হাতে। বিপর্যয়কর পরিস্থিতিতে দলের হার ধরেন তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ। এই তৃতীয় উইকেট জুটিতে ১৬৮ রান তুলে প্রথমে আউট হন মাহমুদউল্লাহ। ব্যক্তিগত ৮৩ রানে মাহমুদউল্লাহ রান আউটের দুর্ভাগ্যের শিকার না হলে বাংলাদেশের সংগ্রহটা নিশ্চিত ভাবেই আরও বাড়তে পারত।  ৮১ রান করে তামিমও ফেরেন বাজে সময়ে। এরপর কিছুটা লড়েছেন  সাকিব আল হাসান। ৩০ বলে ৩১ রান করেন তিনি। পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ পাচ উইকেট নেন মোহাম্মদ ইরফান। ইয়াসির শাহ দুটি।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
February 2015
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
232425262728  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া