adv
২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কক্সবাজার উপকূলে জেলেদের দুর্ভিক্ষ

88828493জামাল জাহেদ,কক্সবাজার : বাংলাদেশের সাগরদ্বীপ কক্সবাজার জেলার উপকূলের প্রায় ৫০ হাজার জেলেদের মুখে হাসি নেই। ভেতরে সবার যেনো চরম হতাশা। সাগরের ব্যবসায় প্রচুর মন্দাভাব,বারবার মাছবিহীন ট্রলার ফেরত আসাতে চিন্তায় রাতের ঘুম হারাম। ঋণ আর সুদী টাকার যন্ত্রনায় মহাবিপাকে জেলেরা। ওদের মধ্যে দুর্ভিক্ষ চলছে। দেখার কেউ নেই। মৌসুম শুরু হয়ে গেছে অনেক আগেই। তাই তাদের ছুটতে হবে বঙ্গোপসাগরে ইলিশের সন্ধানে। পরিবার-পরিজন নিয়ে একটু ভালোভাবে বাঁচার আশায় মহাজনদের কাছ থেকে মোটা অংকের ঋণ নিয়ে সবকিছু ঠিকঠাক করে এনেছে কিন্তু সাগরে মাছের আকাল, সুদের টাকায় অতিষ্ঠ ট্রলার মালিকেরা বিশেষ করে কুতুবজোমসহ ঘটিভাংগার বোট মালিকেরা। মুখে শুকনো হাসি ভিতরে চাপা কষ্ট,নির্ঘুম রাত ভেবে ভেবে কুল কিনারা পান না। অসহায় জেলে পরিবারের সদস্যরা। কিভাবে অভাব থেকে মুক্ত হবে হাজারো জেলে। 
গত মৌসুমে ইলিশের আকাল, প্রজনন মৌসুমে ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও জলদস্যুদের আক্রমণ সব মিলিয়ে উপকূলীয় জেলা কক্সবাজারের জেলেদের মোটেই ভালো যাচেছ না মৌসুমটা। মহাজনদের কাছ থেকে ঋণ নিয়ে কোনোমতে চলেছে তাদের সংসার। গত কয়েক মৌসুমের ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে জেলেরা আশায় বুক বেঁধে আবারো সাগরে নেমেছিলো, বৈরী আবহাওয়া আর জলদস্যুর আতঙ্ক নিয়েই সাগরে যাচ্ছেন জেলেরা। ইতিপুর্বে কয়েকশত জেলের সলিল সমাধি হয়েছে ডাকাতের কবলে পড়ে। এই মৌসুমে কেউ সুখের হাসি হাসতে পারবে বলে মনে হয় না। অনেকেই নিঃস্ব হয়ে যাবেন এমন আশঙ্কা জেলে পল্লীর। মালিক সমিতির সভাপতি মো. আবদুল মান্নান জানান, গত মৌসুমে ইলিশের আকাল, সরকারি নিষেধাজ্ঞা ও জলদস্যুদের হামলা ও অপহরণের শিকার হয়েছেন উপকূলীয় জেলেরা আর এখন সাগরে মাছ ধওে না। তাই বোট মালিকরা খুব অসহায় দিনযাপন করে। সরকারি কোন সাহায্য ও পায়না বলে জানান তারা। একদিকে সংসারের ভরণ-পোষণের ব্যর্থতা, অপরদিকে অপহরণ থেকে উদ্ধার পেতে ঋণের জালে জড়িয়ে পড়েছেন অধিকাংশ জেলে। ফলে অনেকেই পেশার প্রতি আগ্রহ হারিয়ে দেনার দায়ে এলাকাছাড়া হয়েছেন। বিশেষ করে যেসব জেলে মুক্তিপণ দিয়ে জলদস্যুদের কবল থেকে ফিরে এসেছে সেসব পরিবার এখন নিঃস্ব হয়ে গেছে। তাই অনেক প্রতিকূলতা মাথায় নিয়েও সাগরে যাওয়ার প্রস্তুতি শেষ করে এনেছেন জেলেরা। এখন ইলিশ শিকারই হচ্ছে তাদের একমাত্র আরাধনা। কারণ গত বছরের ঋণ পরিশোধ করা এখনো বাকি কেবল জেলেরা দু’পয়সা ঘরে নিতে পারবে তা ও জানিনা। ফলে একপ্রকার বাধ্য হয়েই আবার সাগরে যেতে হচ্ছে জেলেদের। জেলা মতস্য অফিসের তথ্যানুসারে কক্সবাজার জেলায় ৩৭ হাজার ৫৪১টি জেলে পরিবার বাস করে। বেসরকারি সংগঠন কোডেকের হিসাব অনুযায়ী এ জেলায় জেলে পরিবারের সংখ্যা হচ্ছে সরকারি হিসাবের প্রায় দ্বিগুণ। এমৌসুমে সাগরে ইলিশ না পাওয়া, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও জলদস্যুদের আক্রমণের শিকার গভীর সমুদ্রগামী জেলেদের এখন চরম দুর্দিন চলছে। পাশাপাশি প্রজনন মৌসুমে ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞার ও জাটকা নিধন রোধে কোস্টগার্ড ও মতস্য অধিদফতরের বিশেষ অভিযানে অনেকেই ধারদেনা ও দাদন নিয়ে কেনা জাল খুইয়েছেন। তবুও পরিবার-পরিজন নিয়ে বাঁচার তাগিদে আবার মহাজনের কাছ থেকে ঋণ নিয়ে ইলিশ শিকারে সাগরে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়েছে জেলেরা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কক্সবাজার মতস্য অবতরণ কেন্দ্রের কয়েকজন ব্যবসায়ী মনে করেন, এ মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন সমুদ্রগামী জেলেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। সাগরে নিরাপদে মাছ ধরতে পারলে একদিকে জেলেরা যেমন ভালো থাকতে পারবেন, অপরদিকে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আয় করতে পারবে সরকার। 
এক্ষেত্রে প্রধান বাধাই হচ্ছে জলদস্যুদের তাণ্ডব। আর বর্তমান রাজনৈতিক অবরোধ হরতাল। জেলা ফিশিং ট্রলার মালিক সমিতির হিসাব অনুযায়ী গত মৌসুমে সহস্রাধিক মাছধরা ট্রলারে ডাকাতি হয়েছে। এ সময় জলদস্যুরা মাছ, জাল, জ্বালানি তেল, ট্রলার, ট্রলারের যন্ত্রাংশসহ প্রায় ১০০ কোটি টাকার মালামাল লুটে নেয়। মুক্তিপণ আদায়ের জন্য অপহরণ করা হয়েছে তিন হাজারেরও বেশি জেলেকে। সেসব জেলেকে ফিরিয়ে আনতে প্রায় তিন কোটি টাকা মুক্তিপণ দিতে হয়েছে জেলে পরিবারগুলোকে। এছাড়া জলদস্যুদের হামলায় কয়েকশত জেলে নিহত ও প্রায় এক হাজার জেলে আহত হয়েছেন। জেলার পুলিশ সুপার শ্যামল কান্তি নাথ বলেন, “জেলেরা এ অঞ্চলের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষিত সম্প্রদায়। তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ, র‌্যাব ও কোস্টগার্ড আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। কোস্টগার্ডের নিয়মিত অভিযানের পাশাপাশি র‌্যাব বিশেষ অভিযান পরিচালনা করছে। সর্বোপরি জলদস্যু দমনে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সবসময় প্রস্তুত রয়েছে।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
February 2015
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
232425262728  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া