adv
২রা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কোকো মারা না গেলে ২৪ জানুয়ারি গ্রেফতার হতেন খালেদা!

khaleda_zia_1_9596ডেস্ক রিপোর্ট :  বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যুতে ভেস্তে যায় গত ২৪ জানুয়ারি বেগম খালেদা জিয়ার গ্রেফতার অভিযান। কোকোর মৃত্যু সংবাদ পাওয়ার এক ঘণ্টা আগে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়।
কয়েকটি গোয়েন্দা সংস্থা সূত্র জানিয়েছে, ২৪ জানুয়ারি সন্ধ্যায় খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার কিংবা গৃহবন্দীর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে গ্রেফতারের পরিবর্তে আন্দোলন দমাতে বেগম জিয়াকে গৃহবন্দী করার জন্য সরকারের চিন্তা ভাবনা বেশি ছিল। এজন্যই শ্রমিক লীগ এবং আওয়ামী লীগের কয়েকটি অঙ্গসংগঠনের কর্মসূচিকে জনতার দাবি হিসেবে দেখিয়ে গুলশান কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ প্রতিবাদ শুরু করা হয়। এর অংশ হিসেবে যাত্রাবাড়িতে গাড়ি পোড়ানোর মামলায় বেগম জিয়াকে হুকুমের আসামি করা হয়েছে। যাত্রাবাড়ি থানা থেকে প্রাপ্ত এজাহারের নথিপত্রে দেখা যায় ২৪ জানুয়ারি দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
গোয়েন্দা সংস্থার সূত্রগুলো আরো জানায়, খালেদা জিয়ার কার্যালয় থেকে তার নিজ বাসভবন নজরদারিতে রেখে বিরোধীদলের আন্দোলন দমন এবং একই সঙ্গে গুলশান থেকে বিএনপির কার্যালয় সীলগালা করে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়। কিন্তু কোকোর মৃত্যুতে এসব পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। তবে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলার ঘটনা প্রকাশ পায় ২৫ জানুয়ারি।

উল্লেখ্য, যাত্রবাড়ি থানায় খালেদা জিয়াসহ বিএনপি ও জামায়াতের ১৭ নেতাকে হুকুমের আসামি করে মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলা নং-৫৮। সূত্র – আমাদেরসময় ডটকম

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া