adv
৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দেখার কেউ নেই – কক্সবাজারে বাংলাদেশি পাসপোর্টে রোহিঙ্গারা

et-2-3জামাল জাহেদ,কক্সবাজার : সমুদ্র নগরী কক্সবাজারের সব উপজেলার  পাসপোর্টের আবেদনপত্র তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার দায়িত্ব দেওয়া হয় জেলা ডিএসবি অফিসে। এ অফিসের ডিএসবির কনস্টেবল শাহিন ও ইসমাঈলের  বিরুদ্ধে বেপরোয়া ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে বিপাকে পড়েছে বাংলাদেশি নাগরিকরা। আর অবাধে রোহিঙ্গারা পেয়ে যাচেছ বাংলাদেশি পাসপোর্ট। অসংখ্য পাসপোর্ট আবেদনকারী ভূক্তভোগীরা প্রতিনিয়ত হয়রানির স্বীকার। আইন সম্মত সব ঠিকঠাক করে জেলা পাসপোর্ট অফিসে জমা দিলেও তারা নেয় না বরং উলটো নানা অজুহাতে বের করে দেয়। শত পাচেক টাকা হাতে  ধরিয়ে দিলে আবেদকারীর নাগালে চলে আসে পার্সপোর্ট। পাসপোর্ট আবেদনকারীরা এখন অফিসের অসাধু কর্মকর্তা ও কিছু চিন্তিত দালালের হাতে জিম্মি। ‘জয়পরাজয়’ এর অনুসন্ধানে জানা গেছে, পেকুয়ার রাজাখালী এলাকার বাসিন্দা ও কক্সবাজার পাসপোর্ট অফিসের চিহ্নিত দালাল রিয়াজ উদ্দিন রাজু সাথে রয়েছে শাহিন মিয়া,ও ইসমাঈলের বিশেষ সখ্যতা। এমনকি সব দালালের সাথে ডিএসবি সব কর্মকর্তাদের যোগসাজেশ রয়েছে। 
এছাড়া আরো কয়েকজন পাসপোর্ট অফিসের দালালের সাথে শাহিনের সু-সম্পর্ক রয়েছে। এসব দালালের কাছ থেকে প্রতিনিয়িতই মোটা অংকের মাসোয়ারা নেন তিনি। অভিযাগ রয়েছে, ওই ডিএসবি কনস্টেবলের বিরুদ্ধে স্থানীয় চিহ্নত মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে সখ্যতা, চোরাই মোটরসাইকেলের ব্যবসাসহ স্থানীয় বিভিন্ন মামলার আসামির সাথে মধুর সম্পর্ক রয়েছে। এসব অপকর্ম উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা অবগত হয়েও ডিএসবি কনস্টেবল শাহিন মিয়ার বিরুদ্ধে রহস্যজনক কারণে  ব্যবস্থা নিচ্ছে না। স্থানীয়রা জানান, এ দাপুটে কনস্টেবল পুলিশের চট্টগ্রামের ডিআইজি ও কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার শ্যামল কান্তি নাগের কাছের লোক পরিচয় দেওয়ায় সংম্লিষ্ট কেউ তার বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহসও কওে না। গত কয়েক মাস পূর্বে কনস্টেবল শাহিন মজুমদারসহ আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে টইটং ইউনিয়নের পোরদিয়া গ্রামের প্রাবাসী উসমান গণি মনুর স্ত্রী মনোয়ারা বেগম লিলি বাদী হয়ে চকরিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি চাঁদাবাজীর মামলা করেছিল। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত তিন বছর পূর্বে পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) কনস্টেবল হিসেবে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানার হাজতখোলা বাজার এলাকার জনৈক আবু তাহের মজুমদারের পুত্র শাহিন মজুমদার পেকুয়া থানায় যোগদান করেন। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন, ডিএসবি কনস্টেবল শাহিন পেকুয়া থানায় যোগদান করেই শুরু করেন নানা অপকর্ম।

imagesপেকুয়া থানার সাবেক ওসি মো. হাবিবুর রহমানকে গত ৭/৮ মাস পূর্বে পেকুয়া চৌমুহুনী ষ্টেশনে লাঞ্চিতও করেছিল ওই কনস্টেবল শাহিন। প্রতিটি পাসপোর্টের আবেদনপত্র তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার নামে তিনি ২ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নেন। কোন পাসপোর্ট আবেদনকারী তার দাবীকৃত টাকা না দিলে পাসপোর্ট আবেদনপত্রে মিথ্যা তথ্য দিয়ে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রতিবেদন দাখিল করার অভিযোগ রয়েছে।
এদিকে গোপন সূত্রে জানা গেছে, কনস্টেবল শাহিন পেকুয়া থানায় যোগদান করার পর থেকে পেকুয়ার রাজাখালী ইউনিয়নের ঠিকানা উল্লেখ করে প্রায় ২০-৩০ জন রোহিঙ্গা নাগরিক পাসপোর্ট পেয়েছেন। অভিযোগ রয়েছে, এর নেপথ্যে রাজাখালীর বাসিন্দা ও কক্সবাজার আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের চিহ্নিত দালাল রিয়াজ উদ্দিন রাজুর সাথে শাহিনের গোপন আঁতাত! রোহিঙ্গা নাগরিকদের কাছ থেকে মোটা অংকের লেনদেন করে দালাল রাজু তার এলাকার ঠিকানা ব্যবহার করে এসব রোহিঙ্গা নাগরিকের পাসপোর্ট পাওয়ার ক্ষেত্রে ডিএসবি কনস্টেবল শাহিনকে মোটা অংকের ঘুষ দিয়ে পাসপোর্ট পেতে সহায়তা করেছেন। 
স্থানীয়রা রাজাখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে গত দুই বছর ধরে যারা আবেদন করে পাসপোর্ট পেয়েছেন, এসব পাসপোর্টধারীদের ঠিকানা যদি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তদন্ত করলে সত্য বেরিয়ে আসবে বলে দাবী করেছেন। মহেশখালি থেকে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে ইসমাঈল কনেষ্টবল। মিয়ানমারের ইয়াছমিন বেগম ঝুনু নাম ব্যবহার করে, মহেশখালি ঘটিভাংগার এক মহিলার কাগজপত্র দিয়ে আবেদন করে,পরে ইসমাঈল গ্রামে গেলে,এলাকার মেম্বারের কাছে সত্যতা যাচাইয়ে প্রমানিত হয় রোহিঙ্গা পরে, ইসমাঈল কৌশলে অফিসে আসতে হবে বলে,কক্সবাজার নিয়ে যায় মোটা টাকার ধান্ধায়। এভাবে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশি পাসপোর্ট পায়,কিন্তু বাংলাদেশিদেও ভাগ্যে পাসপোর্ট জোটে না। এসব অভিযোগের ব্যাপারে পেকুয়া থানায় কর্মরত ডিএসবি কনস্টেবল শাহিনের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনীত এসব অভিযাগ সরাসরি অস্বীকার করে জানান, পাসপোর্ট তদন্ত করে প্রতি্েবদন দেওয়ার নামে তিনি কাউকে আর্থিকভাবে হয়রানী করছে না। চোরাই মোটর সাইকেলের ব্যবসার সাথে ও জড়িত নেই বলেও দাবী করেন। এ বিষয়ে পাসপোর্ট অফিসের ডিডি শওকত কামালের সাথে যযোগাযোগ করা হলে,তিনি অভিযোগের বিষয়ে খোঁজ নিয়ে শিগগিরই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে জয় পরাজয়কে জানান।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
December 2014
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া